Dr. Aminul Islam

Published:
2021-09-08 09:43:12 BdST

বন্য পশু ভক্ষণ থেকে মানুষকে বিরত করা গেলে আরেকটি অতিমারি থামানো যাবে


লেখক

 

অধ্যাপক ডা শুভাগত চৌধুরী
বাংলাদেশের স্বাস্থ্যাচার্য
_____________________


বন্য পশু আহার করা থেকে মানুষকে নিবৃত্ত করার জন্য গবেষণা ।
গবেষকরা বলছেন বন্য পশু ভক্ষণ করা থেকে মানুষকে বিরত করলে বা এর গ্রহণ কমালে আরেকটি অতিমারি থামানো যাবে ।
তবে এজন্য ভোক্তাদের প্রভাবিতে করা জটিল ।
এশিয়াতে এমনপশু ভক্ষন বিশেষ গ্রুপে রয়েছে।
পিয়ার রিভিউ করা জরনাল নেচার ইকলজি ইভো লিউশন "বলা হল এ কথা কি করে এই ভক্ষণ কমানো যাবে তা স্পষ্ট নয়।
কি জন্য কিছু মানুষ এসব বুনো জন্তুর মাংস খেতে লালায়িত এর উত্তর নেই।
এজন্য গবেষকরা হংকং মায়ানমার , থাইল্যান্ড , ভিয়েতনাম জাপানের ৫০০০ জন মানুষের উপর সমিক্ষা করেন মার্চ ২০ তারা গত এক বছর বুনো স্তন্যপায়ি , পাখি সাপ ভক্ষন করেছিলেন কিনা , করোনার জন্য তাদের কি আচরন বদলেছে আর আগামিতে কি হবে এমন প্রশ্ন । করোনা আসাতে এ সম্বন্ধে জানাতে এমন আচরণকমেছে।
জন্তু থেকে মানুষে লাফিয়ে পড়া জীবাণুর মুল কারণ বন্য পশু ব্যবসা। উচ্চ ঝুকি বাজারের পরিস্থিতি এর ড্রাইভিং চাবি।
হু বলেন মানুষের মধ্যে ৭০% উদ্ভুত সংক্রামক রোগের উৎস হল পশু বিশেষ করে বন্য পশু।
খাবার বাজারে বন্য পশু বিক্রি বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন হু।
বন্য পশুর ব্যবসা আর আগামি অতিমারির সম্পর্ক ঘনিষ্ঠ । আর অয়ান হেলথ হল মানুষ, পশু আর পরিবেশ স্বাস্থ্য পরস্পর সম্পর্কিত ।

আপনার মতামত দিন:


মানুষের জন্য এর জনপ্রিয়