Ameen Qudir

Published:
2019-07-07 12:35:47 BdST

চেহারা সুরত দেখে সবাই জানত ওরা বিশাল ডাক্তার






ডেস্ক / সংবাদদাতা
________________________

চেহারা সুরত দেখে সবাই জানত ওরা বিশাল ডাক্তার। এমন কোন রোগ নেই , যার
চিকিৎসা তারা জানে না। সুবেশী, সুদর্শন। একজন আবার পরহেজগার। সব মিলিয়ে তিনজন ছিল সকলের চোখের মনি। কিন্তু বিধি বাম। পড়বি তো পড়। যমের হাতেই যেন পড়ল। নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে জেনারেল হাসপাতাল অ্যান্ড ল্যাব এ তারা ডাক্তারী করত। তাদের সুযোগ করে দেয় প্রতিষ্ঠানটির গুনধর মালিক। সম্প্রতি এই দুই ভুয়া ডাক্তার ও প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালককে আটক করেছে র‌্যাব। ১ জুলাই সোমবার রাত দশটায় র‌্যাব সেখানে অভিযান চালিয়ে এই তিন প্রতারককে আটক করে।

আটককৃতরা হলেন কথিত প্রতারক ডাক্তার সোলায়মান, উৎপল এবং হাসপাতালটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আরিফুজ্জামান লিটন।

র‌্যাব জানায়, আটককৃত সোলায়মান ও উৎপল দুজনই মেডিক্যাল অ্যাসিসটেন্ট। তবে হাসপাতালটির মালিকপক্ষের যোগসাজসে নিজেদের এমবিবিএস ডাক্তার পরিচয় দিয়ে দীর্ঘদিন যাবত সেখানকার রোগিদের চিকিৎসা প্রদান সহ ব্যবস্থাপত্র দিয়ে আসছিলেন। পরীক্ষা নিরীক্ষার নামে রোগিদের সাথে নানাভাবে প্রতারণাও করে আসছেন তারা। এছাড়া হাসপাতালটির অনুমোদন তিন বছর আগে মেয়াদোত্তীর্ণ হয়ে গেলেও তা নবায়ন না করায় বর্তমানে এটি একটি অবৈধ প্রতিষ্ঠান হিসেবে বিবেচিত হয়েছে। ল্যাব স্থাপনের জন্য পরমানু শক্তি কমিশনের কোন ছাড়পত্রও এই প্রতিষ্ঠানটির নামে নেই।

স্থানীয়দের কাছ থেকে এসব অভিযোগ পেয়ে র‌্যাব সোমবার রাতে সেখানে অভিযান চালায় এবং কাগজপত্র পর্যবেক্ষণ করে অভিযোগের সত্যতা পায়। এ সময় রোগিদের ব্যবস্থাপত্র দেয়া অবস্থায় দুই ভুয়া ডাক্তার সহ হাসপাতালের মালিককে হাতেনাতে আটক করা হয়। ডাক্তার দাবিদার দুজনের একজনও এমবিবিএস সনদ দেখাতে পারেন নি। পরে জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃতরা নিজেদের ভুয়া ডাক্তার এবং প্রতারণার বিষয়টি স্বীকার করে।

আটককৃতদের বিরুদ্ধে সোনারগাঁ থানায় সংশ্লিষ্ট আইনে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

আপনার মতামত দিন:


ক্লিনিক-হাসপাতাল এর জনপ্রিয়