Ameen Qudir

Published:
2019-06-25 10:47:30 BdST

হাসপাতালে বহিরাগত গুন্ডামি চলতে থাকলে উপজেলা হাসপাতালে যাবেন কিসের নিরাপত্তায়!



ডেস্ক
____________

জেলা, উপজেলা ও টারশিয়ারী
হাসপাতালে বহিরাগতদের গুন্ডামি চলতে থাকলে উপজেলা হাসপাতালে যাবেন কিসের নিরাপত্তায়! ডাক্তাররা প্রাণ দিতে সেখানে কেন যাবেন। এতে ক্ষতিগ্রস্থ হবে দেশের স্বাস্থ্য সেক্টর।
বরগুনায় ডাক্তারের ওপর গুন্ডাদের হামলার পর দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রতিবাদ সংহতি সমাবেশে বক্তারা একথা বলেন।
পাবনা থেকে সাংবাদিকরা জানান, জানান, ‘চিকিৎসকদের নিরাপদ কর্মস্থল চাই, ডাক্তার নির্যাতনে কোনো আপস নাই’- এ স্লোগানকে সামনে রেখে বরগুনায় চিকিৎসক ডা. মশিউর রহমানের ওপর দুর্বৃত্তদের হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) পাবনা জেলা শাখা। এ ঘটনার প্রতিবাদে পাবনা সদর হাসপাতালের ফটকের সামনে রোববার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

পাবনা জেলা বিএমএর সাধারণ সম্পাদক ডা. আকসাদ আল মাসুদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য দেন পাবনা জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. রঞ্জন কুমার দত্ত। এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএমএর দপ্তর সম্পাদক ডা. বিপ্লব কুমার সাহা, ডা. আহমেদ তাউস, ডা. সাইফুদ্দিন এহিয়া, ডা. শাহিন ফেরদৌস শানু, ডা. ফয়সাল জিন্নাত, ডা. সায়েমুল, ডা. জাকারিয়া খান মানিক, ডা. মাহমুদুর রশিদ পলাশ, পাবনা মেডিকেল কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ডা. অদ্বিতীয় দে প্রমুখ।

একজন কর্তব্যরত চিকিৎসকের ওপর ন্যক্কারজনক এ হামলার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে বক্তারা বলেন, সরকার যদি চিকিৎসকদের নিরাপত্তা দিতে না পারে, চিকিৎসকদের যদি সমাজ সম্মান দিতে না পারে তাহলে এ দেশে কীভাবে ভালো চিকিৎসা সম্ভব। তারা বলেন, বর্তমান সরকারের স্বাস্থ্য খাতের যে অর্জন সেটা দেশে এবং আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত। আর এসব কিছুই এসেছে চিকিৎসক আর স্বাস্থ্যকর্মীদের হাত ধরে। মানববন্ধনে জেলার চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী ও মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে।

আপনার মতামত দিন:


মেডিক্যাল ক্যাম্প এর জনপ্রিয়