Ameen Qudir

Published:
2020-03-18 15:38:25 BdST

অচিহ্নিত সংক্রমণের জন্য বাড়ছে করোনা সংক্রমণ


ডা: শুভাগত চৌধুরী
বাংলাদেশের স্বাস্থ্যসেবার শুভচিন্তক
_________________________

কেন বাড়ছে করোনা সংক্রমণ দ্রুত ।
গবেষণা বলছে অচিহ্নিত সংক্রমণ এর জন্য দায়ি । করোনার বিস্তার এক্সপোনেনশিয়েল । চীনে ৮৬ শতাংশ সংক্রমণ ছিল মৃদু আর তা ছিল অচিহ্নিত জানুয়ারী পর্যন্ত SCIENCE জরনালে প্রকাশিত প্রবন্ধ ।
অর্ধেক সংক্রমণ অচিহ্নিত বলেন কলাম্বিয়া বিশ্ব বিদ্যালয়ের অধ্যাপক জেফ্রি শারমেন ।
"যেহেতু আরও অনেক এরকম অচিহ্নিত সংক্রমণ রয়েছে এই অচিহ্নিত সংক্রমণের ভার হল প্রাদুর্ভাব এর বাড়ন আর বিস্তার এর চালিকা শক্তি ।" বলেন শারমেন ।
করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে প্রথম সারির যোদ্ধা ডাক্তার নার্স আর স্বাস্থ্য কর্মী আর টেকনিশিয়ান দের জন্য ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম আশা করি সত্বর পৌঁছে যাবে তাদের কাছে আর এদেরকে না বাচিয়ে রাখতে পারলে গন মানুষের প্রান কেমন করে বাঁচবে ।

২.
COVID19 : বিশ্ব মারী হলে করতে হয় কোয়ারেনটাইন , আইসলেশন আর সো শ্যাল ডিসটেনশিং
কোয়ারেনটাইন কোন ভীতিকর ব্যাপার নয় , জনগনের সুরক্ষার জন্য এই ব্যবস্থা বলেন সঙ্ক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ স্তেভেন গরদন
ছোঁয়াচে রোগ বিস্তার রোধে এটি করতে হয় । এটি তাদের জন্য যারা হয়তো বিদেশ থেকে আসছেন যাদের উপসর্গ নেই কিন্তু আক্রান্ত দেশ থেকে এসেছেন এমন কেউ যাতে অজ্ঞাতে অন্যদের সংক্রমিত করতে না পারেন
আইসলেশন এক্ টু ভিন্ন । যারা আক্রান্ত তাদের জন্য এই অন্তরন বা বিচ্ছিন্ন করন । সক্রমন যাতে ছড়াতে না পারা । আক্রান্ত ব্যক্তিকে সুস্থ মানুষ থেকে বিচ্ছিন্ন করা / ।

কোয়ারেনটাই ন হলে কি করতে হয় সি ডি সি র পরামর্শ
১। খুব বেশি প্রয়োজন না হলে গৃহ ছেড়ে বেরুবেন না
এর মানে কোন কাজ নয় , স্কুল নয় , উপাসনালয়ে নয় কোন অনুষ্ঠানে নয় ।
২। স্থানীয় স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রের সাথে মোবাইল , ফোন মেইল এ যোগাযোগ করুন । খুব প্রয়োজনে সরাসরি সাক্ষাত ।
৩। পোষা প্রাণীর সংস্পর্শ ত্যাগ
৪। নিজের তৈজস জিনিষ পত্র আলাদা ।
ডিশ , থালা । পানির গ্লাস । টাওয়েল । কাপ । বে ডিং । সব আলাদা । আলাদা টয়লেট আরও ভাল
৫। ধোবেন , আবার ধুয়ে ফেলা আবার ধোয়া ।
এ সময় ব্যক্তিগত স্বাস্থ্য বিধি খুব দরকার , ঘরেও। হা বার বার সাবান জল দিয়ে ধোয়া । হাচি কাসি দেবার সময় টিস্যু নেবেন তা না হলে হাতের ভাজ করা কনুই তে কাশবেন ।
অন্যান্য সুরক্ষা
সোশ্যাল দূরত্ব বজায় রাখা ।
বড় সমাবেশ এড়ানো , । আপনার চারপাশে মানুশ থাকলে এদের থেকে ৬ ফিট দূরে থাকুন ।
শান্ত থাকুন ।
ভয় পাবেন না । জানুন হাল নাগাদতথ্য। এ বিষয়ে অবহিত হন । তাহলে ভয় কমবে
সরকারের সাথে সহযোগিতা করুন , তাদের নির্দেশ পরামর্শ মানু করুন । সংক্রমণ অনেক হবে নিয়ন্ত্রিত।
৩.
গবেষকরা দেখেছেন সনাক্ত করোনা রোগীর থেকে অসনাক্ত রোগী বেশি এজন্য ডাক্তার নার্স আর স্বাস্থ্য কর্মী রা এদের মুখোমুখি হতেই হয় অন্যরা যেভাবে নিজ সুরক্ষা করতে পারেন তাদের তা করার সুযোগ কম যদিনা তাদের সুরক্ষা সরঞ্জাম না থাকে তাই তাদের সুরক্ষা জরুরী তাই ডাক্তার আর কেয়ার গিভার দের সুরক্ষা দেয়া জরুরি তা না হলে প্রথম সারির লড়াকুরা সুস্থ না থাকলে জনগণ স্বাস্থ্য সেবা থেকে বঞ্চিত হতে পারে ।
৪. বর্তমানে একটি কার্যকর উপায় করোনা ঠেকাতে
SOCIAL DISTANCING
সামাজিক দূরত্ব বিধান
১। ঘনিষ্ঠ সংস্পর্শে আসা মানুষের সংখ্যা কমান
২। অন্য লোক থেকে ২ মিটার ৬ ফিট দূরত্ব বজায় রাখা
৩। ঘরের বাহিরে অপ্রয়োজনীয় ভ্রমন কমান ।
৪। এসব উপায় অবলম্বন করলে COVID 19 বিস্তার কমবে ।
গবেষকরা দেখেছেন লোক জন যদি কম সঞ্চলন শীল হয় আর পরস্পর সম্মুখ যোগাযোগ কম করে তাহলে ভাইরাস বিস্তারের সুযোগ কম পায়

আপনার মতামত দিন:


কলাম এর জনপ্রিয়