Ameen Qudir

Published:
2020-02-16 20:04:03 BdST

শতাধিক শিশু ক্যান্সার রোগীর প্রাণ বাঁচিয়েছেন বিএসএমএমইউর চিকিৎসকরা


বিএসএমএমইউ সংবাদদাতা
___________________

শতাধিক শিশু ক্যান্সার রোগীর প্রাণ বাঁচিয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় : বিএসএমএমইউর চিকিৎসকরা।
১৫ ফেব্রুয়ারি২০২০ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে অডিটোরিয়ামে ক্যান্সারজয়ী শতাধিক শিশুকে নিয়ে আর্ট কম্পিটিশন ও আলোচনা সভা হয়। বিএসএমএমইউ এ আয়োজন করে। এ সময় ক্যানসার জয়ী শিশু ও তাদের বাবা মায়েরা ডাক্তারদের প্রতি কৃতজ্ঞতায় আপ্লুত হন। সৃষ্টি হয় মানবিক আবেগঘন দৃশ্যের।
ক্যানসার জয়ী তৌকিদের মা জানান, যখন বাবুর ক্যান্সার নিশ্চিত হয়। ওই সময় মনের অবস্থা যে কেমন ছিল, তা বুঝাতে পারবো না। ভীষণ মন খারাপ হলেও ভেঙে পড়িনি। কোথায় চিকিৎসা হবে। খরচই বা কিভাবে ম্যানেজ হবে। এক রকম চিন্তায় অস্থির হয়ে পড়ি ।
দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী মম বণিক এখন পুরোপুরি সুস্থ। মম বলেন, এখানকার ডাক্তারদের আন্তরিকতায় আমি সুস্থ জীবনে ফিরে আসতে পেরেছি। এই হাসপাতাল ও চিকিৎসকের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।
কৃতজ্ঞ মমের মা জানান, ওই সময় মেয়েটা এমন অসুস্থ হয়েছে, বাঁচবে বলে মনে হয়নি। পরে এই হাসপাতালে নিয়ে আসার পর ভরসা পাই। চিকিৎসকদের আন্তরিকতায় আমার মেয়ে আজ সুস্থ হয়ে উঠেছে। আমি হাসপাতাল কৃর্তপক্ষের কাছে অনেক কৃতজ্ঞ।

১৫ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব শিশু ক্যান্সার দিবস উদযাপন ও শিশু ক্যান্সার বিষয়ে জনসচেতনতা বাড়াতে বিএসএমএমইউর হেমাটোলজি এবং অনকোলজি বিভাগ ও ওয়ার্ল্ড চাইল্ড ক্যান্সার বিষয়ক এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।
বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. শাহানা আক্তার রহমান বলেন, ‘ক্যান্সার আক্রান্ত শিশুদের বাবা-মায়ের মানসিক অবস্থা আমরা পুরোটা বুঝি না। আমরা চেষ্টা করি মাত্র। এই মানুষগুলোর যুদ্ধ যে কত বড়, তা ভুক্তভোগী ছাড়া কেউ বুঝতে পারবে না। ক্যান্সারের এই যুদ্ধে আপনারা বিজয়ী। আজকের এই আয়োজন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই বার্তা পৌঁছে যাবে অনেক বাবা-মায়ের কাছে। তারা সাহস পাবে।

আপনার মতামত দিন:


বিএসএমএমইউ এর জনপ্রিয়