Dr.Liakat Ali

Published:
2022-11-01 14:16:01 BdST

ক্যান্সার বিষয়ের নামের জটিলতা সমাধান ও আসন বৃদ্ধির আশ্বাস দিলেন বিএসএমএমইউ উপাচার্য ও বিসিপিএস সভাপতি


 


ডেস্ক
_____________
বাংলাদেশের ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ নবীন প্রবীণ সম্মেলন -২০২২ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার সকাল নটায় (২৮ অক্টোবর ২০২২) রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে বাংলাদেশ সোসাইটি অব রেডিয়েশন অনকোলজিষ্টস (বিএসআরও) এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানটি জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে শুরু হয়। ক্যান্সার চিকিৎসায় অসামান্য অবদান রাখার জন্য অনুষ্ঠানে ৬ জন মরণোত্তর ও ৮ জন ক্যান্সার বিশেষজ্ঞকে আজীবন সম্মাননা প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিশিয়ানস ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়সহ ক্যান্সার বিষয়ে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক তৈরির জন্য ছাত্র ভর্তি ও পড়ানো হয় এমন সব প্রতিষ্ঠানে ক্যান্সার বিষয়ের নামকরণের ভিন্নতা থাকায় চিকিৎসক নিয়োগে জটিলতার কথা বলা হয়। ক্যান্সার বিষয়ের নামের জটিলতা সমাধানের জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে সব প্রতিষ্ঠানের ডিগ্রি সমান হিসেবে বলা হয়। বিএসএমএমইউ উপাচার্য ও বিসিপিএসের সভাপতি নামের জটিলতা কাটানোর জন্য উদ্যোগ নেয়া হবে বলে জানানো হয়।

এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সোসাইটি অব রেডিয়েশন অনকোলজিষ্টসের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ডা. জিল্লুর রহমান ভূঁইয়া।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মোঃ শারফুদ্দিন আহমেদ বলেন, দেশে বর্তমানে ক্যান্সার চিকিৎসায় বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক রয়েছে মাত্র ২২৮ জন।জনসংখ্যার তুলনায় অপ্রতুল। বিএসআরও'র মতে ৫ হাজার ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দরকার। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যান্সার বিষয়ের ফ্যাকাল্টি মেম্বার যদি আমাকে সহযোগিতা করেন তবে আমার ক্যাম্পাসেই আগামী সেশনে আসন সংখ্যা ১০ থেকে ১৫ জনে উন্নীত করব। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকল স্বাস্থ্যসেবার মত ক্যান্সার সেবা প্রদানের লক্ষ্যে বিভাগীয় শহরে ক্যান্সার ইন্সটিটিউট করার সিদ্ধান্তের ফলে আমরা আশান্বিত হয়েছি। এখানেও অনেক ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক প্রয়োজন হবে।

তিনি বলেন, করোনাভাইরাস মহামারীর সময় যুক্তরাষ্ট্রের ৩২ কোটি লোকের মধ্যে ১২ লক্ষ মানুষ মারা যায়। সে হিসেবে বাংলাদেশর ৬ লক্ষ মানুষ মারা যাবার কথা।কিন্তু বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কঠোর মনিটরিং, দিক নির্দেশনা এবং সময়োপযোগী সিদ্ধান্তের কারণে বাংলাদেশে মাত্র ৩০ হাজার মানুষ মারা গেছে।
বিএসএমএমইউ উপাচার্য বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের মানুষের প্রয়োজনে প্রতিটি জেলায় আইসিইউ সেবা নিশ্চিত করতে বয়সের বাধা তুলে দিয়ে স্বপ্লতম সময়ে এনেসথিওলজিস্ট নিয়োগ দিয়েছেন।

অধ্যাপক ডা. মোঃ শারফুদ্দিন আহমেদ আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োকেমিস্ট্রি এন্ড মলিকুলার বায়োলজি বিভাগ স্বাস্থ্য পরীক্ষার রিপোর্টি অনলাইনে দেয়া চালু করেছে। বাংলাদেশের প্রতিটি সরকারি হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষার রিপোর্টিং অনলাইনে চালু করা প্রয়োজন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিসিয়ানসের (বিসিপিএস) সভাপতি অধ্যাপক ডা. কাজী দীন মোহাম্মদ বলেন, এক সময় বাংলাদেশের হৃদরোগের রোগীরা বিদেশে যেতো। বিদেশে চিকিৎসা নিতে যাওয়া রোগীদের তালিকায় প্রথম ছিল হৃদরোগে আক্রান্ত ব্যক্তিরা।দেশের হৃদরোগের চিকিৎসায় অনেক উন্নতি হয়েছে
। বর্তমানে বিদেশ যাবার রোগীর তালিকায় হৃদরোগে আক্রান্তের সংখ্যা তৃতীয়। তবে ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত রোগীরা এ তালিকায় প্রথম। তাই এ বিষয়ে চিকিৎসক বাড়ানো সময়ের দাবি।

তিনি বলেন, ক্যান্সারসহ সকল চিকিৎসাই সময় নিয়ে পরিকল্পনা মাফিক করা উচিত।


অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিসিয়ানস ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়সহ ক্যান্সার বিষয়ে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক তৈরির জন্য ছাত্র ভর্তি ও পড়ানো হয় এমন সব প্রতিষ্ঠানে ক্যান্সার বিষয়ের নামকরণের ভিন্নতা থাকায় চিকিৎসক নিয়োগে জটিলতার কথা বলা হয়। ক্যান্সার বিষয়ের নামের জটিলতা সমাধানের জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে সব প্রতিষ্ঠানের ডিগ্রি সমান হিসেবে বলা হয়। বিএসএমএমইউ উপাচার্য ও বিসিপিএসের সভাপতি নামের জটিলতা কাটানোর জন্য উদ্যোগ নেয়া হবে বলে জানানো হয়।

অনুষ্ঠানে সোসাইটির বৈজ্ঞানিক কার্যক্রম ও আন্তর্জাতিক অর্জন সম্পর্কে প্রবন্ধ পাঠ করেন সংগঠনের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ডা. সাদিয়া শারমিন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিএসআরও এর সভাপতি অধ্যাপক ডা. কাজী মুশতাক হোসেন।

অনুষ্ঠানে বিএসআরও'র সহ-সভাপতি অধ্যাপক ডা. এম. নিজামুল হক, অধ্যাপক ডা. নাজির উদ্দিন মোল্লাহ্, সদস্য অধ্যাপক সারোয়ার আলম, অধ্যাপক ডাঃ আব্দুল বারী, প্রকাশনা সম্পাদক সহকারী অধ্যাপক ডা.মামুন উর রশিদ প্রুমখসহ দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা অংশ গ্রহণ করেন।
বিজ্ঞপ্তি বিএসএমএমইউ

আপনার মতামত দিন:


বিএসএমএমইউ এর জনপ্রিয়