Ameen Qudir

Published:
2018-06-20 14:03:34 BdST

বিশ্বকাপ,আমি ও মেসি




অধ্যাপক ডা. অনির্বাণ বিশ্বাস
_____________________________

সকালবেলা কাঁচি দিয়ে দাড়ি ছাঁটতে বসেছি, আর অমনি আমার মোবাইল সুর বাজাল। বিরক্ত হয়ে মোবাইল তুলতেই শুনি স্যাম্পুর খসখসে গলা।

স্যাম্পু হচ্ছে, আপনারা যাকে স্যাম্পাউলি বলে জানেন,আর্জেন্তিনার কোচ, সে-ই। ভেরি ঘনিষ্ঠ ফ্রেন্ড। তাই ‘স্যাম্পু ’ বলেই ডাকি। ও আমাকে ডাকে সংক্ষেপে জাস্ট ‘অনি’ বলে। যা-ই হোক, স্যাম্পুর কণ্ঠে গভীর উদ্বেগ। বলে, ‘বন্ধু, ফেঁসে গেছি! কাপটা বুঝি গেল!’ আমি এক হাতে রিসিভারটা সামলে অন্য হাতে কাঁচি চালাতে চালাতে বললাম, ‘দ্যাখ স্যাম্পু, এই সাতসকালে কোনো ভবিষ্যদ্বাণী-ফানি আমি করতে পারব না। আই অ্যাম ভেরি ব্যস্ত। দাড়ি ট্রিম করছি। প্লিজ, ফোন রেখে দে।’

আপনারা জানেন, আর্জেন্তেনিয় কান্না বিশ্ববিখ্যাত। খুব সুন্দর করে কাঁদতে জানে ওরা। ডুকরে কেঁদে উঠে স্যাম্পু বললে, ‘অনি ডিয়ার, আমাদের বেস্ট প্লেয়ার মেসির মাথায় হঠাৎ, মানে সামথিং টেরিবলি রং…প্র্যাকটিসে নেমে একটির জায়গায় তিনটি করে বল দেখছে চোখে, আর এলোপাথাড়ি ঠ্যাং চালাচ্ছে। ও গড, আমি শেষ!’

শুনে আমার হাত কেঁপে এক খাবলা বেশি দাড়ি কেটে গেল। তবু কোনোমতে বললাম, ‘তোদের আর্জেন্তিনায় ভালো ডাক্তার নেই?’ স্যাম্পু বিলাপ করে বলল, ‘সব ট্রাই করা হয়ে গেছে, অনি। এখন তুই এসে বাঁচা। আমার দলের সব ছোকরার সাহস ভেঙে পড়েছে।’ আমি বললাম, ‘ছিঃ, এসব কী হচ্ছে স্যাম্পু ! তোর কান্নাকাটি শুনে আমার দাড়ি কাটা উল্টোপাল্টা হয়ে যাচ্ছে। এর ক্ষতিপূরণ তুই দিতে পারবি?’ স্যাম্পু বলে, ‘তোকে অনার করার জন্যই তো তোর দেখাদেখি আমিও একমুঠো দাড়ি রেখেছি। প্লিজ, তুই এসে আমাদের গেম প্ল্যানটা নতুন করে সাজিয়ে দিয়ে যা।’

এসব শুনে ওর জন্য আমার খুব মায়া হলো, যদিও আমি আর্জেন্তিনার বিপক্ষে। ব্রাজিলের সাপোর্টার। হাউএভার, বললাম, ‘অক্কে, কামিং। তাড়াতাড়ি ফিরতে হবে। Chamber আছে।'’ খুশির চোটে স্যাম্পু হাউমাউ করে কেঁদে উঠল।

আমার Private Jet এ উঠে পাইলটকে বললাম, ‘টেনে চালান। অনেক পেশেন্ট বসে আছে..তাড়াতাড়ি ফিরতে হবে’ ..রাশিয়া পৌঁছেই আরজেন্তিনার জাতীয় টিমকে তলব করে একটা প্র্যাকটিস ম্যাচ খেলালাম। শোচনীয় অবস্থা। মেসি বারবার তার নিজ দলেরই গোলকিপারকে কড়া শটে পরাস্ত করছে। হুঁশ বিলকুল নষ্ট হয়ে গেছে ওর। কোচ সাম্পাউলিকে কে চোখ পাকিয়ে বলছে, ‘গেট লস্ট!’
বোর্ডরুমে আমি স্যাম্পু কে বললাম "মেসিকে ডাক"

মেসি এসেই আমার কান ধরে বলল "হা দু দু..?"..
আমি বললাম "এই কি হচ্ছে"..
স্যাম্পু বলল "তবেই দেখ,অনি..মেসি ভাবছে তোর হাত কানের কাছে আছে ..তিনটে সব দেখছে কিনা.."
আমি আর risk নিলাম না..মেসির কান টেনে বললাম "ওরে হুলো..এখনই যদি এসব বন্ধ না করিস...তোকে West Bengal Police এর under যেকোন থানার IC বানাব..সব তখন একচোখে দেখবি "

মেসি straight আমার পায়ে পড়ল..হাউমাউ করে বলল "অমন কোর না গুরু..আমি ঠিক হয়ে গেছি..এই তোমার পা..এই তোমার হাঁটু..এই.."
আমি বললাম "খবরদার!..আর ওপরে উঠবিনে মেসি..খেলতে যা.."

স্যাম্পু ট্যারা চোখে তাজ্জব হয়ে তাকিয়ে রইল আমার দিকে। আমি ওয়াপসি হয়ে chamber এ ঢুকলাম..
_____________________________

অধ্যাপক ডা. অনির্বাণ বিশ্বাস । কবি, চিন্তক । কলকাতার প্রখ্যাত লোকসেবী চিকিৎসক।

আপনার মতামত দিন:


খেলা এর জনপ্রিয়