Ameen Qudir

Published:
2017-06-20 06:56:26 BdST

ওসিডি ডায়েরী -৪" যখনই আমি মেঝের দিকে তাকাই, তখনই সেখানে আল্লাহ শব্দটি ভেসে ওঠে "


 

 


 
ডা. সুলতানা আলগিন
____________________________

ভদ্রমহিলার বয়স ৫০ এ কাছাকাছি হবে। ছেলেমেয়ে বড় হয়ে গেছে । এখন সবাই যে যার মত ব্যস্ত । একাকীত্ব পেয়ে বসেছে । অনেক রাতে ঘুম হয় । সকালে স্বামী বেচারা নিজে নাস্তা করে অন্যদের জন্য নাস্তা বানিয়ে টেবিলে ঢেকে রেখে চলে যায়।

ভদ্রমহিলা
জানালেন ,
সকালে উঠে একা একা নাস্তা করি । অনেকদিন ধরে এভাবেই চলছে। কিন্তু আমার সমস্যা শুরু হয়েছে আপা অনেক বছর ধরে। ইদানিং সেটা সামাল দিতে পারছি না।


জিজ্ঞাসা করলাম আপনার সমস্যাটা কি ?
সমস্যা হলো যখনই আমি মেঝের দিকে তাকাই তখনই মেঝের দাগগুলোর মধ্যে আল্লাহ শব্দটি ভেসে ওঠে। আমি মাটির দিকে তাকাতে পারি না দেয়ালে রং উঠে গেলে যে আঁকিবুকি তৈরী হয় তার মধ্যেও আল্লাহ শব্দটি ভেসে ওঠে।

বুয়া যখন চাল বাছে তখনও একই ঘটনা ঘটে।। ভাত যখন খাই মনে হয় আল্লাহকে খেয়ে ফেলছি ।কি যে অসহ্য যন্ত্রণা । মনে হয় মরে যাই।এত বছরের সংসারে আমি কখনও নিজের হাতে মাছ কাটি নাই। মনেহয় এর মধ্যে পিশাচ আছে । আমি প্রতিদিন এই পিশাচ খেয়ে যাচ্ছি । সারাক্ষণ ভিতরের রুমে বসে মনে হয় সামনের দরজাটা আটকানো আছে কিনা । জানি বুয়া লাগিয়ে দিয়েছে তারপরও সন্দেহ মাথা থেকে সরাতে পারি না। নড়তেচড়তে ইচ্ছে হয় না। আমি এখন মাটির দিকে দেয়ালের দিকে তাকাতে পারি না। আকাশের দিকে তাকিয়ে থাকি। এভাবে কতক্ষণ থাকা যায় ?
পরিবারের সবাই এর আগে আমার চিকিৎসার জন্য ডাক্তারের কাছে নিয়ে গিয়েছিল । উন্নতি এত ধীরে ধীরে হচ্ছিল যে আমি বিরক্ত হয়ে ওষুধ খাই নাই। কিন্তু এখনতো আর পারছি না।


এধরণের ওসিডি বা শুচীবায়ু রোগের চিকিৎসা সময়সাপেক্ষ । ওষুধ খেতে হবে অনেকদিন। ডায়াবেটিস হাইপারটেনশন এর মত রোগের ওষুধ মানুষ আমরণ খায় সুস্থ থাকার জন্য। সেসময়তো কেউ কোন অভিযোগ করে না। তাহলে এই রোগের ক্ষেত্রে ওষুধ খেতে আপনার সমস্যা কোথায় ? আর ওষুধ খেয়ে যদি ভাল থাকেন সেটা চাইবেনা নাকি এভাবে দিনে দিনে নিজের মানসিক,সামাজিক কষ্ট জটিলতা বাড়াবেন । ওসিডি বা শুচীবায়ু রোগীদের কষ্ট কিন্তু তার নিজের । মনের মধ্যে আসা চিন্তা অর্থহীন বোঝা সত্বেও নিজেকে কন্ট্রোল করতে পারে না। কাউকে বলতে গেলে সবাই হাসাহাসি করে । তাই সিদ্ধান্ত আপনার । আধুনিক সুচিকিৎসায় সুস্থ হওয়া সম্ভব । যত দ্রুত চিকিৎসা নিবেন তত দ্রুত ভাল হওয়ার সম্ভবনা থাকে।


____________________________
_____________________________
___________________________

 

 


প্রিয় সুজন ,
আপনি কি অবসেসিভ কমপালসিভ ডিজঅর্ডার (ওসিডি) বা শুচিবাই রোগে
ভুগছেন ?

 

একটু সময় দিতেই হবে আপনাকে আপনার ও সকলের স্বার্থে। প্রশ্নগুলো পড়ুন অনুগ্রহ করে।

 

১।আপনি কি অতিরিক্ত ধোয়া-মোছা করেন অথবা পরিস্কার পরিচ্ছন্ন থাকেন?
২।আপনি কি কোন কিছু অতিরিক্ত চেক/ যাচাই-বাছাই করেন?
৩। আপনার মাথায় কি কোন অপ্রীতিকর/ অনাকাঙ্খিত চিন্তা আসে ? যা কিনা আপনি চাইলেও মাথা থেকে সহজে বের করতে পারেন না ?
৪।আপনার কি দৈনন্দিন কাজ শেষ করতে অতিরিক্ত সময় ব্যয় হয়?
৫। আপনার মধ্যে কি আসবাবপত্র, বই খাতা, কাপড়-চোপড় অথবা যে কোন জিনিস নির্দিষ্ট ছকে গুছিয়ে রাখার প্রবণতা আছে ?

 

 

উপরোক্ত প্রশ্নগুলোর যে কোন একটির উত্তরও যদি হ্যাঁ বোধক হয় তবে মানসিকরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন ।ভুক্তভোগীদের ওসিডি ক্লিনিক, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকায় প্রতি মঙ্গলবার , সকাল ১০টা থেকে ১টায় অাসার অনুরোধ রইল।
এ জন্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকার আউটডোরের মাত্র ৩০ টাকার টিকেট নিতে হবে।

 

লেখার সৌজন্য

ওসিডি ক্লিনিক । বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা। প্রতি মঙ্গলবার ।
____________________________

 

ডা. সুলতানা আলগিন । সহযোগী অধ্যাপক , মনোরোগবিদ্যা বিভাগ। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা।

আপনার মতামত দিন:


মন জানে এর জনপ্রিয়