SAHA ANTAR

Published:
2022-07-16 10:49:26 BdST

ওসিডি ডায়েরি শিশুটি সারাদিন ডায়াপার পরে থাকে:পায়খানা করে ১৫দিনে একবার


ডা. সুলতানা আলগিন,বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোরোগ বিদ্যা বিভাগের প্রফেসর ও সাইকোথেরাপি উইংএর প্রধান এবং কনসালটেন্ট , ওসিডি ক্লিনিক ও জেরিয়াট্রিক ক্লিনিক

ওসিডি এবং টয়লেট ট্রেনিং

 


অধ্যাপক ডা. সুলতানা আলগিন
মনোরোগ বিদ্যা বিভাগ,
কনসালটেন্ট ওসিডি ক্লিনিক এবং জেরিয়াট্রিক ক্লিনিক,
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় , ঢাকা
__________________________

পাঁচ ছয় বছরের বাচ্চা । মাবাবা স্কুলে পাঠাতে পারছে না। বুদ্ধিসুদ্ধি স্বাভাবিক। কিন্তু তার মধ্যে টয়লেট এ্যাংজাইটি তীব্র। এখনও সারাদিন ডায়াপার পরে থাকে। পায়খানা করে ১৫দিনে একবার । হাত পা কোমড় শরীর নিজস্ব ভঙ্গিতে মোচড়াতে থাকে। আর পায়খানার বেগ নিয়ন্ত্রণ করে। এই বাচ্চাটির মলথলি/ রেক্টাম অনেকটাই ডাইলেটেড হয়ে গেছে। প্রস্রাব ইনফেকশন ধরা পড়েছে। প্রচন্ড চঞ্চল বাচ্চাটি।

সমবয়সী আরেকটি শিশু। বাবামা জোর জবরদস্তি করেও পটিতে বসাতে পারছে না। টয়লেটে যাওয়া বা কমোডে কবে বসতে শিখবে , এই যন্ত্রণা থেকে কবে তাদের মুক্তি মিলবে -- করুণ চোখে মাবাবা দুজনেই ডাক্তারের সামনে বসে । বললেন, খাওয়া নিয়ে প্রচন্ড হিমশিম খাচ্ছে সবাই। পছন্দের খাবার ,পোশাক এবং মানুষ নিয়ে তার জগত। হাতে মোবাইল - গেম ,কার্টুন সার্বক্ষণিক সঙ্গী। এর বাইরে টেনে হিঁচড়ে কোন লাভ হয় না।
এদের পরিবারে ওসিডি বা শুচীবাই রোগীর ইতিহাস আছে।

ওসিডি কেন হয় ?

সামাজিক/জৈবিক/রাসায়নিক বিশ্লেষণ :
আর শিশুদের মধ্যে যখন কোন ওসিডির লক্ষণ দেখা যায় সেটা সাধারণত বংশগতির কারণেই এদের মধ্যে আগে শুরু হয়। বংশগত কারণ যদি ৫৫% দায়ী হয় তবে এধরণের পারিপার্শ্বিক কারণ ৪৫% দায়ী । ওসিডি বা শুচীবাই এর আত্মীয় যার ওসিডি ছিল কিন্তু অনেক আগে মারা গেছেন তিনিও কিন্তু বংশলতিকায় পড়বেন। অনেকে সেটা ¯স্বীকার করতে নারাজ। বংশগত কারণ ছাড়াও এই রোগ হতে পারে ; তবে যাদের এই কারণ আছে তাদের রিস্ক বেশি। শিশুদের স্ট্রেপটোকক্কাল ইনফেকশন ,মাথায় আঘাত,খিচুনীর ইতিহাস থাকলে তাদের মধ্যে ওসিডি পরবর্তীতে দেখা দিতে পারে। ব্রেনের কর্টিকোস্ট্রায়েটাল-থ্যালামো-কর্টিকাল লুপে যখন নিউরোট্রান্সমিটারের হ্রাসবৃদ্ধি ঘটে তখন এই রোগের লক্ষণ বৃদ্ধিপায়।


মনোজাগতিক বিশ্লেষণ:


ফ্রয়েডের তত্ব অনুযায়ী শিশুদের সাইকোসেক্সুয়াল ডেভলপমেন্ট জন্মের পর থেকে পিউবার্টি-এডাল্ট হওয়া পর্যন্ত পাঁচটি পর্বে --- ওরাল ,এনাল ,ফ্যালিক,ল্যাটেন্ট এবং জেনিটাল স্টেজে বিকশিত হয় । ওরাল স্টেজে মুখ ,এনাল স্টেজে পায়ু ,ফ্যালিক স্টেজে লিঙ্গ কেন্দ্রিক (সেক্সডিফারেন্স),ল্যাটেন্ট স্টেজে সুপ্তাবস্থা এবং জেনিটাল স্টেজে সেক্সুয়াল অর্গানভিত্তিক মনোজৈবিক/ ইরোজেনাস আনন্দ/¯স্বস্তির জোন বা কেন্দ্র থাকে ।

ওরাল স্টেজ জন্মের পর থেকে এক-দেড় বছর , এনাল স্টেজ এক বছর থেকে ৩ বছর , ফ্যালিক স্টেজ তিন বছর থেকে ৬বছর, ল্যাটেন্ট স্টেজ ৬বছর থেকে পিউবার্টি,জেনিটাল স্টেজ পিউবার্টি থেকে পূর্ণবয়স্ক (১৮-২০ বছর) ভাগে বিভক্ত।এক স্টেজ থেকে আরেক স্টেজে বয়স বাড়ার সাথে সাথে মনোজৈবিক/ ইরোজেনাস পরিবর্তন হয়। প্রত্যেক স্টেজের কনফ্লিক্ট ঠিকমত সমাপ্ত না হলে মনো কাঠামোতে প্রভাব পড়ে। পরবর্তীতে ব্যক্তিত্ব বিকাশে সমস্যা দেখা যায়।
ফ্রয়েড এর তত্ব অনুযায়ী শিশুর প্রথম ৫ বছর তার পারসোনালিটি বা ব্যক্তিত্ব তৈরীতে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখে। ' ইড' ( id) মানুষের ইন্সটিঙ্ক্ট যেমন খাওয়া,ঘুম আর সেক্স নিয়ে ব্যস্ত থাকে । আর ইগো ,সুপার ইগো সামাজিকতা আচারব্যবহার ন্যায়অন্যায় বিবেকের কাজ করে। আর যখন এদের মধ্যে বোঝাপড়ায় সমস্যা তৈরী হয় তখন হতাশা তৈরী হয় । পরবর্তীতে অবদমিত ইচ্ছা হতাশা ব্যক্তিত্বে প্রভাব ফেলে।

 

ওসিডি ও এনাল স্টেজ ফিক্সেশন :

সাইকোসেক্সুয়াল ডেভলপমেন্ট এর ওরাল ,এনাল এবং ফ্যালিক স্টেজ এর বিভিন্ন স্টেজের ডেভলপমেন্ট স্বাভাবিক না হলে আচরণগত ফিক্সেশন হয়। আর তার প্রভাব শিশু থেকে পূর্ণবয়স্ক মানুষের মানস,পারসোনালিটিতে প্রভাব ফেলে। ওরাল স্টেজে ফিক্সেশন হলে ঐ শিশুর মধ্যে নখ কামড়ানো, ধুমপান, চুইংগাম চিবানো আর পানীয়ের প্রতি আসক্তি দেখা দেয়।

উদ্বেগজনিত সমস্যা প্রবল থাকে। এনালস্টেজে ফিক্সেশন হলে এনাল রিটেনটিভ ভ্যারাইটি টাইপ পারসোনালিটি এবং এনাল এক্সপালসিভ টাইপ পারসোনালিটি দেখা যায়। এই স্টেজের ফিক্সেসন ওসিডি বা শুচীবায়ু রোগের লক্ষণের সাথে সম্পৃক্ত।


এক থেকে তিন বছর বয়স পর্যন্ত শিশুর আনন্দ পায়ু কেন্দ্রিক থাকে আর ত্যাগেই আনন্দ পায় ।

তারা তাদের অধিকার সম্পর্কে সচেতন হয়। মলমূত্র ত্যাগে তাদের ইচ্ছামাফিক নিয়ন্ত্রণের অধিকার জন্মায়। কিন্তু সমাজ তাকে তার ইচ্ছামাফিক নিয়ন্ত্রণের স্বেচ্ছাচারিতা থেকে সরিয়ে সামাজিকতা রীতিনীতি শেখায়। কোথায় কখন পটি করতে হবে তারই শিক্ষা দেয়া হয় পরিবারে।এই দুয়ের মাঝে চলে গড়িমসি। আর এই সময় পায়খানা করার/পটি ট্রেনিং যদি খুব কড়াকড়ি প্রকৃতির হয় তবে বাচ্চাদের মধ্যে এনাল রিটেনটিভ ভ্যারাইটি টাইপ পারসোনালিটি দেখা যায় ।

ঐ শিশুর মধ্যে অতিরিক্ত গুছিয়ে রাখা, টিপটপ থাকা , সময়ানুবর্তিতা,ভদ্র অনুগত প্রকৃতি দেখা যায় ।

নাক উঁচু, অমিশুক,হিসেবী আর সঙ্গীর প্রতি ডমিনেটিং ( সন্দেহবাতিক ) ভাব লক্ষ্য করা যায়।পায়খানা করার ট্রেনিং যদি খুব ঢিলাপ্রকৃতির হয় তবে এনাল এক্সপালসিভ টাইপ পারসোনালিটি যেমন খুব ধীর প্রকৃতির, ঢিলাঢালা,অগোছালো,বেপরোয়া টাইপ হয়। পেটে কথা রাখতে পারে না । হাতখোলা টাইপ প্রবৃত্তি এদের মধ্যে দেখা যায় ।
শিশুদের ওসিডির লক্ষণগুলো প্রথমে সহজে চোখে ধরা পড়ে না।
গুছানো ,বাধ্যগত,অমিশুক টাইপ হওয়ার কারণে তাদের আচরণগুলোকে পরিবারের সদস্যরা আগ্রহ দিয়ে আরও বাড়িয়ে দেয়। শিশুদের মনমতো চলার চেষ্টা করে পরিবারের সবাই। অগোছলো প্রকৃতির মধ্যে ধীরস্থির অগোছালো হোর্ডিং প্রবৃত্তি দেখা যায়। শিশুদের এই আচরণগুলো আস্তে আস্তে বাড়তে থাকে।আর সেটা তখন রোগের পর্যায় চলে যায়।


শিশুদের কখন টয়লেট ট্রেনিং দিবেন?

 

দেড় দুই বছর বয়স বাচ্চাদের টয়লেট ট্রেনিং দেয়ার সময়। ৩-৬ মাস মাস লাগে শিখতে । ছেলে শিশুরা শিখে দেরীতে আর মেয়ে শিশুদের তুলনায় অনেক বেশী সময় নেয়। আপনার শিশু যখন নীচের কাজ গুলো করতে বা বুঝতে পারবে তখনই অভিভাবকদের সচেতন হতে হবে।

যা হলো :
সাধারণ নির্দেশ অনুসরণ করতে পারে,পটি শব্দটি বুঝতে বা চিনতে পারে,পায়খানা বা প্রস্রাবের সাথে পটির সংযোগ আছে তা বুঝতে পারে, ২ঘন্টা বা তার বেশী সময় ডায়পার শুকনা রাখতে পারে,প্রয়োজনে নিজের প্যান্ট বা ডায়পারের ধরে টানতে পারে। বাচ্চা যখন পটির আশেপাশে ঘোরা ফেরা করে।

যা করবেন :
বাচ্চাদের সাথে কিছু শব্দ শি ,পি, হাগু শব্দ গুলোর ব্যবহার বেশী বেশী করবেন।
ডায়পার চেক করবেন। ভিজলেই যেন শিশুটি আপনাকে জানায় /দেখায়।
অভিভাবক হিসেবে বাচ্চার নড়াচড়া দেখলেই যেন আপনি বুঝতে পারেন ওর পটির প্রয়োজন।
নিজে বসে দেখাতে পারেন।

শিশুদের খাদ্যাভ্যাস ও ওসিডির লক্ষণ বৃদ্ধিতে ভুমিকা রাখে। চকলেট,কোক,ফাস্ট ফুড,মিষ্টি জাতীয় খাবার, ক্যান ফুড। সবই নিউরোট্রান্সমিটারের হ্রাসবৃদ্ধি ঘটায় ।ওসিডি বা শুচীবায়ু রোগ যেকোন বয়সে দেখা দিতে পারে। সচেতন থাকলেই তা নিয়ন্ত্রণ যোগ্য। এই বয়সে যেহেতু ওষুধ দেয়া যায় না তাই শিশুপ্রতিপালনে অভিভাবকের ভুমিকা সচেতনতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

 

আপনার মতামত দিন:


মন জানে এর জনপ্রিয়