SAHA ANTAR

Published:
2022-10-29 08:13:17 BdST

আমা দাব্লাম জয় করে অসম্ভবকে সম্ভব করে দেখালেন চট্টগ্রাম মেডিকেলের ডা. বাবর আলী




ডেস্ক
________________________

নিজ পেশায় অনন্য সাফল্যের পাশাপাশি পাহাড় চড়ায়ও অসম্ভবকে সম্ভব করে দেখালেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের ৫১তম ব্যাচের প্রাক্তন  শিক্ষার্থী ডা. বাবর আলী। সম্প্রতি তিনি আরোহণ করেছেন হিমালয় পর্বতমালার দুর্গমতম পর্বত ‘আমা দাব্লামে।

আমা দাব্লাম জয়ী ডা. বাবর আলীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ডাক্তার প্রতিদিন সম্পাদক এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোরোগ বিভাগের প্রফেসর ডা সুলতানা আলগিন। 

সিএমসি২৮ ডা সুলতানা আলগিন বলেন, সিএমসিয়ানদের জন্য এটা গৌরবের। তাঁকে প্রানঢালা অভিনন্দন জানাই। 

 

ভার্টিকাল ড্রিমারস জানায়,


.
বাবর ইজ ব্যাক! সে আজ সকালে ক্যাম্প-২ থেকে নামা শুরু করে দুপুর সাড়ে ৩টা নাগাদ নেমে এসেছে বেসক্যাম্পে। আমাদের হোম টিম তার সাথে কিছুক্ষণ আগে আলাপ করতে সক্ষম হয়েছে। সে সম্পূর্ণ সুস্থ আছে। এবং ইটজ অফিশিয়াল - আমা দাব্লাম সামিট সফল।
.
গত (২৫.১০.২০২২) সকালে নেপালের স্থানীয় সময় ০৯ঃ০৩ এ বাবর আমা দাব্লাম শীর্ষে পৌঁছে। এরপর বেলা আড়াইটার দিকে সে ক্যাম্প-২ এ পৌঁছে। ক্যাম্প-১ এ ভীড় বেশি থাকার খবর পেয়ে সে টিমের কয়জন সহ ক্যাম্প-২ এ রাত্রি যাপনের সিদ্ধান্ত নেয় - যেই ক্যাম্প হলো সেই বিখ্যাত ইয়েলো টাওয়ারে!
.
এর আগে ২৩শে অক্টোবর তারা বেসক্যাম্প থেকে যাত্রা শুরু করে সাড়ে তিন ঘন্টায় ক্যাম্প-১ এবং ২৪ শে অক্টোবর আরোও সাড়ে তিন ঘন্টায় ক্যাম্প-২ পৌঁছে। ২৫ তারিখ মধ্যরাত ১২ঃ১৫ এ সেখান থেকে শুরু করে সামিট পুশ এবং অর্জন করে এই টেকনিক্যাল চূড়ার শিখরে দাঁড়ানোর সৌভাগ্য।


.
সে আমাদের কিছু ছবি পাঠিয়েছে এবং পালাক্রমে আরোও আসবে ছবি ও ভিডিও। পর্বতের অভিজ্ঞতা জানতে চাইলে বাবর বলে "This is truly the mountaineer's mountain!"
.
আমাদের গর্বিত করার জন্য ধন্যবাদ Babar Ali

 

নেপালের ২২ হাজার ৩৪৯ ফুট উচ্চতার অনিন্দ্য সুন্দর ও অন্যতম টেকনিক্যাল পর্বত হলো ‘আমাদাব্লাম’। খুম্বু এলাকায় অবস্থিত এই পর্বতের অনেকাংশ ৭০ থেকে ৯০ ডিগ্রি ঢালু পথ। এছাড়া বৈরি আবহাওয়াও বিরাজ করে সবসময়। বাংলাদেশ থেকে ইতিপূর্বে এই পর্বত অভিযানে অনেকে অংশ নিলেও সফলতা আসেনি। মঙ্গলবার (২৫ অক্টোবর) নেপালের স্থানীয় সময় ভোর সাড়ে ৯টায় প্রথমবারের মতো এই পর্বত শিখরে ওঠেন তরুণ পর্বতারোহী মো. বাবর আলী।

গত ৯ অক্টোবর বাবর পর্বতারোহণের জন্য নেপালের পথে যাত্রা শুরু করেন। ১১ অক্টোবর প্রয়োজনীয় অনুমতি এবং অন্যান্য প্রস্তুতি সম্পন্ন করলেও বাধা হয়ে দাঁড়ায় আবহাওয়া। বৈরি আবহাওয়ার কারণে কাঠমাণ্ডু থেকে নিয়মিত লুকলার বিমান বন্ধ হয়ে যায় ওই সময়। তাই পরদিন সড়কপথে যাত্রা করেন বেসক্যাম্পের দিকে। কিছুপথ গাড়িতে এবং বাকিপথ হেঁটে ১৯ অক্টোবর পৌঁছান আমা দাব্লাম বেসক্যাম্পে। ২৩ অক্টোবর ভোরে বেসক্যাম্প থেকে যাত্রা শুরু করে ক্যাম্প-১ এ এবং পরদিন উঠে যান ক্যাম্প-২ এ। ২৫ অক্টোবর মধ্যরাত পৌনে ১২টায় শুরু হয় চূড়ায় পৌঁছানোর চূড়ান্ত চেষ্টা। ভোরে তিনি এই পর্বতের শীর্ষে পৌঁছে যান।

হাটহাজারীর বুড়িশ্চর ইউনিয়ন এলাকার বাসিন্দা ডা. বাবর । ২০১৪ সালে প্রতিষ্ঠিত দেশের পর্বতারোহণ ক্লাব ভার্টিক্যাল ড্রিমার্সের প্রতিষ্ঠাতা ও বর্তমান কার্যকরী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্বরত আছেন তিনি।


তিনি বেসিক মাউন্টেনিয়ারিং কোর্স করেন ভারতের নেহেরু ইনস্টিটিউট অফ মাউন্টেনিয়ারিং থেকে। ২০১৪ সাল থেকে প্রায় প্রতিবছর করেছেন এক বা একাধিক পর্বতারোহণ।

আপনার মতামত দিন:


মেডিক্যাল ক্যাম্প এর জনপ্রিয়