Ameen Qudir

Published:
2019-05-13 22:46:22 BdST

'নড়াইলের পর আশঙ্কা ছিল, হাসপাতালে খবরদারির দুর্বৃত্তায়ন বাড়বে:আশঙ্কা সত্যি হতে চলেছে'


হাসপাতালের মধ্যে অনভিপ্রেত খবরদারি সর্বত্র চলছে। চলছে হামলা , গুন্ডামি। এটা বন্ধ না হলে ক্ষতিগ্রস্থ হয় রোগীরাও। ফাইল ছবি।

 

ডা. গুলজার হোসেন উজ্জ্বল
_________________________________

নড়াইলের ঘটনার পর আশংকা করেছিলাম হাসপাতালে খবরদারির নামে দুর্বৃত্তায়ন বেড়ে যাবে৷ আশংকা সত্যি হতে চলেছে। আমি বিশ্বাস করি মাশরাফি সজ্জন, হৃদয়বান, দায়িত্বশীল ব্যক্তি। তিনি হয়ত না বুঝেই কাজটি করে ফেলেছিলেন। হয়ত ভিডিওটিও তাঁর অনিচ্ছাকৃত। কিন্তু যেসব পাতিনেতা নামের দুর্বৃত্তরা হাসপাতালে এসে মাস্তানি করে এই ঘটনার পর তারা বিপুল উদ্যমে কাজটি করবে। এর সাথে যুক্ত হয়েছে মব ট্রায়াল।

ঘটনার পর স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের পদক্ষেপ, প্রতিমন্ত্রীর প্রকাশ্য জনসভায় চিকিৎসকদের দোষারোপ এই পরিস্থিতিকে আরো জটিল করে তুলেছে।

ডাক্তারদের শতেক দোষ আছে একথা সত্যি। কিন্তু সেটা ধমক ধামক দিয়ে শুধরানো যাবেনা। এখানে যথেষ্ট পরিপক্কতা লাগবে। সিস্টেম দিয়েই ডাক্তারদের বাঁধতে হবে। একটা বুদ্ধিবৃত্তিক সমাজের অধঃপতন বুদ্ধিবৃত্তি দিয়েই ঠেকাতে হয়৷ সমস্যাটি জটিল। সমাধান করতে হবে ঠান্ডা মাথায়। কারণ এখানে নীতিহীনতার চেয়ে বেশি আছে সিস্টেমের দুর্বলতা।

ফেসবুক স্ট্যটাস দেখে বিচলিত, বিহবল হয়ে ডাক্তারদের এক হাত নেবার চেষ্টা করলে পরিস্থিতি আরো ঘোলাটে হবে। হচ্ছেও।

আমাদের মাথায় রাখতে হবে এদেশের আমজনতাও শতভাগ শুদ্ধ নয়। রাজনীতি, প্রশাসন কোনটাই নয়। হাসপাতালে ডাক্তারদের নিরপাত্তাহীনতা এক জলন্ত সত্য। কর্মক্ষেত্রে খুন ধর্ষন পর্যন্ত হয়েছে।

যাইহোক, ডাক্তার- জনতা- রাজনীতিবিদদের ত্রিমুখী সংকটের এই প্রেক্ষাপটে যুক্ত হয়েছে সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজে জনৈক নারী চিকিৎসককে প্রকাশ্যে রেপ করার হুমকি প্রদান।

হুমকি দিয়েছেন একজন সেবা প্রত্যাশী জনতা যিনি একজন ছাত্রলীগ নেতা।

সবচেয়ে দুঃখজনক হলো এই ঘটনার পর ডাক্তারদের পক্ষ থেকে মামলা দিতে গেলে থানায় মামলা নেওয়া হয়নি। অনেকটা দরিদ্র দিনমজুরের কন্যা চেয়ারম্যানের পুত্র দ্বারা ধর্ষিত হলে যেমন পুলিশ মামলা নিতে চায়না সেরকম।

আমাদের স্বাস্থ্যপ্রতিমন্ত্রী বলেছেন তিনি শোষিতের পক্ষে। এখন প্রশ্ন শোষিত কারা? কাকে শোষক নাম দিয়ে তিনি কাঠগড়ায় দাঁড় করাবেন?

সিলেটের ঘটনায় মন্ত্রণালয় এবং আমাদের চিকিৎসক নেতারা কি পদক্ষেপ নেন দেখার অপেক্ষায় রইলাম।
আমি আশাবাদী মানুষ। আমি বিশ্বাস করি আমাদের স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী একজন সংবেদনশীল মানুষ। কারণ তিনি একজন চিকিৎসক। তিনি একজন সজ্জন পিতার সন্তান।
নতুন দায়িত্ব, ফেসবুকে সাধারণ চিকিৎসকদের বিরূপ সমালোচনা হয়তো তাঁকে সাময়িক বিচলিত করেছে কিন্তু ঠিক কাজটিই তিনি করবেন।

আমি আশা ছাড়িনি। অপেক্ষায় রইলাম। সবাইকেই দায়িত্বশীল ও ধৈর্যশীল হয়ে পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে হবে। ইটস হাইটাইম।
___________________________

ডা. গুলজার হোসেন উজ্জ্বল । প্রখ্যাত সঙ্গীতশিল্পী ও সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, রক্তরোগ।

আপনার মতামত দিন:


মেডিক্যাল ক্যাম্প এর জনপ্রিয়