ডা শাহাদাত হোসেন

Published:
2022-07-02 11:48:09 BdST

ক্ষীণ কটি লাভের স্পৃহা চঞ্চল হলে




অধ্যাপক ডা. শুভাগত চৌধুরী
বাংলাদেশের স্বাস্থ্যাচার্য
_________________________

ক্ষীণ কটি লাভের স্পৃহা চঞ্চল হলে।

এত শ্রম করি তবু মেদ কমেনা
১। খেতে হবে পেটের মেদ কমানোর জন্য অবশ্য সে রকম স্বাস্থ্য কর।
চাই পর্যাপ্ত আমিষ আর আঁশ
বাইরের ভাজা ভুজি মানে তেলে ভাজা , মিষ্টি , সব কমিয়ে দিলে পারলে ছেড়ে , রসনা সংযত করে আর অবশ্য সে সব দোকানে আর রেস্তোরা যেখানে সে সব আছে সেদিকে নি গিয়ে খাবেন
ওটস, বাদাম, ডিম , সবুজ শাক সবজি ডাল , ফল, খাবেন। মাছ খেতে পারেন । আর কচি মাংস । তবে প্রতিদিন নয়।

২। রোজ দিন ব্যায়াম।
হাঁটাহাঁটি , দৌড় , সিঁড়ি দিয়ে উঠা নামা, সাঁতার , পালাটেস।

৩। এক সঙ্গে বেশি খাবেন না
অবশ্য কম ক্যালরি খা বার আর ৩-৪ ঘণ্টা পর কম কম করে খাবেন

৪। প্রচুর পানি পান করুন।
অন্তত ৬-৮ গ্লাস পানি । শুধু পানি । চিনি জল , কোমল পানীয় , সোডা নয় । ঘরে বানিয়ে ফলের রস, সুপ , ঘোল ।

৫। কমাতে হবে মানসিক চাপ

স্ট্রেস কমাতে ব ব্রিদিং ব্যায়াম, ধ্যান , প্রানায়াম, ইয়গা। বন্ধুদের সঙ্গে আলাপ আড্ডা , হাসি প্রচুর।


২.

আমরা ওজন কমাতে আহারের অভ্যাসে ইচ্ছে মত পরিবর্তন করি এতে বরং ক্ষতি হয় , সুষম পরিমিত আহার আর কোন বেলার খাবার বাদ দেয়া চলবেনা

প্রাতরাশ বিপুল এরপর কমতে থাকবে আহারের পরিমান মধ্যাহ্ন আর হালকা রাতের খাবার । আজকাল বলা হচ্ছে তিন এলা না খেয়ে ৫ বেলা কম কম করে খান
এতে স্বাস্থ্য আর বিপাক থাকে ঠিক থাক। তাই কি বুঝলাম ? ভারি প্রাতরাশ আর হাল্কা রাতের খাবার । আমরা রাতের খাবার খাওয়া উচিত রাত ৮ টার মধ্যে এরপর দু ঘণ্টা পর ঘুম আর এর মধ্যে হালকা হাঁটা কাজকর্ম তাত্তে খাবার হজম হবে ভাল। রাতে হাল্কা খেলে হজমেও সুবিধা । আর ওজন কমাবে তবে কখনও আহার বাদ দেবেন না , রাতে না খেয়ে ঘুমিয়ে পড়া বদভ্যাস। প্রাতরাশ ভারি আর সুষম কারন দিনের কাজের শক্তি আর উদ্যম আসে প্রাতরাশ থেকে।

আপনার মতামত দিন:


কলাম এর জনপ্রিয়