ডাক্তার প্রতিদিন

Published:
2020-05-17 19:03:52 BdST

ইভারমেকটিন ও ডক্সিসাইক্লিন মিলিয়ে ২০/৩০ টাকায় করোনা বিজয়! গুজবে কান দেবেন না


 

ডেস্ক
_________________


ইভারমেকটিন ও ডক্সিসাইক্লিন মিলিয়ে ২০/৩০ টাকায় করোনা বিজয় জাতীয় কিছু খবরে মিডিয়া এখন সয়লাব। এ নিয়ে প্রাজ্ঞ চিকিৎসকরা বলছেন , বিষয়টি জনস্বার্থের জন্য খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। লোকজন ওষুধগুলো কিনে জমাচ্ছেন। করোনার নানা টোটকা নিয়ে মিডিয়ার হাস্যকর লাফ ঝাঁপের মতই জনস্বার্থবিরোধী এই দাবি। বাংলাদেশে যে চিকিৎসক দল এটাকে যুগান্তকারী মহাসাফল্য ও গবেষণা বলে দাবি করছিলেন, তারা নিজ দাবি থেকে সরে গিয়ে নানা আত্মবিরোধী কৈফিয়ত দিচ্ছেন। নিজেরাই ভিডিও ইন্টারভিউতে বলছেন , তারা নাকি গবেষণা বা মহাসাফল্য দাবি করেন নি। তারাও মিডিয়ার ওপর দায় চাপাচ্ছেন।
চিকিৎসক লেখক আতিক বাপ্পী বিষয়টি নিয়ে নানা তথ্য সহ লিখেছেন। সে লেখা জনস্বার্থে প্রকাশ হল।

ইভারমেকটিন (Ivermectin) এবং ডক্সিসাইক্লিন (Doxycycline) এখনো পর্যন্ত করোনাভাইরাস রোগের চিকিৎসার জন্য স্বীকৃত ঔষধ নয়। অপপ্রচার থেকে সাবধান থাকুন।

............................................
এইবার সামনে চলে এল Ivermectin ও Doxycycline .
Cell culture -এ effectiveness প্রমাণ পাওয়ার পরে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ, বিশেষ করে Australia -র Monash University ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল -এর উদ্যোগ নেয়। WHO, FDA এবং আরও কিছু গবেষক সতর্ক করাতে গবেষণা আর বেশি দূর অগ্রসর হয়নি।

সম্প্রতি New York - এর ডাঃ মাসুদুর রহমান TV তে এ ব্যপারে কথা বলাতে বেশ সমালোচিত হন। clinical trial -এর আগে এ ধরনের বক্তব্য প্রদানে নিরুত্সাহিত করা হয় উনাকে।
ছোট আকারে হলেও বাংলাদেশের একটি গবেষণার প্রাথমিক ফলাফল মিডিয়াতে এসেছে, (Drug -Ivermectin + Doxycycline, Principal investigator -Prof Dr Taraque Alam, Place -Bangladesh Medical College, Patient number -60, Study period -1.5 months, Effectiveness -50% in 3 days, & 100% in 4 days) যা আশাব্যঞ্জক বলে তিনি মনে করছেন ।
মিডিয়াতে আসার পূর্বে দেশের relevant subject -এর specialist -দের আমন্ত্রণ করে গবেষণাপত্র উপস্থাপন করলে তাদের মতামত পাওয়া যেত।

কারণ উনারা যথাযথ ethical অনুমোদন এবং safety measure নিয়েই কাজ করেছেন। এই ঔষধ সাধারণ মানুষের ব্যবহার অনুমোদন দেয়ার আগে গবেষণার বিস্তারিত ফলাফল peer reviewed জার্নালে প্রকাশিত হওয়া বাঞ্ছনীয়।

BMRC -র অনুমোদন নিয়ে সরকার নির্ধারিত COVID হাসপাতালে large scale study করলে ভালো হয়। Effective হোক তাই কামনা করি।

Effective না তাও প্রমাণ করা দরকার, কারণ এটা ব্যবহারে false sense of protection develop করতে পারে।

তবে FDA করোনা ট্রীটমেন্টের জন্যে এর অনুমোদন
দেয় নাই। বিস্তারিত https://www.fda.gov/…/fda-letter-stakeholders-do-not-use-iv…

 

তাছাড়া মিডিয়ায় তথ্যবিভ্রান্তি ও আছে, বিস্তারিত
এইখানে পাবেন। https://www.boombd.com/…/media-reports-regarding-the-use-of…


যদি আরো বিস্তারিত জানতে বা শুনতে ইচ্ছে করে এই ভিডিওটি দেখে আসতে পারেন খুব সুন্দর করে উপস্থাপন করা হয়েছে . . .
https://m.youtube.com/watch?v=tRfeVWJ2E1Q&feature=youtu.be

ডা. সজল আশফাক বলছেন , ওনারা অবস্থান পরিবর্তন করেছেন। পুরোটা দেখলেই বোঝা যাবে সব।
https://m.facebook.com/story.php?story_fbid=10223688430786673&id=1469460556

মিডিয়া যেভাবে প্রচার করছে, ২/১ দিনের মধ্যে এই ওষুধ মার্কেট আউট হয়ে যাবে দিন শেষে লাভ ব্যাবসায়ীদের হবে ।
এই মূহুর্তে মিডিয়াকে এইসব বিষয়ে আরো বেশী সচেতন হওয়া জরুরী।

শেষ কথা :-
ইভারমেকটিন (Ivermectin) এবং ডক্সিসাইক্লিন (Doxycycline) এখনো পর্যন্ত করোনাভাইরাস রোগের চিকিৎসার জন্য স্বীকৃত ঔষধ নয়। অপপ্রচার থেকে সাবধান থাকুন।
এরপরও মনে উসখুস করলে এইটা পড়ে আসুন

https://www.fda.gov/…/faq-covid-19-and-ivermectin-intended-…  

 

AD.. 

 

আপনার মতামত দিন:


মানুষের জন্য এর জনপ্রিয়