DR. RAFIQUL ISLAM AZAD

Published:
2020-07-23 21:45:15 BdST

রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী সৎ অধ্যাপক ডা.খুরশীদ আলম নতুন স্বাস্থ্য মহাপরিচালক


 

ডা. রফিকুল ইসলাম আজাদ
_________________

অনেকের নাম শোনা যাচ্ছিল । গুজব মিডিয়া , টিভি মিডিয়া নানা জনের নামও আগাম প্রচার করে দিচ্ছিল।
সে সব জল্পনা কল্পনা গুজব তদবির নস্যাৎ করে একজন রবীন্দ্রভক্ত আগাগোড়া সৎ মানুষ , লোকসেবী চিকিৎসক পেলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক হিসেবে নিয়োগ। তার সামনে কঠিন চ্যালেঞ্জ : স্বাস্থ্য দূর্নীতির ভাগাড় থেকে ঝেটিয়ে জঞ্জাল পরিষ্কারের কঠিন দায়িত্ব।

ঢাকা মেডিকেল কলেজের সার্জারী বিভাগের অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলমকে অবশেষে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নতুন মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব দিয়েছে বাংলাদেশ সরকার। ডা খুরশীদ আলম একজন মরমী রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী। গুণী চিকিৎসক, শিক্ষক। কৃতবিদ্য অধ্যাপক। নানাগুণের এই মানুষটিকে সকলে অত্যন্ত সৎ মানুষ হিসেবেও চেনে।


স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দূর্নীতির পাহাড় ও জঞ্জাল সরাতে একজন ও লোকসেবী চিকিৎসককে খুঁজছিল সরকার। নানাজন তদবীরে ছিল। সংবাদ মিডিয়াগুলো নানাভাবে সেই তদবীরকে উস্কে দিচ্ছিল নানা গুজব নাম রটিয়ে। শেষ পর্যন্ত তার কোনটাই সত্য হল না।

বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের এক আদেশে ডা. খুরশীদ আলমকে অবিলম্বে নতুন দায়িত্বে যোগ দিতে বলা হয়েছে।

খুরশীদ আলম স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক পদে অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদের স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন, যাকে নানা কেলেঙ্কারি আর বিতর্কের মধ্যে ওই পদ ছাড়তে হয়েছে।

২০১৬ সালের ১ সেপ্টেম্বর থেকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের পদে ছিলেন ডা. আজাদ। সরকারি চাকরির বয়স শেষ হওয়ার পরও তাকে দুই বছরের চুক্তিতে ওই পদে রাখা হয়েছিল, যার মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ছিল আগামী বছরের এপ্রিলে।

কিন্তু করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের একের পর এক কেলেঙ্কারিতে সমালোচনার মুখে গত ২১ জুলাই জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে পদত্যাগপত্র দেন ডা. আজাদ।

সব আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় বৃহস্পতিবার ডা. আজাদের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করে তার চাকরির অবসান হওয়ার কথা জানায়।


নতুন মহাপরিচালক খুরশীদ আলম স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে এমবিবিএস করে দশম বিসিএসের মাধ্যমে ১৯৮৪ সালে সরকারি চাকরিতে যোগ দেন।

ঢাকা মেডিকেল কলেজের সার্জারি বিভাগের চেয়ারম্যান হওয়ার আগে তিনি কুমিল্লা মেডিকেলের সার্জারি বিভাগের প্রধান ছিলেন।

খুরশীদ আলম কিছুদিন বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজেও চাকরি করেছেন। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনি যোগ দেন ২০১৮ সালে।

 

আপনার মতামত দিন:


মানুষের জন্য এর জনপ্রিয়