ডেস্ক

Published:
2021-06-10 23:26:14 BdST

শুক্রবার সবিশেষ কি ভয়ঙ্কর মদ্য পান


অধ্যাপক ডা শুভাগত চৌধুরী
বাংলাদেশের স্বাস্থ্যাচার্য
_________________________


কি ভয়ঙ্কর মদ্য পান

১। মদের গ্লাসে চুমুক দেবার পরপর তা মগজে ফেলে প্রভাব। মগজ যে সংকেত পাঠায় আর এর সাথে যে রাসায়নিক আর পথ রেখা সে গুলো মন্থর হয়ে যায় ।
মেজাজ দেয় বদলে , ধীর করে রিফ্লেক্স, ভারসাম্য হয় ট লায়মান।
সোজাসুজি চিন্তা করা যায়না আর দীর্ঘ মেয়াদি স্মৃতি সংরক্ষণে হয় সমস্যা।
২। মগজ সংকুচিত হয়।
দীর্ঘ সময় যদি অতিরিক্ত মদ পান করা হয় তাহলে মগজ হয় সঙ্কুচিত। তাই শেখা, ভাবা আর কোন জিনিষ মনে রাখতে সমস্যা হয়। দেহ তাপ স্থির রাখা , ব্যলেন্স রাখা সম্ভব হয়না।
৩। ঘুমের উপর প্রভাব।
মদ পানে নিদ্রালু মনে হলেও ঘুম ভাল হয়না। এপাশ অপাশ , দুঃস্বপ্ন দেখা চলে, বার বার ঘুম থেকে উঠতে য়ে জল বিয়োগের জন্য।
৪। বাড়ে পাকস্থলির অম্ল।
উত্তেজিত করে পাকস্থলির আস্তরন আর পাচক রসের ক্ষরণ বাড়ায় । যথেষ্ট অম্ল আর খার হলে শরীর খারাপ লাগে । বেশি দিন মদ্য পান চললে হর আলসার। আর বেশি পাচক রস ক্ষরণ হলে ক্ষুধা লাগে না।
৫। ডায়রিয়া আর বুক জ্বলা ।
ক্ষুদ্রান্ত্র আর মলান্ত্র উত্তেজিত হয়। এর মধ্যে খাদ্যের চলনে হয় বিঘ্ন । হার্ড ড্রিংকিং থেকে ডায়রিয়া , হ্য বুক জ্বলা ।
৬। বার বার প্রস্রাব।
মগজ ক্ষরণ করে হরমোন া কিডনিকে খুব বেশি প্রস্রাব করতে দেয়না।
কিন্তু এলকোহল পান করলে মগজে যায় নিবারন সঙ্কেত। বার বার প্রস্রাব করতে হবে আর শরীরে হয় পানি শুন্যতা । দীর্ঘ দিন মদ পানে কিডনি অনেক অসুস্থ হতে পারে।
৭। যকৃতের রোগ ।
মদ পানে প্রবল প্রভাব পড়ে লিভারের উপর। হয়ে যায় মেদল , আর তন্তুতে ভরপুর। কমে যায় রক্ত চলাচল আর লিভারের বেচে থাকা হয় কঠিন । ক্রমে হয় লিভারের সিরোসিস।
৮। অগ্ন্যাশয় আর ডায়াবেটিস ।
অগ্ন্যাশয় যেমন হরমোন ইন্সুলিন ক্ষরণ করে তেমনি পাচক রস ও ক্ষরণ ্করে। এলকোহল এসব প্রক্রিয়া গোলমেলে করে দেয়। হয় প্রদাহ। পরে অগ্ন্যাশয়ে ক্ষতি ইন্সুলিন ক্ষরণে আর পাচক রসে।
৯। হ্যাং ওভার ।
জল ভরা ফুলো চোখ , ঢুলু ঢু লু।পানি শুন্যতা হয়, আর মগজ আর রক্তনালি প্রসারিত হয়। মাথা ধরে। বমি বমি ভাব ,।
১০। হার্টের অফবিট ।
রাতে আকণ্ঠ মদ্য পানে , বিদ্যুত সংকেত এলোমেলো হয়, হৃদ ছন্দ হয় অনিয়ম। হার্টের ক্ষতি হয় ।
১১। দেহ তাপে পরিবর্তন ।
রক্ত নালি আর রক্ত্র চলাচল ত্বকে প্রবাহ বাড়ে । তাহলে শরির হয় লাল, হয়
কিছু উষ্ণ । দীর্ঘ কাল আকণ্ঠ মদ পানে বাড়ে রক্তচাপ। ক্ষরণ হয় স্ট্রেস হরমোন ।
১২। ইম্মুন সিস্টেম ।
কমে যায় দে হের রোগ প্রতিরোধ খমতা।
১৩। হরমোন ব্যা লেন্স
টাল টা মাল করে দিতে পারে হরমোনের ভারসাম্য।
১৪। শ্রুতি।
কমিয়ে দেয় শ্রুতি ক্ষমতা ।
১৫। হাড় , পেশি।
ক্যালসিয়াম ব্যালেন্স হয় নড় বড়ে । হাড়ের ফোপরা হয়া বাড়ে । আর পেশি হয় দুর্বল ।

আপনার মতামত দিন:


ক্লিনিক-হাসপাতাল এর জনপ্রিয়