Ameen Qudir

Published:
2019-07-01 21:53:59 BdST

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে এতগুলি বাচ্চাদের কে চিকিৎসা দিবেন? কে দেবে বাঁচার আশ্বাস!


 

 

ডা. ফয়সল ইকবাল চৌধুরী
সাধারণ সম্পাদক, বিএমএ , চট্টগ্রাম

_________________________

কে? এই ডা একেএম রেজাউল করিম, সাধারন সম্পাদক, স্বাচিপ, কক্সবাজার জেলা শাখা, সিলেট ওসমানি মেডিকেল কলেজের সাবেক মুজিব সৈনিক।
আমলারা যারা এই আদেশটি করেছেন, হেমাটো অনকোলজি বিভাগ তো রাংগামাটি মেডিকেল কলেজে নাই, রেজা ভাই সেখানে কি করবেন? আর চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে এত গুলি বাচ্চাদের কে চিকিৎসা দিবেন? আপনাদের মত ব্যাকবেঞ্চাররা, যাদের কে এসএসসি, এইচএসসি তে পিছেন ফেলে এসেছিলাম তারা একটু জবাব দিবেন। নতুবা চট্টগ্রামের চিকিৎসক সমাজকে বাধ্য করবেন না বাঁকা পথে হাটতে।

বাংলাদেশে ৩ জন পেডিয়াট্রিক হেমাটোলজি এন্ড অনকোলজি এর অধ্যাপকের একজন অধ্যাপক একেএম রেজাউল করিম স্যারের এই অনাকাঙ্ক্ষিত,অন্যায্য,অযৌক্তিক বদলি দ্রত প্রত্যাহার করা হোক।আশা করি,আমার নেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রাম বিভাগের একমাত্র স্বয়ংসম্পূর্ণ হাসপাতাল চমেকহার প্রয়োজনীয়তা ও চট্টগ্রাম বিভাগের মানুষের প্রয়োজনীয়তা বিবেচনা করে এ ব্যাপারে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহন করে বদলি আদেশ প্রত্যাহারের নির্দেশ দিবেন।

 

 

নিচের লেখাটুকু রেজা ভাইয়ের ওয়াল থেকে,

_________________________

 

প্রিয় সহকর্মীবৃন্দ,
আমার অনাকাংখিত বদলী নিয়ে কিছু লিখার ইচ্ছা একেবারেই ছিল না।

বদলী হবে আমি জানতাম, কারন ক্রিকেটার মাশরাফি ইস্যুতে যে ৬ জনকে শোকজ করা হয়েছে তাদের দু জনকে একমাস আগেই দূর্গম স্থানে বদলী করা হয়েছে।

দুজন সহযোগী অধ্যাপকের বদলীর বিষয়টি জানার পর বিএমএ মহাসচিব, স্বাচিপ সভাপতি ও মহাসচিবের সাথে সাক্ষাত করে আমরা বদলী বন্ধের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ করি। তারা কি করেছেন জানি না, তবে মন্ত্রনালয়ের ওয়েভসাইটে গতকাল বদলির আদেশ পেলাম।

সরকারী চাকরীতে বদলী স্বাভাবিক প্রক্রিয়া, কিন্তু যে পরিস্থিতিতে আমার বদলি হয়েছে তা স্বাভাবিক নয়। বর্তমান বাংলাদেশ হেলথ সার্ভিসে হাজার বিশেক চিকিৎসক কর্মরত আছেন, তাদের মধ্যে পেডিয়াট্রিক হোমটোলজি ও অনকোলজি বিষয়ে মাত্র ৩ জন অধ্যাপক চাকুরীরত আছেন। আমি চট্টগ্রাম মেডিকেল এ যোগ দেবার পর পেডিয়াট্রিক হেমাটোলজি ও অনকোলজি বিভাগ সত্যিকার কার্যক্রম শুরু করে। চট্টগ্রাম এলাকার শত শত শিশু ক্যান্সার ও রক্তরোগাক্রান্ত শিশু সরকারী হাসপাতালে সেবা পাচ্ছে। শিশু ক্যান্সার আক্রান্তদের ঢাকা বা বিদেশগামীতা অনেকাংশেই হ্রাস পেয়েছে। বর্তমানে শতাধিক শিশু ক্যান্সার রোগী আমার অধীনে চিকিৎসাধীন আছে। এমতাবস্থায় আমার বদলী এই শিশুদের জীবনকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলবে।

বদলির আদেশ পেয়ে স্বাভাবিকভাবেই আমি কোন নেতার কাছে যাই নি। কিন্তু কিছু অনলাইন এবং প্রিন্ট মিডিয়া যেভাবে খবরের শিরোনাম করে ফলাও ভাবে প্রচার করছে তাতে কিছু লেখা প্রয়োজন মনে করলাম।

 

চিকিৎসা আমার পেশা এবং নেশা। আমার জীবনের সিংহভাগ সময়ই গেছে এই পেশায় উৎকর্ষ সাধনের চেষ্টায়। তাই চিকিৎসকদের জন্য আমার আমৃত্যু ভালবাসা থাকবে। কেউ চিকিৎসক সমাজকে অন্যায় আক্রমন করলে স্বাভাবিকভাবেই আমার মন ভারাক্রান্ত হবে এবং নিজের সর্বশক্তি দিয়ে প্রতিবাদ করব।

প্রিয় চিকিৎসক ভাই বোনেরা, আমি কোন সরকার বা রাষ্ট্রবিরোধী কাজ করি নি, কোন দূর্ণীতি করিনি, কোন সন্ত্রাসীকাজে লিপ্ত হই নি। আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ আমি সাংসদ মাশরাফি ভার্সেস নড়াইলের চিকিৎসকদের ইস্যুতে অন্য এক চিকিৎসকের পোস্টে একটি কমেন্ট করেছি। আমাকে শোকজ করা হয়েছে, যার উত্তর আমি দিয়েছি। চাকুরীবিধি অনুযায়ী আমি কোন শাস্তিযোগ্য অপরাধ করিনি।

তারপর ও কেন এই বদলী তার বিচারের ভার সময়ের উপর দিলাম।

©অধ্যাপক একেএম রেজাউল করিম
পেডিয়াট্রিক হেমাটোলজী এন্ড অনকোলজী, এসওএমসি -২২ তম ব্যাচ, ১১ শ বিসিএস

আপনার মতামত দিন:


মেডিক্যাল ক্যাম্প এর জনপ্রিয়