Ameen Qudir

Published:
2019-05-29 10:21:38 BdST

নিরাপত্তাহীনতা মেডিক্যাল কলেজের ছাত্রী হোস্টেলেও : খোদ মেয়েদের রুমে ঢুকে যৌন হয়রানি!



ডা. আমিরুল ইসলাম রাজ


____________________________

ডাক্তারদের কর্মক্ষেত্র নিরাপদ নয়। এবার নিরাপত্তাহীনতা ঢুকেছে মেডিক্যাল কলেজের ছাত্রী হোস্টেলেও ! বিস্ময়কর ঘটনা এখন বাংলাদেশের অন্যতম সেরা মেডিকেল বিদ্যাপীঠ রাজশাহী মেডিকেল কলেজে। কোথাও নিরাপদ নয় ডাক্তার। এইট পাশ অশিক্ষিত অর্ধশিক্ষিতদের বেপরোয়া খবরদারি গুন্ডামি, অভব্য আচরণ , হাসপাতালে ঢুকে মাস্তানি, সঠিক চিকিৎসার পরও ডাক্তারকে জবাবদিহি মারধোর এখন এমন শোচনীয় পর্যায়ে যে, ছিচকে গুন্ডা, পাতি মাস্তান ডাক্তার হেনস্থা করে চলেছে। আশকারা পেয়েছে ডাক্তারদের নিরাপত্তা আইন নেই বলে। রাজশাহী মেডিকেলের ছাত্রী হোস্টেলের ঘটনা একরকম অবিশ্বাস্য । কিন্তু শোচনীয় পরিস্থিতির সাক্ষ্য।


ডা. আবুল হাসনাত মিল্টন এক লেখায় জানান,
ডাক্তারদের কর্মক্ষেত্র পেরিয়ে এবার নিরাপত্তাহীনতা ঢুকেছে রাজশাহী মেডিক্যালের ছাত্রী হোস্টেলে!

আবারও মেডিক্যাল ছাত্রী যৌন হয়রানির শিকার, ময়মনসিংহ মেডিক্যালের পরে এবার রাজশাহী মেডিক্যালে। তাও হোস্টেল গেটে নয়, হোস্টেলের ভেতরে একেবারে মেয়েদের রুমে।

আজকে সেহেরির পরের ঘটনা। যথারীতি মেয়েরা রুমেই ঘুমাচ্ছিল। এর সুযোগ নিয়ে এবং গেটের দারোয়ানদের দায়িত্ব পালনে অবহেলার কারণে বহিরাগত এক পুরুষ পলিন হোস্টেলের দ্বিতীয়তলার এক রুমে ঢুকে পড়ে ঘুমিয়ে থাকা এক মেয়েকে যৌন হয়রানি করার চেষ্টা করে। ঘটনার আকস্মিকতায় রুমের মেয়েরা আতঙ্কে চিৎকার শুরু করলে ওই ব্যাটা রুম থেকে বেরিয়ে বাইরে থেকে ওদেরই রুমের দরজা আটকিয়ে দেয়। ইতোমধ্যে ব্লকের বাকি মেয়েরা চীৎকারের শব্দ শুনে রুম থেকে বেরিয়ে এসে ওই ব্যাটাকে ধরে ফেলে এবং নিচের কলাপসিবল গেট আটকিয়ে দেয়। হোস্টেল সুপার স্যারকে ইনফর্ম করা হলে তিনি তখনি এসে অবস্থা জেনে পুলিশকে জানান। হোস্টেলের দারোয়ানরা এ অবস্থাতেও ওই বহিরাগতকে বাঁচানোর চেষ্টা করে, ‘ছেড়ে দেন মামা’ ধরণের কথাবার্তা বলে। এরই ধারাবাহিকতায় প্রশ্রয় পেয়ে বহিরাগত লোকটাকে পুলিশ ধরে নিয়ে যাওয়ার সময়ও সে মেয়েদের উদ্দেশ্যেইই হুমকি ধামকি মূলক কথাবার্তামূলক কথা বলতে থাকে, ‘তোরা কি বের হবি না,তখন দেখে নিব, রেপ করে ছেড়ে দিব’, এসব ছাড়াও অকথ্য ভাষায় গালাগালি শুরু করে।

এখন স্বভাবতই প্রশ্ন উঠেছে, কর্মস্থলে ডাক্তাররা নিরাপত্তা হারিয়েছে বহু আগেই, এখন হোস্টেলের ভেতরেই বা ছাত্রীরা, আমাদের কন্যারা কতটা নিরাপদ? ঘটনার প্রেক্ষিতে রাজশাহী মেডিক্যালের ছাত্রী হোস্টেলের মেয়েদের প্রশ্ন, ‘এতকিছুর পরও কি আমরা নূন্যতম নিরাপত্তা টুকুও চাইতে পারি না? নাকি মেডিকেল শিক্ষার্থী হওয়াই আমাদের আজন্ম অপরাধ?’

 

ছবিতে আসামী, গ্রেফতারের পর।

আপনার মতামত দিন:


ক্যাম্পাস এর জনপ্রিয়