Dr. Aminul Islam

Published:
2020-12-12 20:39:42 BdST

বড়লেখা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বসেই ডাক্তারদের বিরুদ্ধে ফেইসবুক লাইভে মিথ্যা ভিডিও প্রচার



বড়লেখা থেকে সংবাদ দাতা : বড়লেখা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মধ্যরাতে ফেইসবুক লাইভে মিথ্যা ও বানোয়াট ভিডিও প্রচার হচ্ছিল ডাক্তার ও নার্সদের বিরুদ্ধে। বানিয়ে বানিয়ে মিথ্যা গল্প কাহিনি ছড়িয়ে উত্তেজনা ও সেনসেশন সৃষ্টির পায়তারা করছিল একদল লোক। পরে জানাজানি হয়ে যায়।
মিথ্যা ভিডিওর প্রতিবাদে শনিবার সকালে হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স ও কর্মচারীরা আন্দোলনের ডাক দেন।

 

উপজেলা চেয়ারম্যান ও ইউএনও ছুটে আসেন। তারা গুজব রটনাকারীর বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিলে সংশ্লিষ্টরা তা স্থগিত করেন। পরে হাসপাতাল সভাকক্ষে প্রশাসন ও জনপ্রতনিধির সাথে চিকিৎসক, নার্স ও কর্মচারীদের সভা হয়।

হাসপাতাল সুত্রে জানা গেছে, জনৈক ব্যাক্তি বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে একজন নারী রোগীকে নিয়ে যান। কর্তব্যরত চিকিৎসক ও নার্সরা তাৎক্ষণিক ওই রোগীর প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেন । এরপরও ওই লোক ফেইসবুক লাইভে চিকিৎসক ও নার্সদের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও বানোয়াট গল্প ছড়িয়ে দেয়। পরবর্তীতে তা বিভিন্ন পোর্টালে ভাইরাল হয়। মিথ্যা অভিযোগের ভিডিও ভাইরালে দেশে-বিদেশে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ, চিকিৎসক, নার্সসহ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের তথা স্বাস্থ্য বিভাগের বিরুদ্ধে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। হাসপাতাল, চিকিৎসক ও নার্সদের সুনাম ক্ষুন্ন করার প্রতিবাদে সংশ্লিষ্টরা কর্মবিরতিসহ নানা কর্মসুচির ডাক দেন।

শনিবার দুপুরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসক-নার্সদের সাথে অনুষ্ঠিত সভায় উপজেলা চেয়ারম্যান ও ইউএনও আগামী ২ দিনের মধ্যে ঘটনাকারীর বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিলে আন্দোলন-কর্মসুচি স্থগিত করা হয়। এসময় থানার ওসি , উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. রত্নদীপ বিশ্বাস, আরএমও ডা. শারমিন আক্তার, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. উবায়েদ উল্লাহ খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. রত্নদীপ বিশ্বাস জানান, জনৈক ব্যাক্তি ফেইসবুক লাইভে মিথ্যা ও ভিত্তিহীন অভিযোগ তুলা ভিডিও ভাইরাল করেন। এতে হাসপাতাল ও চিকিৎসক-নার্সদের মারাত্মক সম্মানহানী হয়েছে। এ ঘটনায় হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স ও কর্মচারীরা তাদের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ায় ন্যায় বিচারের দাবীতে তারা আন্দোলনের ডাক দেন। উপজেলা চেয়ারম্যান ও ইউএনও আগামী ২ দিনের মধ্যে ঘটনাকারীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেয়ায় কর্মসুচি স্থগিত করা হয়।

আপনার মতামত দিন:


ক্যাম্পাস এর জনপ্রিয়