ডা শাহাদাত হোসেন

Published:
2022-06-01 10:03:48 BdST

মেধাবী ছাত্রদের জন্য স্কলারশিপ এবং বিনা সুদে দীর্ঘ মেয়াদী ঋণ প্রদানের প্রস্তাব


ডা. আজাদ হাসান


ডা. আজাদ হাসান
_________________-

মেধাবী ছাত্রদের জন্য স্কলারশিপ এবং বিনা সুদে দীর্ঘ মেয়াদী ঋণ প্রদানের প্রস্তাব রাখছি।।

প্রতি বছর বেশ কিছু সংখ্যক মেধাবী ছাত্র/ছাত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলেও আর্থিক ভাবে স্বচ্ছলতার অভাবে তাঁরা আর সামনে এগুতে পারে না, তাদের ভবিষ্যৎ জীবন অনিশ্চিত হয়ে পড়ে এমনকি অনেক সময় পড়াশুনার ট্রাকচ্যূত হয়ে পড়ে। অথচ মেধাবী ছাত্রদের পৃষ্ঠপোষকতা করা রাষ্ট্রের দায়িত্ব।।

যারা মেধাবী অথচ আর্থিক ভাবে স্বচ্ছল নয় তাদের জন্য রাষ্ট্র এবং সমাজে বিত্তশালীদের কিছু দায়িত্ব রয়েছে।

এ প্রসংগে আজ আমি কতিপয় প্রস্তাবনা পেশ করছি।

১) সমাজ সেবা অধিদপ্তর হতে এসব মেধাবী অথচ আর্থিক ভাবে অস্বচ্ছল, তাদের জন্য অভিভাবকের আয়ের উপর নির্ভর করে স্কলারশিপ প্রদানের ব্যবস্থা করতে পারে।
২) প্রতিটি ব্যাংকের একটি "শোসাল ওয়েল ফেয়ার" কাজের জন্য নির্দিষ্ট পরিমাণ ফান্ড বরাদ্দ থাকে। সেই ফান্ড ব্যবহার করে প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত এলাকায় অবস্থিত ব্যাংক হতে প্রতি বছর নির্দিষ্ট সংখ্যক মেধাবী ছাত্র/ছাত্রীদের মাঝে স্কলারশিপ প্রদানের ব্যবস্থা করা যেতে পারে।
৩) মেধাবী এবং অভিভাবক আর্থিক ভাবে স্বচ্ছল নন, অথচ উপরে উল্লেখিত শর্তাবলী অনুযায়ী স্কলারশিপ পান নাই, সেই ক্ষেত্রে তাঁদের জন্য দীর্ঘ মেয়াদী এবং বিনা সূদে "শিক্ষা ঋণ" কর্মসূচী গ্রহন করতে হবে। এবং উক্ত ঋণের সুবিধা প্রাপ্ত ছাত্র /ছাত্রীরা পড়াশোনা শেষে চাকুরীতে যোগদানের পর বপতন হতে নির্দিষ্ট হারে উক্ত ঋণ পরিশোধ করবেন।
৪) সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তিদের সমন্বয়ে
"শিক্ষা ঋণ ট্রাস্টি" বোর্ড গঠন পূর্বক আর্থিক ভাবে অসচ্ছল এবং মেধাবী ছাত্র/ছাত্রীদের জন্য যথাক্রমে ক) "স্কলারশীপ" এবং খ) বিনা সূদে দীর্ঘ মেয়াদী "শিক্ষা ঋণ" প্রদান করবে। উক্ত ফান্ডটি সমাজের বিত্তবানদের সরাসরি ডোনেশন এর মাধ্যমে তৈরী হতে পারে। এবং যারা এই ফান্ডে অর্থ ডোনেট করবেন, ট্যাক্স রিটার্ন এর সময় তাদেরকে এ জন্য কর রেয়াত দেয়ার ব্যবস্থা করতে হবে।

চিকিৎসক সংগঠন সমূহ এ ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারেন।।

বর্তমান যে সমস্ত চিকিৎসক পোস্ট গ্রাজুয়েশন কোর্সে অধ্যয়নরত আছেন, বর্তমান দুর্মূল্যের বাজারে জীবন পরিচালনার পাশাপাশি পড়াশুনা চালিয়ে যেতে যেয়ে তাদেরকেও অর্থনৈতিক অসচ্ছলতা কারণে বিভিন্ন সময় নানান প্রতিকূলতার সম্মুখীন হতে হচ্ছে।
এ রকম পরিস্থিতিতে আমার মতে আমাদের দেশের প্রতিথযোশা চিকিৎসক সমাজ তথা চিকিৎসকদের বিভিন্ন সংগঠন সহযোগিতার হাত সম্প্রসারিত করে এগিয়ে আসতে পারেন।
এ ক্ষেত্রে আমাদের দেশের চিকিৎসকদের যে সব সোসাইটি আছে যেমনঃ সার্জনস্ সোসাইটি, মেডিসিন সোসাইটি, গাইনীকলজিক্যাল সোসাইটি, প্যাথলজিক্যাল সোসাইটি ইত্যাদি।
প্রতিটি সোসাইটির পক্ষ হতে যদি সংশ্লিষ্ট কোর্সে অধ্যয়নরত নূন্যতম ৫-১০ জন স্টুডেন্টকে সূদবিহীন এবং দীর্ঘ মেয়াদী ঋণ প্রদান করা হয়, তাহলে ঐ সব স্টুডেন্ট এখন (বর্তমানে) নির্বিঘ্নে পড়াশুনা চালিয়ে যেতে পারবেন এবং ভবিষ্যতে পরিশোধিত আদায়কৃত অর্থ হতে পরবর্তী প্রজন্মের পোস্ট গ্রাজুয়েট স্টুডেন্টরাও অনুরূপ সুবিধা লাভে সমর্থ হবেন। এবং এভাবে এটা ধারাবাহিক ভাবে চলতে থাকবে।

আর এভাবে সরকারী পৃষ্ঠপোষকতার বাহিরে আমদের পেশাদারী সংস্থা সমূহ আমাদের পেশার অনুজ প্রতিম চিকিৎসকদের পড়াশুনাকে এগিয়ে নিতে সাহায্য করতে পারি।
আর এভাবে আমরাও সমষ্টিগত ভাবে উদ্যোগ নিয়ে সমাজে পজিটিভ পরিবর্তন আনতে পারি এবং নতুন সমাজ বিনির্মানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে।।

________________
ডা. আজাদ হাসান
SOMC -21

 

আপনার মতামত দিন:


মেডিক্যাল ক্যাম্প এর জনপ্রিয়