Ameen Qudir

Published:
2019-08-14 09:58:30 BdST

আমার বিরুদ্ধে মন্তব্য করতে সবাইকে বিনীত অনুরোধ জানাচ্ছি:মাসুদ হক



বিজ্ঞপ্তি
______________

মাসুদ হক এক বক্তব্যে জানান,
আমার বিরুদ্ধে মন্তব্য করতে সবাইকে বিনীত অনুরোধ জানাচ্ছি।
তার এই আবেদনের বিস্তারিত বক্তব্যে বলেন,

আমি বিজ্ঞান বিভাগে এসএসসি ও এইচএসসি পাস করে বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয় হতে এনওসি নিয়ে রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গ হতে প্রথমে প্রস্তুতিমূলক কোর্স সম্পন্ন করি এবং ছয় বছরের ডক্টর অফ মেডিসিন কোর্স সম্পন্ন করে 2005 সালে বাংলাদেশে ফিরে এসে খুলনা মেডিকেল কলেজ হতে ইন্টার্ণশিপ কমপ্লিট করি এবং বাংলাদেশ মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল কাউন্সিল হতে রেজিস্ট্রেশন গ্রহণ করি যার নাম্বার এ 43214। তারপর সার্জারিতে ট্রেনিং গ্রহণ করে আমি চিকিৎসা সেবা শুরু করি 2007 সালে এনামুল নামে এক রোগীর অপারেশন করি রুগী সুস্থ হয়ে সাত দিন পর বাড়ি ফিরে যায়। 7 দিন পর সে পেটে ব্যথা নিয়ে আবার কালীগঞ্জের দারুস শেফা হাসপাতাল ফিরে আসে আমি তখন তাকে আবার পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে জানাই যে তার পেটের যে ডিওডেনাম আলসার পারফোরেশন অপারেশন করা হয়েছিল, সেটা পুনরায় ছিদ্র হয়ে গেছে আমি তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে জানায় সে বাড়ি ফিরে অতিরিক্ত খাদ্য খাবার গ্রহণের কারণে, প্রচন্ড পেটে ব্যাথা শুরু হয় এবং পুনরায় তাঁর খাদ্য নালী যেটা অপারেশন করা হয়েছিল সেটা খুলে যায়। ফলে পেটের ভিতর পুনরায় ইনফেকশন হয়ে তার অপারেশনের স্থান হতে পুজ রক্ত নির্গত হতে থাকে। আমি তাকে আন্তরিকতার সাথে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে নিয়মিত ড্রেসিং করাতে থাকি এবং তাকে পরামর্শ দিই যে কমপক্ষে তিন মাসের পূর্বে পুনরায় অপারেশন করা সম্ভব নয় এবং যে কোন মেডিকেল কলেজে করাতে হবে। সে মোতাবেক আমি তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফারড করি। এবং পুনরায় অপারেশন এর পূর্বে তার ক্ষতস্থানে colostomy collection bag ব্যবহার করতে বলা হয়। আমি নিজে তাকে খুলনা হতে colostomy কালেকশন ব্যাগ কিনে দেয়। এবং তিন মাস অতিবাহিত হলে তাকে খুলনা মেডিকেলে পুনরায় অপারেশন করতে আমি সাথে করে নিয়ে যেতে চাই। কিন্তু হঠাৎ একদিন প্রথম আলো পত্রিকায় আমাদের স্থানীয় সাংবাদিক একটি নিউজ করে যে আমি উক্ত এনামুলকে অপারেশন করে পেটে পলিথিন বেঁধে দিয়েছি। যেটা আমি কোনদিনও জানিনা এবং করিও নাই। আমি ওই সময় উক্ত সংবাদের প্রতিবাদ জানাই। যেটা বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় প্রকাশ হয়। এরপর আমি মাগুরা ডায়াবেটিক হাসপাতাল চাকরি শুরু করি এবং নিয়মিত কালিগঞ্জ থেকে যাতায়াত করে অফিস করি। প্রতিদিন কালিগঞ্জ হতে অফিসে যাতায়াত সমস্যা হলে আমি মাগুরাতে সপরিবারে বসবাস শুরু করি। সাথে সাথে মাগুরার গাডো ক্লিনিকে প্রাইভেট প্র্যাকটিস করতে থাকি। খুব স্বল্প সময়ে মাগুরাতে জনপ্রিয়তা ছড়িয়ে পড়ে। গরিব মানুষের বিনা পয়সায় চিকিৎসা সহ বিনা পয়সায় অনেক রোগীর অপারেশন করে দিয়েছি। আমি নিয়মিত অসংখ্য গরিব মানুষের ফ্রী ডায়াবেটিসের ঔষধ সহ বিনা পয়সায় চিকিৎসা দিয়ে থাকি। ডায়াবেটিসে চাকরিরত অবস্থায় আমি বারডেম হতে ডায়াবেটলজিস্ট কোর্স সম্পন্ন করি। এবং ডায়াবেটিস এর উপর মালয়েশিয়া এবং থাইল্যান্ড বিভিন্ন কোর্সে অংশগ্রহণ করি। এছাড়া আমি সার্টিফিকেট কোর্স অন মেডিকেল আলট্রাসনোগ্রাফি সম্পন্ন করি। 2012 সালের ফেব্রুয়ারি মাসে আমি মাগুরাতে জাহান ক্লিনিকনামে একটি প্রতিষ্ঠান চালু করি। মূলত তখন থেকেই মাগুরার কিছু ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিকরা আমার বিরোধিতা শুরু করে। এবং আমার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপপ্রচার চালায়। 2012 সালে মাগুরায় কর্মরত মাননীয় সিভিল সার্জন মহোদয় মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির সাহেবের নিকট আমার সার্টিফিকেট নিয়ে প্রশ্ন তুললে, সিভিল সার্জন মহোদয় আমার সমস্ত সার্টিফিকেট জমা দিতে বলে। আমি সাথে সাথে আমার সমস্ত শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদপত্র মাগুরা সিভিল সার্জন কার্যালয়ে জমা দেই। আমার সমস্ত সনদ যাচাই পূর্বক মাননীয় সিভিল সার্জন মহোদয় অভিযোগকারী ও আমাকে সনদ সঠিক আছে মর্মে জানিয়ে দেন। এরপর আমি মাগুরাতে আরো অত্যাধুনিক স্বাস্থ্য সুবিধা চালু করতে নিজস্ব জমিতে একটি ভবন স্থাপন করে জাহান ক্লিনিক সেখানে স্থানান্তরিত করি। মানসম্মত ,পরিচ্ছন্ন ক্লিনিক হিসাবে যা হাসপাতাল মাগুরার মানুষের মন জয় করে নেয়। মাগুরাতে আমার ও জাহান ক্লিনিকের সুনামের সাথে সাথে আমার ব্যবসায় প্রতিদ্বন্দ্বীরা আমার বিরুদ্ধে কুৎসা রটাতে শুরু করেন এবং তার ফলশ্রুতিতে ফেসবুকে আমার নিয়ে বিভিন্ন অপপ্রচার শুরু হয়। এবং সর্বশেষ ইন্ডিপেন্ডেন্ট টিভির তালাশে আমার বিরুদ্ধে 12 বছর পূর্বের ঘটনাসহ বিভিন্ন ঘটনা তুলে ধরেন। যেসব ঘটনায় আমার বিন্দুমাত্র দোষ নেই। আমি মাগুরার মানুষের সেবাই সবসময়ই নিজেকে নিয়োজিত রেখেছি। এবং যতদিন বেঁচে থাকবো মাগুরার মানুষের সেবা দিয়ে যাব। আমার অনুরোধ কোন মিডিয়ার প্রচারে বিভ্রান্ত না হয়ে আমার সমস্ত যাচাই বাছাই কৃত সনদপত্র যা মাগুরার সিভিল সার্জন কার্যালয়ে রক্ষিত আছে।সেগুলো পর্যবেক্ষণ করে আমার বিরুদ্ধে মন্তব্য করতে সবাইকে বিনীত অনুরোধ জানাচ্ছি। বিজ্ঞপ্তি।

আপনার মতামত দিন:


নির্বাচন এর জনপ্রিয়