SAHA ANTAR

Published:
2020-12-27 19:16:53 BdST

ডাক্তার হতে চাওয়া মৃত কন্যার ইচ্ছা পূরণে ৬৪ বছর বয়েসে এমবিবিএসে ভর্তি হলেন জয়



ডেস্ক / সংবাদ সংস্থা
_______________________


জয়ের যমজ দুই মেয়ে এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষার প্রস্তুতি নিচ্ছিল। সম্প্রতি তাদের একজনের মৃত্যু হয়েছে। সে মৃত্যুর গভীর শোক ৬৪ বছর বয়সী জয়কে এক অভূতপূর্ব চ্যালেঞ্জের মখোমুখি করে দিল। তিনি ঠিক করলেন, এই মধ্যবয়েসে তিনি নিজেই এমবিবিএস পড়ে নিজে ডাক্তার হয়ে মেয়ের স্বপ্ন পূরণ করবেন। সেবা করবেন মানবতার। মেয়ের পবিত্র ইচ্ছা তিনি এভাবেই পূরণ করতে চান।
মানব মন বড়ই বিচিত্রমুখী মানবিক।

 

শুনতে আশ্চর্য লাগলেও সত্যি। ৬৪ বছর বয়সে সর্বভারতীয় মেডিক্যাল প্রবেশিকা NEET পাস করলেন ওড়িশার অবসরপ্রাপ্ত ব্যাঙ্ক কর্মী জয় কিশোর প্রধান। শুধু তাই নয় রাজ্যের বীর সুরেন্দ্র সাঁই ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্সের প্রথম বর্ষে ভর্তিও হয়েছেন তিনি। যে পরীক্ষা পাস করার জন্য আঠারো, কুড়ির তরুণরা হিমশিম খেয়ে যাচ্ছেন সেই NEET পাস করে জয় কিশোর দেখিয়ে দিলেন বয়স কোনও বাধাই নয়।

স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়ার ডেপুটি ম্যানেজার হিসেবে অবসর নিয়েছিলেন জয়। তার পরেই এক গভীর শোকের ঘটনায় তাঁর মাথায় চেপে বসে ডাক্তার হওয়ার বাসনা ।
জয় কিশোরের যমজ দুই মেয়েও NEET এর প্রস্তুতি নিচ্ছিল। সম্প্রতি তাদের একজনের মৃত্যু হয়েছে। জয়ের বক্তব্য, নিজে ডাক্তার হয়ে মেয়ের স্বপ্ন পূরণ করব।

 

সংবাদমাধ্যমে তিনি বলেন, ISC পাস করার পরই মেডিক্যাল জয়েন্ট দিয়েছিলাম। কিন্তু পাস করতে পারিনি। এরপর বিএসসি পাস করে একটি স্কুলে চাকরি পাই। সেখান থেকে ব্যাঙ্কের পরীক্ষা দিয়ে SBI-য়ে চাকরি পাই ১৯৮৩ সালে। তারপর অবসরও নিয়েছেন তিনি। কিন্তু মেয়ের মৃত্যু আবারও তাকে তরুণ করে তুলল। জাগিয়ে দিল অদ্ভুত মানবিক প্রত্যয়।
তিনি জানান,
মেডিকেলে এমবিবিএসে ভর্তি হতে NEET এর প্রস্তুতি শুরু করি এবং এবার তা পাস করেছি। যখন পাস করে বের হব তখন হয়তো কোনও চাকরি পাব না। কিন্তু গরিবদের তো চিকিত্সা করতে পারব।


পরীক্ষা দেওয়ার অনুমতি পেলেন কীভাবে? কোনও বয়সসীমা কি নেই? বীর সুরেন্দ্র সাঁই ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্সের ডিন সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছেন, 'MBBS-র ভর্তির কোনও আপার এজ লিমিট নেই। এই সেশন থেকেই ক্লাস করবেন জয় কিশোর। '

আপনার মতামত দিন:


মেডিক্যাল ক্যাম্প এর জনপ্রিয়