Ameen Qudir

Published:
2019-10-30 17:55:50 BdST

যেভাবে নাসায় নিয়োগ পেয়েছেন বাংলাদেশের মাহজাবিন



ডেস্ক
_______________________
বাংলাদেশের সিলেটের মেয়ে মাহজাবিন হক। যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা প্রতিষ্ঠান নাসায় সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন তিনি। প্রথম বাংলাদেশি নারী হিসেবে নাসায় কাজ করবেন তিনি। এ খবর সবারই জানা। কিন্তু তার এই সম্মানজনক চাকুরি পাওয়ার নেপথ্যের শক্তি কি!

মাহজাবিন জানিয়েছেন, অদম্য ইচ্ছাশক্তি। মাত্র বছর দশেক আগে তিনি যান আমেরিকায়। তারপর বসে থাকেন নি। প্রতিটি দিন কাজে লাগিয়েছেন। প্রস্তুত করেছেন নিজেকে। ভাল ইংরাজি জানা ছিল না। কিন্তু সেসব জয় করেন। ইংরাজি লেখা ও বলা ও উচ্চারণ আন্তর্জাতিক মানের করেন। এ জন্য পরিশ্রম করতে হয়েছে তাকে । পাশাপাশি পেশাগত দক্ষতা অর্জন তো আছেই।

মাহজাবিন হকের বাবা সৈয়দ এনামুল হক পূবালী ব্যাংক লিমিটেডের সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার। তাদের গ্রামের বাড়ি গোলাপগঞ্জ উপজেলার কদমরসুল গ্রামে। মাহজাবিন হক এ বছরই মিশিগান রাজ্যের ওয়েন স্টেইট ইউনিভার্সিটি থেকে কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে উচ্চতর ডিগ্রি সম্পন্ন করেছেন।
পেইন্টিং ও ডিজাইনে পারদর্শী মাহজাবিন হক ২০০৯ সালে বাবা-মা’র সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে যান। কর্মসূত্রে তার বাবা সৈয়দ এনামুল হক বর্তমানে সিলেটে অবস্থান করলেও তার সঙ্গে আছেন মা ফেরদৌসী চৌধুরী ও একমাত্র ভাই সৈয়দ সামিউল হক। নাসা অ্যামাজনসহ বিশ্বের অনেক খ্যাতনামা কোম্পানি থেকে তিনি চাকরির অফার পেয়েছেন। এর মধ্যে নাসাকেই বেছে নেন তিনি।

উল্লেখ্য, ওয়েইন স্টেট ইউনিভার্সিটিতে অধ্যয়নরত অবস্থায়ই মাহজাবীন হক দুই দফায় টেক্সাসের হিউস্টনে অবস্থিত নাসার জনসন স্পেস সেন্টারে ইন্টার্নশিপ করেন। প্রথমদিকে তিনি ডাটা অ্যানালিস্ট এবং পরে সফটওয়্যার ডেভেলপার হিসেবে মিশন কন্ট্রোলে কাজ করেন।

আপনার মতামত দিন:


প্রিয় মুখ এর জনপ্রিয়