ডেস্ক

Published:
2021-05-03 08:41:23 BdST

চট্টগ্রাম মেডিকেলের ডা. নাজনীন মালদ্বীপে বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিনিধি



ডেস্ক
---------------------------
ডা. নাজনীন আনোয়ার গত ৮ এপ্রিল মালদ্বীপে ডব্লিউএইচও’র প্রতিনিধি হিসাবে মনোনীত হন এবং ১৮ এপ্রিল দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ে তার অফিসিয়াল পরিচয়পত্র উপস্থাপন করেন। উল্লেখ্য, তিনিই প্রথম বাংলাদেশি মহিলা যিনি বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার এই পদে ভূষিত হয়েছেন।
ডা. নাজনীন আনোয়ারের মানসিক স্বাস্থ্যসহ জনস্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে ৩৫ বছরেরও বেশি সময়ের অভিজ্ঞতা রয়েছে। পেশাগত এসব অভিজ্ঞতার মধ্যে রয়েছে- স্বাস্থ্য নীতি, পরিকল্পনা এবং সক্ষমতা বিকাশ, অসংক্রামক রোগ, পুষ্টি, ভ্যাকসিন প্রতিরোধযোগ্য রোগ, অক্ষমতা প্রতিরোধ, স্বাস্থ্য গবেষণা এবং উন্নয়ন প্রভৃতি। তিনি দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) আঞ্চলিক অফিস, বাংলাদেশে ডব্লিউএইচও’র কান্ট্রি অফিস এবং বাংলাদেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে সফলতার সাথে কাজ করেছেন।
ডা. নাজনীন আনোয়ার ২০১০ সালে ডব্লিউএইচও’র (হু) কান্ট্রি অফিস বাংলাদেশে জাতীয় পরামর্শক হিসাবে যোগদান করেছিলেন, তারপর ভারতের নয়াদিল্লিস্থ দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ায় হু’র আঞ্চলিক অফিসে প্রথমে টেকনিক্যাল অফিসার এবং পরে মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক আঞ্চলিক উপদেষ্টা হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন।
হু’র দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের সদস্য দেশগুলোয় মানসিক স্বাস্থ্য এবং পদার্থের ব্যবহার নীতি, পরিকল্পনা, কর্মসূচি এবং আইনসভা কাঠামোকে শক্তিশালী করার ক্ষেত্রে তার সফল ট্র্যাক রেকর্ড রয়েছে। অংশীদারিত্বের বিকাশ এবং সম্পদ একত্রিতকরণের মাধ্যমে এই অঞ্চলজুড়ে মানসিক স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থা ও ক্ষমতাকে জোরদার করার লক্ষ্যে বিভিন্ন উদ্ভাবনী পদ্ধতির বিকাশ ও বাস্তবায়নের সুবিধার্থে অবদানের জন্য তাঁকে কৃতিত্ব দেওয়া হয়। জাতীয়তায় বাংলাদেশি ডা. নাজনীন একজন সুযোগ্য চিকিৎসক। জনস্বাস্থ্যে স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী ডা. নাজনীনকে হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয় জনস্বাস্থ্য গবেষণার জন্য প্রশংসাপত্র প্রদান করেছে।
চট্টগ্রামের জন্ম নেয়া ডা. নাজনীন আনোয়ারের বাবা মরহুম মাহবুব আলম আনোয়ার ছিলেন আগ্রাবাদ চেম্বারের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি (বর্তমান এফআইসিসিআই, ফরেন ইনভেস্টমেন্ট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ)। তার এক মামা প্রখ্যাত অধ্যাপক ডা. আমিনুল ইসলাম। আর এক মামা প্রয়াত ইঞ্জিনিয়ার মইনুল ইসলাম কাপ্তাই হাইড্রো পাওয়ার জেনারেশন প্রকল্পের প্রধান প্রকৌশলী ছিলেন।
তার স্বামী জনাব রেহান নিজাম পেশায় একজন ব্যবসায়ী এবং তিনি চট্টগ্রামের বিশিষ্ট ও খ্যাতিমান ব্যক্তিত্ব মরহুম ও.আর. নিজামের কনিষ্ঠ পুত্র।
ডা. নাজনীন আনোয়ার তার বাবা-মা’র ৭ সন্তানের মধ্যে তৃতীয়। দুই ছেলে ও এক মেয়ের জননী ডা. নাজনীন চট্টগ্রামের সেন্ট স্কলাস্টিকা উচ্চ বিদ্যালয়, চট্টগ্রাম কলেজ এবং চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে’র শিক্ষার্থী ছিলেন।

আপনার মতামত দিন:


মেডিক্যাল ক্যাম্প এর জনপ্রিয়