Dr. Aminul Islam

Published:
2020-10-23 21:14:15 BdST

৯৬ বছর বয়সে ৯৮ শতাংশ নম্বর পেয়ে পরীক্ষায় প্রথম


 

 

অধ্যাপক ডা. শুভাগত চৌধুরী
________________________

শেখার কোন বয়স নাই।
৯৬ বছর বয়সে কারথায়ানি আম্মার মনে হলে এবার লেখা পড়ার সময় হল । সবাই হাসে , বলে এ কি সম্ভব। কিন্তু তিনি সব ধারনা মিথ্যে প্রমাণ করলেন। । কারথায়ানি যিনি জীবনে স্কুলে যান নি; তিনি পরীক্ষায় প্রথম হলেন পেলেন ৯৮ % নম্বর। শেখা হল ব্যক্তিগত বিকাশের সঙ্গে অন্তরনিহিত সম্পর্ক । শেখা বন্ধ হলে বেড়ে উঠা বন্ধ হয়ে যায় । বার বার আমরা দেখেছি সব বয়সের সব পটভূমিকার মানুষ নিজের শিক্ষা দীক্ষার উন্নতির স্বপ্ন লালান করেন । তারা প্রমাণ করেন যে ইচ্ছাশক্তি প্রবল হলে যে কোন বয়সে শেখা যায় । এমন একজন অনুপ্রেরনা দাত্রী হলেন কেরালার কারথায়ানি।

১৯২২ সালে জন্ম তার জীবনে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা সমাপ্ত করার সুযোগ পাননি । পরিবারের দায়িত্ব হরন করে নিল সব তিনি বাধ্য হলেন লেখা পড়া ছেড়ে দিতে । বিয়ে হবার পর এর পর তার ছটা বাচ্চা হল , তার পড়া শুনা থেকে আরও দূরে চলে যেতে হল। কিন্তু তাঁর কন্যা তাঁকে তার শিক্ষা সম্পূর্ণ করতে অনুপ্রানিত করল । কারথায়ানির কন্যা কয়েক বছর আগে তার দশম শ্রেনি সম মান   দিয়েছিলেন ;
সেও এক মহা অনুপ্রেরণাদায়ক ঘটনা। সেই কন্যাই মাকে অনুপ্রেরণা দেন । ৯৬ বছর বয়সে কারথায়ানি কেরালা লিটারেসি মিশন স্কুল পরিক্ষায় টপ মার্ক পেয়ে টপকেছেন আর পুরো জাতির জন্য হলেন অনুপ্রেরনা। ১০০ বছর বয়সে কারথায়ানি দশম ক্লাস সমমান পেরুতে চাইলেন । তিনি হলেন কমন ওয়েলথ গুড উইল লারনিং দূত , ৫৩ দেশের প্রতিনিধিত্ব করলেন।
নারী দিবসে প্রেসিডেন্ট রাম নাথ কোবিন্দ তাকে দিলেন নারীশক্তি পুরস্কার ।প্রধান মন্ত্রি মোদী সঙ্গে আলাপনে তিনি দশম সম মান উত্তীর্ণের ইচ্ছা প্রকাশ করেন । আর পড়ার ইচ্ছাও প্রকাশ করেন তার ইচ্ছা কম্পিউটার এর মৌলিক সব কিছু জানার । তিনি অনেকের জন্য হলেন অনুপ্রেরনা । প্রতিদিন তিনি নতুন কিছু শেখেন । তিনি প্রমাণ করলেন ইচ্ছাশক্তি থাকলে শেখার ইচ্ছা থাকলে সফলতা আসে হাতের মুঠোর মধ্যে । \Albert Einstein rightly said , "The important thing is to never stop questioning "

আপনার মতামত দিন:


মানুষের জন্য এর জনপ্রিয়