Ameen Qudir

Published:
2017-02-09 07:06:41 BdST

স্বাস্থ্যখাতে অভাবনীয় উন্নতি : বাংলাদেশের ডাক্তারদের প্রশংসায় পঞ্চমুখ বিশ্বব্যাঙ্ক


 

ডা. অাশরাফী খানম
____________________________

বাংলাদেশের ডাক্তার সেবামুখী ভূমিকা ও স্বাস্থ্যখাতের অনন্য উন্নতির প্রশংসায় পঞ্চমুখ বিশ্বব্যাংক । ‘অসাধরণ কর্মকুশলতার’জন্য আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেল কমিউনিটি ক্লিনিকও।


বিশ্বব্যাংকের মতে, স্বাস্থ্যখাতে বাংলাদেশ অভাবনীয় উন্নতি করেছে। এর মূলে রয়েছে কমিউনিটি ক্লিনিক। এটি সাধারণ মানুষের হাতের নাগালের মধ্যে প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেয়া নিশ্চিত করেছে। ফলে নবজাতক ও শিশুমৃত্যু, মাতৃমৃত্যু, প্রজনন হার নিয়ন্ত্রণে ১০টি সূচকে অভাবনীয় অগ্রগতি হয়েছে বলে মনে করছে বিশ্বব্যাংক।


সংস্থাটির এক মূল্যায়ন প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০০৭ সালে প্রতি হাজারে ৬৫ শিশু মারা যেত ৫ বছর বয়সের মধ্যে। ২০১৪ সালে এ সংখ্যা নেমে এসেছে প্রতি হাজারে ৪৬ জনে। এ হিসেবে শিশুমৃত্যুর হার কমেছে ২৯ শতাংশ। ১৯৯০ সালে দেশে নারীপ্রতি শিশুর জন্মদানের সংখ্যা ছিল গড়ে ৩ দশমিক ৩। সম্প্রতি নারীপ্রতি শিশুর জন্মদানের এ সংখ্যা নেমে এসেছে ২ দশমিক ৩-এ। ২০০৯ সালে ৪৩ শতাংশ শিশু শুধু মায়ের বুকের দুধ পান করত। ২০১৪ সালে এ হার উঠেছে ৫৫ শতাংশে। একই সময় জন্মের আগেই দক্ষ স্বাস্থ্য কর্মীর সেবা পাওয়া শিশুর সংখ্যা ৫৩ শতাংশ থেকে উঠেছে ৬৪ শতাংশে। প্রয়োজনের তুলনায় কম ওজনের শিশুর সংখ্যা ৪১ শতাংশ থেকে নেমে এসেছে ৩৩ শতাংশে।

এইচপিএনএসডিপি’র আওতায় ২০১৪ সাল থেকে দেশে ১৩ হাজারের বেশি কমিউনিটি ক্লিনিক চালু রয়েছে।

জন্মনিয়ন্ত্রণ সামগ্রী ব্যবহারের প্রবণতা ৫৫ শতাংশ থেকে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬২ শতাংশে। হামের টিকা গ্রহণের প্রবণতা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৬ শতাংশে। ২৩ মাসের মধ্যে সবগুলো মৌলিক টিকা গ্রহণের হার এখন ৮৪ শতাংশ। এসব অগগ্রতির কারণে সাম্প্রতিক সময়ে দেশের মানুষের গড় আয়ুও বেড়েছে।

______________________

লেখক
ডা. অাশরাফী খানম । খুলনা মেডিকেল কলেজ ।

আপনার মতামত দিন:


নির্বাচন এর জনপ্রিয়