Ameen Qudir

Published:
2019-09-29 13:07:44 BdST

নবীজির পথে কাঁটা দিতো যে দুষ্ট বুড়ি, তার বাড়ি এখন যেমন দেখে এলাম


মেজর ডা.খোশরোজ সামাদ,
ক্লাসিফাইড স্পেশালিষ্ট ইন ফার্মাকোলজি,
আর্মি মেডিকেল কোর
___________________________
সেই দুষ্ট বুড়ির গল্প
------------------
১।হজরত মুহাম্মদ (সা.) নিজ বাসভূম মক্কায় নির্যাতিত হয়ে তায়েফ নগরীতে আসেন।অতিথিকে সন্মান করা পৃথিবীর সব সংস্কৃতি, সকল ধর্মেও থাকলেও তায়েফবাসী তাঁর প্রতি বিপরীত আচরণ করে।

 

২।আমরা সেই শৈশবে পড়েছিলাম, মোহাম্মদ (সা.)যখন মসজিদে যেতেন তখন এক দুষ্ট বুড়ি তাঁর যাওয়ার পথে কাঁটা বিছিয়ে রাখতো। একদিন তিনি দেখলেন পথে কোন কাঁটা নেই। তিনি বৃদ্ধার বাড়ি গেলেন। রাসুল দেখলেন বুড়ি অসুস্থ। তাঁকে দেখে বুড়ি ভীত হল।কিন্তু, মোহাম্মদ (সা.)তাঁকে ক্ষমা করে দেন।শুধু তাইই নয়, তায়েফবাসীর অত্যাচারে তিনি মক্কায় ফিরে আসতে বাধ্য হলে তায়েফবাসীদের শুধু মাফই করেন নি, তাদের জন্য বিশেষ দোয়া করেন। মরুভূমির দেশে তায়েফ নগরী রুপসুধায় যেন মরুদ্যান।বলা হয় মোহাম্মদ (সা.)এর বিশেষ দোয়ার কারণে তায়েফ নগরী বিশুস্ক জনপদ থেকে ফুলেফলে শোভিত হয়েছে।

সম্প্রতি দায়িত্ব পালনে সৌদি আরবে গেলে ছুটির ফাঁদে তায়েফ নগরী দেখবার অবকাশে দুষ্ট বুড়ির বাড়ি,সংরক্ষিত সেই কাঁটাগুলি, বিশেষভাবে রক্ষিত সেই ইতিহাস বিজড়িত -তালা দিয়ে সংরক্ষিত মসজিদটি দেখবার ও ক্যামেরা বন্দী হবার সৌভাগ্য অর্জন করি। প্রায় লোককথার মত প্রচলিত এই ' বুড়ির গল্প' কোন গ্রহণযোগ্য দলিল দ্বারা এখনও প্রমাণিত নয়।
ধর্মীয় ভাবাবেগ ছাড়াও এই কাহিনীর অন্তর্নিহিত মাহাত্ম্য শ্বাশত, সার্বজনীন।

আপনার মতামত দিন:


ভ্রমণ এর জনপ্রিয়