Dr. Aminul Islam

Published:
2020-06-03 08:43:46 BdST

এসি, লিফট নেই: বাহুল্য খরচ বাঁচিয়ে ৩৫০ টাকায় ডায়ালিসিস করান কলকাতার ডা. ফুয়াদ


ডেস্ক
_________________

এই ডাক্তারবাবুর নামটা আগে শোনেননি হয়তো। নামের পেছনে এনার না আছে বিদেশি ডিগ্রী না নেন আকাশছোঁয়া ফিজ ! আরেকটি পরিচয় অবশ্য আছে, প্রথমবার ডায়মন্ড হারবার কেন্দ্রে ভোটে দাঁড়িয়ে ডাহা ফেল করেছেন! কিন্তু মানবতার লড়াইয়ে পরাজিত করেছেন অনেক বাঘা বাঘা হোমরা চোমরাদের।

আকাশছোঁয়া ওষুধ আর টেস্টের দামের দরুণ এখন বেহাল অবস্থা আম আদমির। আগের থেকে বেড়েছে হাসপাতালের চার্জ, খরচ বেড়েছে যাতায়াতের। তার মধ্যেই তাক লাগাল কলকাতার এক হাসপাতাল। মাত্র ৫০ টাকায় কিডনির রোগে ভোগা পেশেন্টদের ডায়ালিসিস করে দিচ্ছে তারা।

মধ্য কলকাতার ধর্মতলার এই হাসপাতালে প্রথমে ৩৫০ টাকা চার্জ নেওয়া হত ডায়ালিসিস করতে। সেটাও অন্য হাসপাতালে যা টাকা নেয়, তার প্রায় এক তৃতীয়াংশ। কিন্তু তারপরে কর্তৃপক্ষ বুঝতে পারেন যে লকডাউনের বাজারে হাসপাতালে আসতেই পেশেন্ট পার্টির অনেক খরচা হচ্ছে। তাই ডায়ালিসিসের দাম কমিয়ে এখন করা হয়েছে মাত্র পঞ্চাশ টাকা !

হাসপাতাল টি চালান ডাক্তার ফুয়াদ হালিম।
বিধানসভার প্রাক্তন স্পিকার হাসিম আবদুল হালিমের ছেলে। সস্তায় পরিষেবা দিতে পারার রহস্য টা কি ?
ডাক্তার বাবুর ভাষায়, কম খরচা যাতে হয়, তারজন্য যাবতীয় বাহুল্য যেগুলি অন্য নার্সিং হোমে থাকে, সেগুলি এখানে নেই। কোনও এসি নেই, লিফট নেই। এমনকী রিসেপশন ও ওয়েটিং এরিয়াও নেই রোগীর পরিবারের বসার জন্য। তিনজন চিকিত্সক আছেন, তার মধ্যে স্টাইপেন্ড নেন একজনই। ফুুয়াদ ও আরেকজন বিনাপয়সায় চিকিত্সা করেন। এই ভাবেই ৩৫০ টাকায় ডায়ালিসিস করান তাঁরা।

মহম্মদ ইশাক রোডে ফুয়াদ হালিমের বাড়ির লাগোয়াই এই পাঁচ শয্যার হাসপাতাল। আছে নটি ডায়ালিসিস মেশিন। ডাক্তার বাবুর কথায় লকডাউনের দুই মাসে যারা হাসপাতালে আসেন, সেই রোগীদের আর্থ সামাজিক বিন্যাসেও কিছুটা পরিবর্তন তিনি দেখেছেন। আগে শুধুই গরীব মানুষ আসতেন, কিন্তু ধীরে ধীরে নিম্ন মধ্যবিত্তরাও আসছেন হাসপাতালে। মার্চ ২৬ থেকে মে ২৮-এর মধ্যে ১৫৭১টি ডায়ালিসিস হয়েছে এই হাসপাতালে। এর জন্য মাত্র ৫০ টাকা করে নেওয়া হয়েছে।

ডায়ালিসিস হতে প্রায় চার ঘণ্টা লাগে। সেই সময় আশেপাশে অপেক্ষা করেন রোগীর বাড়ির লোকজন। বেসরকারি নার্সিংহোমে এই খরচ প্রায় ১২০০-১৫০০ টাকা। আর লকডাউনের সময় তা বেড়ে দুই হাজারের ওপর হয়ে গিয়েছে। আর হ্যাঁ, এখানে রোগীকে রোগী হিসাবেই দেখা হয়, দেখা হয়না তার রাজনৈতিক পরিচয় !

আদাব ডাক্তার বাবু, আপনার মতো আরো কয়েকজনকে যদি পাওয়া যেত এইসময়ে....বাংলা ও বাঙালির যে আজ বড়ই দুর্দিন!‌
লেখা সঙ্কলন: স্বপন সেন

___________________________

AD...

আপনার মতামত দিন:


ক্লিনিক-হাসপাতাল এর জনপ্রিয়