Ameen Qudir

Published:
2019-04-26 10:17:17 BdST

ডিসি হিসেবে ৯ জেলা সামলাচ্ছেন দক্ষ মেধাবী উজ্জ্বল মুখ নারী



ডেস্ক
___________________

৬৪ জেলার মধ্যে ৯ জেলা সামলাচ্ছেন ৯জন দক্ষ মেধাবী উজ্জ্বল মুখ নারী। ডেপুটি কমিশনার হিসেবে ৯ নারীর এই কর্ম কুশলতা বাংলাদেশের ইতিহাসে রেকর্ড। নারীর ক্ষমতায়ন ও যোগ্যতারও অনন্য স্বীকৃতি।

প্রশাসনের মাঠ পর্যায়ের গুরুত্বপূর্ণ পদ হচ্ছে ডেপুটি কমিশনার (ডিসি)। বাংলাদেশে এই পদকে সাধারণভাবে জেলা প্রশাসক বলা হয়। সরকারের উপসচিব পদমর্যাদার কর্মকর্তাদের জেলা প্রশাসক নিয়োগ দেয়া হয়।

বর্তমানে ৯ জেলায় নারী ডিসিরা দায়িত্ব পালন করছেন। তারা হলেন- সিরাজগঞ্জের ডিসি কামরুন নাহার সিদ্দীকা, নড়াইলের আনজুমান আরা, নরসিংদীর সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন, মুন্সিগঞ্জের সায়লা ফারজানা, ফরিদপুরের উম্মে সালমা তানজিয়া, পঞ্চগড়ের সাবিনা ইয়াসমিন, নীলফামারীর নাজিয়া শিরিন, কুড়িগ্রামের মোছা. সুলতানা পারভীন এবং শেরপুরের ডিসি আনার কলি মাহবুব।

 

কুড়িগ্রামের ডিসি মোছা. সুলতানা পারভীন মিডিয়াকে বলেন, ‘আমি মনে করি কাজের ক্ষেত্রে নারীরা পুরুষের তুলনায় বেশি সিনসিয়ার। কারণ নারীদের চক্ষু লজ্জাটা কম্পারিটিভলি বেশি। কেউ যেন নারী কর্মকর্তাদের খাটো করতে না পারে, বলতে না পারে ছেলে হলে পারত মেয়ে দেখে পারে না, সেটা মাথায় রেখে সবসময় কাজ করার চেষ্টা করি।
ভালো কাজ করলে মানুষের সমর্থন পাওয়া যায়। কাজের ক্ষেত্রে আমি তেমন প্রতিবন্ধকতা পাইনি বা বাধাপ্রাপ্ত হইনি। মানুষের কাছ থেকে হেল্পফুল অ্যাটিচিউডই পেয়েছি।
আমি সবসময় গতানুগতিক চিন্তার বাইরে গিয়ে মানুষের জন্য কিছু করার চেষ্টা করছি। মানুষের সহযোগিতায় কাজগুলো সফলভাবে করতে পারছি। আমি এক বছর ধরে ডিসির দায়িত্ব পালন করছি।
নড়াইলের ডিসি আনজুমান আরা মিডিয়াকে বলেন, ‘আমরা নারী বা পুরুষ হিসেবে নয়; একজন কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করছি। আমরা প্রজাতন্ত্রের বিসিএস প্রশাসন কর্মকর্তা হিসেবেই নিজ যোগ্যতা অনুযায়ী দায়িত্ব পালন করছি। যে দায়িত্বই পাব, নিজ কর্মক্ষমতা অনুযায়ী সর্বাত্মক প্রয়াসে কাজ করব। কাজের ক্ষেত্রে তেমন কোনো প্রতিবন্ধকতা আমি দেখি না। আমরা রাত ১২ পর্যন্তও কাজ করি। সমাজও আমাদের সহযোগিতা করে, আমরাও নিজেরা সাচ্ছন্দ বোধ করি । এখন আমাদের সমাজ অনেকটাই পাল্টে গেছে । আগের সেই সব কূপমন্ডুকতা নেই।

আপনার মতামত দিন:


প্রিয় মুখ এর জনপ্রিয়