Dr. Aminul Islam

Published:
2021-06-01 11:01:27 BdST

আপনার সহকর্মীর প্রতি আপনি কতটুকু সহমর্মী



প্রফেসর ডা সুলতানা আলগিন
মনোরোগ বিশেষজ্ঞ
কনসালটেন্ট, ওসিডি ক্লিনিক ও জেরিয়াট্রিক ক্লিনিক, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা
________________________

আপনার সহকর্মীর প্রতি আপনি কতটুকু সহমর্মী ?

একজন ভদ্রলোক চেম্বারে এলেন পেশায় ব্যাংকার। বয়স ৪২ অবিবাহিত। উনার সমস্যা হলো উনি একাকীত্বে ভুগছেন। ভাবলাম অবিবাহিত ,হতেই পারে। উনি বললেন সহকর্মীদের সাথে মানিয়ে নিতে কষ্ট হচ্ছে। জিজ্ঞেস করলাম কেন?
ভদ্রলোক বললেন তার কাজে সময় লাগে,বাথরুমে গেলে প্রায় ঘন্টাখানেক লাগে। সময়মত অফিসে আসতে পারি না। আবার তার জন্য সবার যেতেও দেরী হয়। কারও সাথে সে মিশতে পারছে না । সবাই এড়িয়ে চলে। হাসাহাসি করে।কোন কাগজে সই করতে কতক্ষণযে চেক করি। দিব কি দিব না কোথায় কি সমস্যা দেখতে দেখতে অনেক দেরী হয়ে যায়। বোঝার পরেও ফাইলটা ছাড়তে দেরী হয়। সবাই বিরক্ত। আমিও হতাশ হয়ে পড়ছি। নিজেকে কোনভাবেই নিয়ন্ত্রণ করতে পারছি না।
ভদ্রলোক ওসিডি রোগে ভুগছেন। উনি তার সমস্যার কথা কারও সাথে শেয়ার করতে পারছেন না। শেয়ার করলে সবাই তাকে মানসিক রোগী ভাববে। ভাববে কাজে ফাকি দিতে চায়। প্রমোশনের ক্ষেত্রে যদি জটিলতা তৈরী হয়। অথচ সে যোগ্যতার দিক থেকে সহকর্মীদের তুলনায় কোন অংশেই কম নয়। বরং অনেকের থেকে এগিয়ে।
প্রতি ৪জনে ১জন ওসিডি রোগী এভাবে কর্মক্ষেত্রে কষ্ট পাচ্ছেন। নিজেকে গুটিয়ে নিচ্ছেন। বিষন্নতায় ভুগছেন।
সহকর্মীদের প্রতি অনুরোধ:
আপনার ওসিডি আক্রান্ত সহকর্মীর পাশে দাড়ান। তার চিকিৎসার জন্য তাকে মনোবল দিন। তার পরিবারকে তার পাশে দাঁড়াতে বলুন। ক্রনিক ডিজিজ যেমন ডায়াবেটিস,স্কীন,হার্ট,কিডনী,হাঁপানীর মতই ওসিডি রোগটি চিকিৎসার মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব। মনোরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন। তার ওষুধ খাওয়া ,দৈনন্দিন কাজকর্মের ফলোআপ করতে সাহায্য করুন। আপনার হাসাহাসি একজন মানুষের জীবন যেমন ধ্বংস করতে পারে তেমনই আপনার সহানুভূতি স্পর্শে সে পেতে পারে নতুন জীবন।

আপনার মতামত দিন:


মন জানে এর জনপ্রিয়