Ameen Qudir

Published:
2019-04-25 21:55:30 BdST

মানসিক রোগ নির্ণয়ের রেটিং স্কেল এবার বাংলায় হচ্ছে


  

ডেস্ক
______________________

  মানসিক রোগ নির্ণয়ের রেটিং স্কেল এবার বাংলায় হচ্ছে। এ কাজের উদ্যোগ নিয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোরোগ বিদ্যা বিভাগ।

কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিভাগটির আয়োজনে বিএসএমএমইউ এর শহীদ ডা. মিলন হলে ২৫ এপ্রিল ২০১৯ “Diissemination Program On Research Instruments” শীর্ষক বৈজ্ঞানিক কর্মশালা হয়ে গেল।


মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালগুলোর সাইকিয়াট্রিস্টরা অংশগ্রহণ করেন।

                               

 

বিএসএমএম্উ মনোরোগবিদ্যা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. সালাহ্‌উদ্দিন কাউসার বিপ্লব এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরে বলেন, মনোরোগ বিভাগের পক্ষ থেকে মোট ছয়টি বিষয়ে বাংলায় রেটিং স্কেল নির্ধারণের গবেষণা করা হয়েছে। এই কর্মশালায় তার মধ্যে থেকে দুটি বিষয় উপস্থাপন করা হয়েছে। এর আগে গত ১৩ মার্চ দুটি বিষয় উপস্থাপন করা হয় এবং আগামীতে বাকি দুটি বিষয়ে কর্মশালার আয়োজন হবে। তিনি জানান, সহায়ক ইন্স্ট্রুমেন্ট ব্যবহার সর্ম্পকে চিকিৎসকদেরকে জানানোর জন্য এই আয়োজন। এইসব ইন্স্ট্রুমেন্ট ব্যবহারের জন্য একটি তথ্যকেন্দ্র থাকলে সকলের জন্য সুবিধা হবে বলে প্রস্তাব দেন তিনি।


কর্মশালায় অতিথি ছিলেন জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের পরিচালক ও বাংলাদেশের শীর্ষ জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক , বাংলা একাডেমী পুরস্কার বিজয়ী অধ্যাপক ডা. মোহিত কামাল এবং সাবেক পরিচালক অধ্যাপক ডা. ফারুক আলম। চেয়ারপার্সন ছিলেন বিএসএমএমইউ এর মনোরোগবিদ্যা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. সালাহ্‌উদ্দিন কাউসার বিপ্লব।

 

টিভি ব্যাক্তিত্ব ও কথাবিদ ডা. মোহিত কামাল তার চমৎকার বক্তব্যে বলেন, সকলের মিলিত চেষ্টাই যে কোন মহৎ সাফল্যের চাবিকাঠি। এই মানবকল্যানী কাজে আমরা সবাই থাকব। সবরকম সহযোগিতা করব। পাশাপাশি হাতে হাত রেখে অসহায় মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাব।

ডা. ফাতেমা তুজ জোহরা জ্যোতির এর সঞ্চালনা করেন।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন মনোরোগবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ও প্রথিতযশ মনোচিকিৎসক ডা. ঝুনু শামসুন্নাহার। তিনি বলেন, আমরা মনোরেগাবিদ্যা বিভাগের পক্ষ থেকে একটি গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনা করেছি, সেটি সবাইকে জানানোর জন্যই আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। আমন্ত্রণে সাড়া দেওয়ার জন্য তিনি সকল ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে ধন্যবাদ । সকলের মিলিত চেষ্টাতেই যে কোন ভাল কাজ সফল করা সম্ভব।
জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের সাবেক পরিচালক অধ্যাপক ডা. ফারুক আলম বলেন, আমাদের দেশে যে পরিমান মানসিক রোগী রয়েছে তার প্রায় ৯০ ভাগই চিকিৎসার আওতার বাইরে রয়েছে। তাদেরকে চিকিৎসার আওতায় আনার জন্য জনসংযোগ বাড়াতে হবে।

অনুষ্ঠানে “জারিট বারডেন ইন্টারভিউ” বিষয়ে বাংলা অনুবাদ গবেষণা উপস্থাপন করা হয়। এরপর এই বিষয়ে একটি কর্মশালা পরিচালনা করেন মনোরোগবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ডা. এম এস আই মল্লিক। এই রেটিং স্কেলটি রোগ র্নিণয় এবং সেই অনুযায়ী ব্যবস্থাপত্র গ্রহণে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে বলে জানান তিনি।

কর্মশালা শেষে প্রশ্নোত্তর পর্ব এবং উন্মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।
ধন্যবাদ বক্তব্য রাখেন বিএসএমএমইউর অধ্যাপক ডা. নাহিদ মাহজাবিন মোর্শেদ।

 

 

কর্মশালায় অংশ নেন বিএসএমএমইউ এর মনোরোগ বিদ্যা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. হাফিজুর রহমান, সহযোগী অধ্যাপক ডা. সুলতানা আলগিন, সহযোগী অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ শামসুল আহসান, সহযোগী অধ্যাপক ডা.সালেহ আহমেদ, সহকারী অধ্যাপক ডা. সিফাত-ঈ-সাঈদ। কেন্দ্রীয় মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্র এর ডা. রাহানুল ইসলাম, আদ দ্বীন মেডিকেল কলেজ এর সহকারী অধ্যাপক ডা. হোসনে আরা, গ্রিন লাইফ মেডিকেল কলেজে এর সহযোগী অধ্যাপক নুরুন্নাহার চৌধুরী লিলি, রেড ক্রিসেন্ট হলি ফ্যামিলি মেডিকেল কলেজ এর সহযোগী অধ্যাপক ডা. ফারজানা রবীন শর্মী, ডা. রাইসুল ইসলাম পরাগ, ডা. ফাতেমা জোহরা মারিয়া, ডা. মেজর কামরুল ইসলাম প্রমুখ ।

কর্মশালাটি আয়োজনে বৈজ্ঞানিক পার্টনার হিসেবে ছিল জেনারেল ফার্মাসিটিক্যালস লিমিটেড।

আপনার মতামত দিন:


বিএসএমএমইউ এর জনপ্রিয়