Ameen Qudir

Published:
2020-03-29 09:51:19 BdST

মা'কে কবর দিয়েই আবার সেবার কাজে যোগ দিলেন আশরাফ: দুই ট্রু হিরোর কাহিনি


ডেস্ক
____________________________

প্রথম জন হলেন, আশরাফ আলী, মিউনিসিপ্যাল করপোরেশন এর স্যানিটেশন বিভাগের অফিসার ইন চার্জ.।

দ্বিতীয় জন ইরফান খান, ডাটা ম্যানেজার এইমস ভোপাল এর. Integrated Disease Surveillance Program (IDSP) বিভাগের।

গত বুধবার সকাল ৮ টায় আশরাফ আলীর মা মারা যান, তারপর ও উনি অফিসে এসে কাজ করেন. তারপর দুপুরে বাড়ি যান মায়ের কবর দিয়ে এসে আবার অফিসে কাজে যোগ দেন. জিজ্ঞেস করা হয় কেনো এটা করলেন? আপনি তো ছুটি নিতে পারতেন. প্রাপ্য আপনার.

উনি উত্তর দেন, মায়ের তো মারা যাওয়ার ই বয়স. কিন্তু করোনা ভাইরাস এর কারণে দেশ যে কঠিন পরিস্থিতি এর মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে, সেখানে ক্লিনিং এখন একটা ইমারজেন্সি ডিউটি. তাই দেশের প্রতি ও আমার কর্তব্য বোধ আছে. সেটা করাটাও জরুরি!

তারপর ইরফান আলি, উনি অফিস থেকে বাড়ি ফিরছিলেন সোমবার নিজের বাইকে. অ্যাকসিডেন্ট হয়. কলার বোন ভেঙে যায়, সাথে ডান হাত ফ্র্যাকচার হয়. ডক্টর রা বাড়িতে কমপ্লিট রেস্ট এ থাকতে বলেন. সেই নির্দেশ অগ্রাহ্য করে পরের দিন আবার অফিসে আসেন হসপিটাল থেকেই! ওনাকে জিজ্ঞেস করতে উত্তর দেন, "দিস আর এক্সট্রা অর্ডিনারি টাইমস, এই করোনা ভাইরাস এর বিরুদ্ধে যুদ্ধে আমাদের জিততে হবে". প্রসঙ্গত ৩৪ টা জেলার করোনা ভাইরাস আক্রান্ত লোকদের ডাটা এন্ট্রি এর হেড ইরফান খান!

সিটি মিউনিসিপ্যাল কমিশনার বিজয় দত্ত তাদের কে ট্রু হিরো আখ্যা দেন;

আপনার মতামত দিন:


মানুষের জন্য এর জনপ্রিয়