Ameen Qudir

Published:
2020-01-21 01:37:33 BdST

মাদকের মত মগজকে আসক্ত করে সুগার


 


অধ্যাপক ডা. শুভাগত চৌধুরী
বাংলাদেশের স্বাস্থ্য সাহিত্যের পথিকৃৎ
_____________________

সাম্প্রতিক গবেষণায় দেখা যায় ১২ দিন পর সুগার বদলে ফেলে মগজের পুরস্কার লাভের চেতনা মাদকের মত ।
আমরা যখনই নতুন কিছু শিখি বা কোনও আনন্দ ময় অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হই ,মগজের রিওয়ার্ড সিস্টেম হয় উদ্দীপ্ত । প্রকৃতি জাত মগজ রাসায়নিকের সহায়তায় অনেক গুলো মগজের এলাকা পরস্পর সংযোগ স্থাপন করে , আমরা নতুন কিছু শিখি আর যেসব আচরন আমাদের স্বাস্থ্য আর কুশল বাড়ায় সেসব আচরন পুনঃ পুনঃ করি ।
এর সাথে জড়িত নিউরো ট্রান্সমিটার ডোপামিন , রিওয়ার্ড সিস্টেম থেকে বিশ্লেষণ পাই মানুষের উৎকৃষ্ট কিছু অভিজ্ঞতার যেমন প্রেমে পড়া , যৌন আনন্দ বা বন্ধুদের সঙ্গে সময় কাটানো ।
তবে কিছু পদার্থ যেমন মাদক মগজের রিওয়ার্ড সিস্টেমকে হাইজ্যাক করে , কৃত্রিম ভাবে উদ্দিপ্ত করে একে , আর মগজকে বার বার নির্দেশ দিতে থাকে মগজকে আনন্দ অভিলাষী আচরণ পুনঃ পুনঃ করার জন্য ,আসক্তির পেছনে এই হল রহস্য ।
সুগার কি তেমন এক পদার্থ ? সুগার গ্রহনের প্রতি অতি ব্যকুলতার ব্যখা কি ?
আমেরিকার একজন বিজ্ঞানী থিওদর রেন্দলফ ১৯৫০ সালে খাদ্য আসক্তি নামে একটি শব্দ বলেন কিছু খাদ্য যেমন দুধ , ডিম আলুর প্রতি আসক্তি ব্যখ্যা করতে গিয়ে ।
ডেনমার্কের বিজ্ঞানী মাইকেল উইন্তার দাফ বলেন সম্প্রতি সুগার আমাদের মগজের রিওয়ার্ড সিস্টেমের জটা জালে ফেলে প্রভাব , দেখা গেল শুকরের মধ্যে পরীক্ষাগারে ।উইন্তার দাফ ব্লেন ১২ দিন অনবরত সুক্রজ দ্রবন গ্রহনের পর মগজের ডোপামিন আর অপয়ে ড সিস্টেমে এল বড় পরিবর্তন । মানুষের ভাল লাগা আর আনন্দের সঙ্গে যুক্ত অপয়েড সিস্টেম উদ্দীপ্ত হয়ে যায় সুগার গ্রহণের পর পর ই ।
মগজের কিছু এলাকা যেমন স্ত্র্য্য়য়য়া টা ম , নিউক্লিয়াস একুবেন্স , থ্যালামাস , এমিগ ডে লা , সিঙ্গুলেট কর্টেক্স , প্রিফ্রন টাল কর্টেক্স এ পরিবর্তন এসে যায় সুগার গ্রহনের পর পর ।
গবেষক রা বলেন চিনি আমাদের মগজের রিওয়ার্ড সিস্টেমের সার্কিট এমন ভাবে বদলে দেয় যা ঘটে মাদক গ্রহনের পর । সুগারকে হেলথি ফু ড বলা সঙ্গত নয় । মানুষের মধ্যে সরাসরি এই পরীক্ষা আয়োজন করা হচ্ছে ।
তবে সুগার ছাড়ুন এই শ্বেত বিষ আমাদের কিছুই দেয়না অনাবশ্যক আনন্দ দেওয়া ছাড়া।

আপনার মতামত দিন:


কলাম এর জনপ্রিয়