Ameen Qudir

Published:
2020-02-13 18:21:14 BdST

সদর হাসপাতালগুলোকে স্বাস্থ্যসেবার প্রাণকেন্দ্রে পরিণত করতে হবে


ডা. আজাদ হাসান

_______________________

জেলা সদর হাসপাতাল সমূহে স্পেশালিষ্ট, স্কিল নার্স লজিস্টিক সাপ্লাই নিশ্চিত করতঃ ভৌত অবকাঠামো উন্নয়ন করে রোগীদের চিকিৎসার প্রাণকেন্দ্রে পরিণত করার পদক্ষেপ নেয়া হোক।।

একটা বিষয় উল্লেখ না করলেই নয় সেটা হলো, মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি রোগীর চাপ কমাতে, জেলা হাসপাতাল সমূহের সেবার পরিধি এবং মান বাড়ানো ছাড়া আর কোনো বিকল্প নেই।

যে সব ডিপার্টমেন্টে রোগীর সংখ্যা বেশী এবং যে সব ডিপার্টমেন্টে ২৪ ঘন্টা ইমার্জেন্সি লেগে থাকে সে সব ডিপার্টমেন্টে কনসাল্টেন্ট এবং আইএমও এবং নার্সদের সংখ্যা বৃদ্ধি করতে হবে।
যেমনঃ
১) মেডিসিন।
২) সার্জারী।
৩) অর্থপেডিক।
৪) শিশু রোগ/ পেডিয়া.
৫) গাইনী এন্ড অবস্
৬) এনেস্থিসিয়লজিস্ট।
৭) রেডিওলজিস্ট/সনোলজিস্ট,
~ এসব বিভাগে নূন্যতম ৪জন স্পেশালিষ্ট এবং প্রতি ডিপার্টমেন্টে আলাদা আলাদা আইএমও থাকা প্রয়োজন।
তা ছাড়া সদর হাসপাতালে ইএমও পোস্ট বাড়াতে হবে।
প্রতিটি সদর হাসপাতালে ফরেন্সিক মেডিসিন এক্সপার্ট-এর পোস্ট তৈরী করতে হবে এবং নিয়োগ দিতে হবে।
প্রসংগত উল্লেখ্য, বর্তমানে জেলা সদর হাসপাতাল সমূহ আপগ্রেড করার যে প্রক্রিয়া চলছে আমি তার সাথে দ্বিমত প্রকাশ করছি না, বরং সেসব স্থানে আরো জোড়দার করতে হবে সেসব বিষয়ে আমি সাপ্লিমেন্ট করতে চাচ্ছি বা সদাশয় কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি মাত্র।

অফিস টাইমের পর অন কল্ এটেন্ড করলে, কিংবা সরকারি ছুটির দিন ডিউটি করলে সংশ্লিষ্ট স্পেশালিষ্ট বা চিকিৎসককে স্পেশাল এলাউন্স কিংবা কম্পেনসেটরি লীভ দিতে হবে।

সকল স্পেশালিষ্ট যাতে সহজে হাসপাতালে অন কলে আসা যাওয়া করতে পারেন, সে জন্য ওনাদেরকে কার ক্রয়ের জন্য সহজ শর্তে ব্যাংক হতে "কার লোন" এর ব্যবস্থা করতে হবে।
এবং যারা কার কিনবেন, তাদেরকে"ড্রাইভার এলাউন্স" এবং মাসিক নির্দিষ্ট পরিমাণ "ফুয়েল ফ্রি দেয়া"র ব্যবস্থা করতে হবে।

জেলা হাসপাতালের বাজেট বৃদ্ধি করতে হবে।
লজিস্টিক সাপ্লাই বৃদ্ধি করতে হবে।
প্রতিটি হাসপাতালের তত্বাবধায়কদের লোকাল পারচেজ করার ক্ষেত্রে "ক্রয় ক্ষমতা" বৃদ্ধি করতে হবে এবং ব্যয় করার ক্ষেত্রেও "ব্যয় সীমা" বৃদ্ধি করতে হবে।

প্রতিটি হাসপাতালের জন্য অথবা প্রতি ২/৩ টি হাসপাতালের মেইটেনেন্স এর জন্য আলাদাভাবে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তি বদ্ধ হতে হবে।

প্রতিটি হাসপাতালের সেবা মূলতঃ ক্লিনিক্যাল বা প্রতিকার মূলক, তা ছাড়া একটি সদর হাসপাতালে কর্মরত বিভিন্ন ডিসিপ্লিনের স্পেশালিষ্ট, নার্স, মেডিক্যাল টেকনোলজিস্টসহ বিভিন্ন স্তরে কর্মরত অফিসার ও অন্যান্য লোকবল মিলিয়ে বিশাল সংখ্যক এমপ্লয়ি-এর প্রশাসনিক দায়িত্ব পালন করতে হয় এবং হাসপাতালের সার্বিক সেবা নিশ্চিত করার কর্ম পরিধি যেহেতু ব্যাপক তাই সামগ্রিক অবস্থা বিবেচনায় নিয়ে প্রতিটি সদর হাসপাতালের জন্য আলাদা আলাদাভাবে তত্বাবধায়ক নিয়োগের পদক্ষেপ নিতে হবে।

সিভিল সার্জনরা জেলার প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের ক্ষেত্রে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং ইউনিয়ন সাব-সেন্টারসহ কমিউনিটি ক্লিনিক এর কাজ মনিটরিং এবং সুপারভিশন করবেন।

এভাবে জেলার সার্বিক স্বাস্থ্যসেবাকে ঢেলে সাজাতে হবে।
পর্যায়ক্রমে প্রতিটি বিভাগের এক একটি জেলা হাসপাতালকে এক একটি বিষয়ে স্পেশালিষ্ট সেন্টার হিসেবে আপগ্রেড করতে হবে।
যেমন একটি জেলায় যদি ডায়াবেটিস সেন্টার থাকে তা হলে আর একটি জেলায় ডায়ালাইসিস সেন্টার, আর একটিতে কার্ডিয়াক সেন্টার, আর একটিতে গেস্ট্রোএন্টারোলজি সেন্টার, একটাতে অকুপেশনাল থেরাপী সেন্টার, আর একটিতে নিউরোলজিক্যাল ক্লিনিক এভাবে প্রতিটি জেলায় স্বাস্থ্যসেবাকে সম্প্রসারিত করার মাস্টার প্লান মাথায় রেখে এখনই স্বাস্থ্যসেবা উন্নয়নের পদক্ষেপ নিতে হবে।
_______________________
ডা. আজাদ হাসান
সিওমেক
২১ তম ব্যাচ।।

আপনার মতামত দিন:


মেডিক্যাল ক্যাম্প এর জনপ্রিয়