রাতুল সেন

Published:
2020-05-31 12:13:20 BdST

করোনায় দেশের ৩০-৪০ ভাগ আক্রান্ত:এক মাসের মধ্যে আরো উন্নতি : ড. বিজন


 

ডেস্ক
_______________________

করোনাভাইরাসে দেশের ৩০ থেকে ৪০ ভাগ মানুষ ইতোমধ্যেই আক্রান্ত হয়েছেন বলে মনে করেন তিনি। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের করোনা শনাক্তকরণ কিট উদ্ভাবক বিজ্ঞানীর ধারণা, দেশে করোনার তীব্রতা তুলনামূলকভাবে কমে গেছে। আগামী এক মাসে করোনা ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে হার্ড ইমিউনিটি গড়ে উঠবে, যাতে পরিস্থিতির উন্নতি ঘটতে পারে।
৩০ মে, শনিবার রাতে একটি সংবাদমাধ্যমের ফেসবুক লাইভে আলোচনায় আসেন বিজন কুমার শীল।
দেশজুড়ে আলোচিত গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র আবিষ্কৃত করোনা শনাক্তের কিটের উদ্ভাবক এই অধ্যাপক ড. বিজন কুমার শীল। তিনি গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের অণুজীব বিজ্ঞান বিভাগের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

আলোচনায় এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি আমাদের দেশে ইতোমধ্যে ৩০ থেকে ৪০ ভাগ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এবং তারা সুস্থ হয়ে উঠেছেন তারা জানেন না। হয়ত তাদের একটু জ্বর হয়েছে, দুর্বলতা অনুভব করেছে।’

তিনি বলেন, করোনা কাউকে ছাড়বে না। আপনি যতই লুকিয়ে থাকেন করোনা আপনাকে, আমাকে আক্রান্ত করবে। ইউরোপের তুলনায় বাংলাদেশের মানুষের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বেশি। তুলনায় ইউরোপের মানুষের ইমিউন ব্যবস্থা 'স্ল্যাগিশ'।

তিনি আরো বলেন, ইউরোপে যখন করোনা আক্রান্ত করে তখন তাপমাত্রা কম ছিল এবং বাতাস চলাচলও কম ছিল।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের তীব্রতা ৩০ থেকে ৪০ ভাগ কমে গেছে। আগামী এক মাসের মধ্যে পরিস্থিতির আরো উন্নতি ঘটবে বলে তিনি জানান।

করোনাভাইরাস যদি জানুয়ারিতে আসত তাহলে এর তীব্রতা আরো বেশি হতো জানিয়ে তিনি বলেন, মার্চে যেহেতু আমাদের দেশে করোনা এসেছে, সে কারণে এখানে এর তীব্রতা কম ছিল।

বিজন কুমার শীল বলেন, হার্ড ইউমিনিটিতে পৌঁছাতে হলে ৮০ ভাগ মানুষকে আক্রান্ত হতে হবে। যা আগামী এক মাসের মধ্যে ঘটতে পারে বলে তিনি মনে করছেন।

____________________________

AD...

আপনার মতামত দিন:


কলাম এর জনপ্রিয়