ডা শাহাদাত হোসেন

Published:
2022-04-28 11:09:57 BdST

জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী আকবরকে নতুন জীবন দিলেন বিএসএমএমইউ'র চিকিৎসক


 

সংবাদদাতা
____________

জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী আকবরকে নতুন জীবন দিলেন বিএসএমএমইউ'র চিকিৎসক  । এ বিষয়ে

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মোঃ শারফুদ্দিন আহমেদ বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মহানুভবতায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন হজকিন্স লিম্ফোমা রোগে আক্রান্ত শ্রাবণ স্নাল ও জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী আকবর আলী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। তথ্য বিএসএমইউর মিডিয়া সেলের।
বুধবার বেলা সাড়ে ১১ টায় (২৭ এপ্রিল ২০২২ ) বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ ডা. মিল্টন হলে বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহায়তায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন দুই রোগী জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী আকবর আলী গাজী ও হজকিন্স লিম্ফোমা রোগে আক্রান্ত ১২ বছর বয়সী কিশোর শ্রাবণ স্ন্যাল চিকিৎসার অগ্রগতি নিয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। সংবাদ সম্মেলন শেষে শিল্পী আকবর আলী একাধিক গান গেয়ে শোনান।
সাইকেল থেকে পড়ে বাম কোমড়ে আঘাত প্রাপ্ত কণ্ঠশিল্পী আকবর আলী গাজী (৫০) গত ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২ খ্রিষ্টাব্দে আকবর আলী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থোপেডিক সার্জারী বিভাগের গ্রিন-২ ইউনিটে সহযোগী অধ্যাপক ডা. ইন্দ্রজিত কুমার কুন্ডুর অধীনে ভর্তি হন। সহযোগী অধ্যাপক ডা. ইন্দ্রজিত কুমার কুন্ডুর চিকিৎসাসেবায় তিনি এখন পুরোপুরি সুস্থ।
এদিকে গত ২৪ অক্টোবর ২০২১ খ্রিষ্টাব্দে এক বছরের জ্বর ও গলার ডানপাশে লসিকাগ্রন্থি ফোলা নিয়ে ভোগা শ্রাবণ স্নাল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্বদ্যিালয়ে হেমাটোলজি বিভাগে অধ্যাপক ডা. সালাউদ্দিন শাহের অধীনে ভর্তি হন। শ্রাবণ স্নালও বর্তমানে অনেকটাই সুস্থ।
সংবাদ সম্মেলন জনপ্রিয় কণ্ঠ শিল্পী আকবর আলী কাজী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমার মায়ের মত। আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে চিরঋণী। আমি হাঁটতে পারতাম না। প্রধানমন্ত্রীর অনুদান ও নির্দেশে আমি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসা নিতে আসি। এখানে চিকিৎসা নিয়ে আমি আজ সুস্থ, হাটতে পারছি। এজন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মোঃ শারফুদ্দিন আহমেদ ও আমার চিকিৎসাসেবায় নিয়োজিত চিকিৎসকদের প্রতি চির কৃতজ্ঞ। আজ সুস্থ হয়ে বাড়ি যাচ্ছি।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. ছয়েফ উদ্দিন আহমদ, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, সার্জারি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ হোসেন, মেডিসিন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ডা. মাসুদা বেগম, বেসিক সাইন্স অনুষদের ডিন অধ্যাপক ডা. শিরীন তফাদার, শিশু অনুষদের ডিন অধ্যাপক ডা. শাহীন আকতার, নার্সিং ও মেডিক্যাল টেকনোলজি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ডা. দেবব্রত বনিক, রেজিস্ট্রার ডা. স্বপন কুমার তপাদার, হেমাটোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. সালাউদ্দিন শাহ, অর্থোপেডিক সার্জারি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. ইন্দ্রজিত কুমার কুন্ডু, সহকারী প্রক্টর সহযোগী অধ্যাপক ডা. ফারুক হোসেন প্রমুখ।
সংবাদ সম্মেলনে উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মোঃ শারফুদ্দিন আহমেদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মানবিক পরামর্শে তৃতীয় বিশ্বের কোটি কোটি জনতাকে বিনামূল্যে করোনার ভ্যাকসিন দিয়েছে আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো। ঘরে বাইরে দেশে বিদেশে জননেত্রীর মানবিতকার প্রশংসা বইছে। মুজিব শতবর্ষে জননেত্রী শেখ হাসিনা ঘরহীনদের ঘর করে দিয়েছেন। তাঁর ইচ্ছে বাংলাদেশের কোন মানুষ গৃহহীন থাকবেন না। তার বাস্তবায়ন আমরা দেখছি দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে গুচ্ছগ্রাম করে গৃহহীন মানুষদের বাসস্থানের ব্যবস্থা করেছেন।
প্রসঙ্গত, জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী আকবর আলী গাজী (৫০) গত ৪ অক্টোবর ২০২১ খ্রিষ্টাব্দে তার গ্রামের বাড়ির বাজার হতে ফেরার সময় সাইকেল থেকে পড়ে যান। এতে তিনি বাম কোমড়ে আঘাত পেয়ে শয্যাশায়ী হয়ে পড়েন। এ সমস্যার কারণে আকবর দেশের সরকারী ও বেসরকারী হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হতে পারেননি। আকবর আলীর অসুস্থতার খবর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে পৌঁছালে তাঁর কার্যালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের আকবরের চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাগ্রহণ করার জন্য নির্দেশনা দিয়ে আর্থিক সহায়তাও দান করেন। পরবর্তীতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্র্য অধ্যাপক ডা. মোঃ শারফুদ্দিন আহমেদ বিশ্ববিদ্যালয়ে শিল্পী আকবরেক চিকিৎসার সমস্ত বন্দোবস্ত করেন। গত ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২ খ্রিষ্টাব্দে আকবর আলীকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ^বিদ্যালয়ের অর্থোপেডিক সার্জারি বিভাগের গ্রিন-২ ইউনিটে সহযোগী অধ্যাপক ডা. ইন্দ্রজিত কুমার কুন্ডুর অধীনে ভর্তি করা হয়। কণ্ঠশিল্পী আকবর আলী আনকন্ট্রোলড ডায়াবেটিকস, কিডনি রোগ (ঈকউ), সিভিয়ার হাইপো ক্যালেমিয়া, ডিস লিপিডিমিয়া, ডিসকোয়েড লুপাস, ইরাথ্রো মাটোসিস (উখঊ) রোগেও আক্রান্ত ছিলেন। ভর্তির ৪ সপ্তাহ চিকিৎসা গ্রহণে পর তার শারীরিক অবস্থা অপারেশন অনুকুল হলে ৩০ মার্চ ২০২২ খ্রিষ্টাব্দে ঞড়ঃধষ ঐরঢ় জবঢ়ষধপবসবহঃ (ঞঐজ- খবভঃ ংরফব) অপারেশন করা হয়। তার সফল অপারেশন করেন অর্থোপেডিক সার্জারি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ও আর্থপ্লাস্টি সার্জন ডা.ইন্দ্রজিৎ কুমার কুন্ডু। অপারেশন পরবর্তী তার শারীরিক অবস্থা নীবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করা হয়। ১৭ এপ্রিল ২০২২ খ্রিষ্টাব্দে মেডিক্যাল বোর্ড গঠনের মাধ্যমে তিনি ছুটিতে যেতে পারেন মর্মে বোর্ডের অধ্যাপকবৃন্দ সম্মত হন। আকবরকে আজ আনুষ্ঠানিকভাবে ছুটি দেয়া হয়।
এদিকে ময়মনসিংহের হালুয়াঘাটের অধিবাসী কৃষক আরেং ও নীলিমা স্নালের ১২ বছর বয়সী ৭ম শ্রেণি পড়ুয়া শ্রাবণ স্নাল হজকিন্স লিম্ফোমা রোগে আক্রান্ত। বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নজরে এলে শ্রাবণকে শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাসেবা প্রদানের জন্য উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মোঃ শারফুদ্দিন আহমেদকে নির্দেশ দেন। গত ২৪ অক্টোবর ২০২১ খ্রিষ্টাব্দে এক বছরের জ্বর ও গলার ডানপাশে লসিকাগ্রন্থি ফোলা নিয়ে ভোগা শ্রাবণ স্নাললকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্বদ্যিালয়ে হেমাটোলজি বিভাগে অধ্যাপক ডা. সালাউদ্দিন শাহের অধীনে ভর্তি করা হয়। পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে শ্রাবণ স্নাল হজকিন্স লিম্ফোমা রোগ নির্ণয় করা হয়। গত ৭ নভেম্বর ২০২১ খ্রিষ্টাব্দে প্রথম কেমোথেরাপি শুরু হয়। রোগ নির্ণয়ের সময় তাঁর টিউমারের আকার ছিল ৮.৫দ্ধ৫ সেন্টিমিটার এবং বর্তমানে এর আকার ২দ্ধ১ সেন্টিমিটার।

https://fb.watch/cHayH_9JF-/

 

https://fb.watch/cHayH_9JF-/

 

আপনার মতামত দিন:


বিএসএমএমইউ এর জনপ্রিয়