Ameen Qudir

Published:
2020-04-07 09:30:37 BdST

"নিজের মেয়েটার দিকে তাকাতে পারছিলাম না, চোখে পানি এসে পড়েছিলো "


ডা. মোঃ বেলায়েত হোসেন

_______________________

যখন বাসা ছেড়ে যাচ্ছিলাম ডিউটি করার জন্য,খুব মন খারাপ হয়ে গিয়েছিলো।চোখে পানি এসে পড়েছিলো এমন।মেয়েটার দিকে তাকাতে পারছিলাম না,বুকটা ভেঙে যাচ্ছিলো ওর দিকে তাকালেই।ঘরে বাবা মা,স্ত্রী,ভাই আর ভাইয়ের বউ-সবাইকে সেদিন বড্ড বেশি আপন মনে হচ্ছিলো।বার বার এই ঘর ওই ঘর ঘুরে ঘুরে দেখছিলাম,মনে হচ্ছিলো এই বুঝি শেষ দেখা দেখে নিচ্ছি।বিকাল থেকেই যেন ঘড়ির কাটা দৌড়াচ্ছিলো।একসময় ঘড়ি দেখা বন্ধ করে দিলাম,আজান শুনে শুনে সময়ের ধারণা করছিলাম।ঠিক পাচটায় এম্বুলেন্স এসে নিচে দাড়ালো।অর্ধাঙ্গিনী আগেই ব্যাগ সুন্দর করে গুছিয়ে দিয়েছিলেন,রইলো শুধু বিদায় নেবার পালা।আমার শুধু নিজেকে সেই চীনা ডাক্তারের কথা মনে হচ্ছিলো,স্ত্রীর চোখে চোখ রেখে কাদছিলেন,মাস্কে ঢাকা মুখ সেই আকুতির খানিকটা ঢাকতে পারলেও চোখের পানিতে তার সবটুকু আবেগ আর ভালোবাসা উপচে পড়ছিলো।আমি পারছিলাম না স্ত্রীর মুখটা দুই হাতে তুলে চোখে চোখ রাখতে,পাশে যে বাবা মা এসে দাড়িয়েছিলেন।মেয়েকে কোলে নিইনি ইচ্ছে করেই,কোল থেকে নামিয়ে ঘর ছাড়ার মতো মানসিক জোর ছিলো না।

আজকে বাসায় এলাম,প্রায় পাচ দিনের টানা ডিউটি শেষ করে।আসার পুরো রাস্তা আমার কি যে আনন্দ হচ্ছিলো,মনে হচ্ছিলো আমি বুঝি বাসায় ফিরছি আজ বহু বছর পর।মেয়েটা আমার রাগ করে ভিডিও কলে দেখা দিতো না,বাবা নেই কেন?ওকে দেখবো,আমার আর তর সইছিলো না।

অবশেষে মেয়ের সাথে দেখা হলো।মেয়ে তার স্বর্গীয় হাসি মুখে ফুটিয়ে আমার কোলে ঝাপিয়ে পড়লো।আমার মনে হলো,আমি পাইলাম।আমি আমার কন্যাকে পাইলাম।আমি পৃথিবীতেই স্বর্গ সুখের অনেকখানি পেয়ে গেলাম।আলহামদুলিল্লাহ।সব কিছুর জন্য শুকরিয়া আল্লাহ'র দরবারে।
__________________

ডা. মোঃ বেলায়েত হোসেন
শাহাবুদ্দিন মেডিকেল কলেজ
০২ ব্যাচ।

আপনার মতামত দিন:


মেডিক্যাল ক্যাম্প এর জনপ্রিয়