Ameen Qudir

Published:
2018-12-20 13:08:59 BdST

যে আসনে একজন ডাক্তার জিতবেনই


 


ডেস্ক
_________________________

এটা চমৎকার এক ধাঁধা হতে পারে ! পারলে বলুন, আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কোন আসনে অবধারিতভাবে একজন ডাক্তার জিতবেনই। কেন জিতবেন? কারণই বা কি !
আসনটি হল সাতক্ষীরা-৩ । এখানে কোন দৈব দুর্ঘটনা না ঘটলে ৩০ ডিসেম্বর ভোটে একজন ডাক্তার জিতবেনই।

আওয়ামী লীগ নেতৃত্বের মহাজোট এবং প্রধান প্রতিপক্ষ বিএনপি -জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট জোট : উভয়ের প্রার্থীই পেশায় চিকিৎসক। একজন সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী; দেশের শীর্ষ সার্জন। অন্যজন হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ । দুজনেই পেশা সুনামেও শীর্ষে। বলা যায়, নৌকা ও ধানের শীষ এখানে ডাক্তারে একাকার।
অনেকে অবশ্য তত্ত্বীয় ভাবে বলবেন, যদি অন্য কোন মার্কা জিতে যায়। জিতলে সেটা হবে মিরাকল। মিরাকল স্টিল হ্যাপেনস। কিন্তু সে আশঙ্কা খুবই কম। শূণ্যের কাছাকাছি।


মহাজোট প্রার্থী অধ্যাপক ডা. আফম রুহুল হক ১০ম সংসদে বিজয়ী। । ধানের শীষ নিয়ে তার মোকাবেলায় সাতক্ষীরা জেলা বিএনপির কার্যকরী পরিষদের সদস্য ডা. মো. শহীদুল আলম।

ডা. আ.ফ.ম রুহুক হক চিকিৎসা পেশার সর্বোচ্চ ডিগ্রি এফআরসিএস অর্জন করেছেন। জাতিসংঘ স্বাস্থ্য সংস্থার (গাভী) সদস্য। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, পঙ্গু হাসপাতাল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের অর্থপেডিক্স বিভাগের চিকিৎসক ছিলেন তিনি। বর্তমানে রাজধানীর ট্রমা সেন্টারে রোগী দেখেন এবং বিদেশেও তার অনেক সুনাম। আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য তিনি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী থাকাকালে তিনি দেশের জন্য এমডিজি পুরস্কারসহ বেশ কিছু আন্তর্জাতিক পুরস্কার এনে দিয়েছেন। সাধারণ মানুষের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দিতে কমিউনিটি ক্লিনিকগুলো সক্রিয় করেছেন তিনি। প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষ আজ কমিউনিটি ক্লিনিকের সুফল পাচ্ছেন। তার প্রচেষ্টায় নির্মিত হয়েছে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ, নলতা ম্যাটস ও নার্সিং ইনস্টিটিউট। এছাড়াও সড়ক, বিদ্যুতায়ন ও অবকাঠামোগত অনেক উন্নয়ন দৃশ্যমান। ভোটের মাঠে তিনি হেভিওয়েট প্রার্থী। ভক্ত সমর্থকদের আশা , বিজয়ী হলে তাকে আবারও স্বাস্থ্য মন্ত্রীর চেয়ারে দেখা যেতে পারে।

২০০৮ সালে মহাজোটের পক্ষ থেকে সাতক্ষীরা-৩ আসন থেকে এমপি হয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পান। এরপর ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে মহাজোটের হয়ে দ্বিতীয় মেয়াদে তিনি এমপি হন।

 

ডা. মো. শহিদুল আলম বর্তমানে রাজধানীর সাভারের এনাম মেডিকেলের কার্ডিওলজিস্ট (হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ) হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। সাতক্ষীরা জেলা বিএনপির কার্যকরী পরিষদের সদস্যও  ড্যাবের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ।


সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার ১১ ইউনিয়ন, দেবহাটার ৫ ও কালিগঞ্জ উপজেলার ১২ ইউনিয়নের মধ্যে ৪ ইউনিয়ন (মোট ২১ টি) নিয়ে সাতক্ষীরা-৩ আসন গঠিত। এ আসনে আসনে মোট ভোটার ৩ লাখ ৮৭ হাজার ৩ শত ৩৮ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৯৫ হাজার ৫ শত ১৮ জন। নারী ভোটার ১ লাখ ৯১ হাজার ৮ শত ২০ জন।

আপনার মতামত দিন:


নির্বাচন এর জনপ্রিয়