Ameen Qudir

Published:
2017-12-06 08:56:46 BdST

কোটি টাকা পণের দাবি! বিয়ে ভাঙলেন ডাক্তার পাত্রীই


 

ইনটার নেট
________________________

বিয়ের দিনই পাত্রপক্ষের কোটি টাকা পণের দাবি খারিজ করে বিয়ে ভেঙে দিলেন পাত্রী নিজেই। পাত্রী ডেন্টিস্ট, কোটার মেডিকেল কলেজের সিনিয়র প্রফেসর ডাঃ অনিল সাক্সেনার মেয়ে। পাত্র উত্তরপ্রদেশের মোরাদাবাদের মেডিকেল কলেজের অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর ডাঃ সাক্ষম মাধোক।


ডাঃ সাক্সেনা জানান, শনিবার বাগদানের দিন পাত্রকে গাড়ি, ৫টি ১০ গ্রাম ওজনের সোনার কয়েন দেওয়া হয়। কিন্তু পরদিন বিয়ের আসরে ঢোকার আগে পাত্রপক্ষ আরও যৌতুক, নগদ ও অলঙ্কার মিলিয়ে মোট ১ কোটি টাকার সামগ্রী চেয়ে বসে। গাড়ি বাদেই প্রায় ৩০-৩৫ লক্ষ টাকা পণ, বিয়ের অনুষ্ঠান, প্রীতিভোজের পিছনে খরচ হয়ে গিয়েছে পাত্রীপক্ষের। আচমকা নতুন দাবিতে মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ে তাঁদের মাথার ওপর।

 

ডাঃ সাক্সেনা ও তাঁর স্ত্রী মেয়ে রাশির সঙ্গে কথা বলেন। পাত্রী সরাসরি পাত্রের সঙ্গে ফোনে কথা বলেন। ডাঃ সাক্সেনা বলেন, পাত্র অনড়, দাবি মেটাতেই হবে। এরপর মেয়েই বিয়েতে বেঁকে বসে। সেই সিদ্ধান্ত পাত্রপক্ষকে জানিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি তাদের নতুন পণের দাবির ব্যাপারে পাত্র, তাঁর বোন, বোনের জামাই ও পাত্রের বাবা, মায়ের বিরুদ্ধে নয়াপুর থানায় অভিযোগও দায়ের করে পাত্রীর পরিবার। অবশ্য প্রীতিভোজ সম্পন্ন হওয়ার পরই আমন্ত্রিত অতিথি, অভ্যাগতদের পুরো বিষয়টি জানানো হয়।
পাত্রীকে তাঁরা বাহবা দেন এমন বিয়েতে রাজি না হওয়ায়, তাঁর এই পদক্ষেপ আরও মেয়েদের পণপ্রথার বিরুদ্ধে লড়তে উদ্ধুদ্ধ করবে বলেও জানান। পাত্রী বলেছেন, আমার বাবা-মা ধুমধাম করে বিয়ের আয়োজন করেছিলেন, তাঁদের সাধ্যের মধ্যে সম্ভব সব সামগ্রী দিয়েওছিলেন, কিন্তু পাত্র ও তাঁর পরিবারের সীমাহীন লোভ দেখে আমিই বিয়ে বাতিলের সিদ্ধান্ত নিই।

পাত্রীর এই পদক্ষেপ কী চোখে দেখছেন? আপনার মতামত লিখুন নীচের কমেন্টস বক্সে

 

আপনার মতামত দিন:


প্রিয় মুখ এর জনপ্রিয়