Ameen Qudir

Published:
2020-03-22 11:24:47 BdST

স্বপ্না ভৌমিক, তোমায় অভিবাদন :ডা: শুভাগত চৌধুরী


ডেস্ক
___________________

মানুষ মানুষের জন্য। করোনা মহামারীতে মানুষকে বাঁচাতে সবচেয়ে বড় ভরসা মানুষের জীবনরক্ষাকারী ডাক্তাররা। সেই জীবনরক্ষাকারীদের অঙ্গরক্ষক হিসেবে এখন পাশে নানা পেশার মানুষ। তার মধ্যে উজ্জ্বলতম মুখ স্বপ্না ভৌমিক

বাংলাদেশের স্বাস্থ্যসেবার শুভচিন্তক ডা: শুভাগত চৌধুরী
লিখেছেন,

এই দুর্যোগে নাগরিকদের মধ্যে অনন্য সব উদ্যোগ একে মোকাবেলার জন্য ।
মার্কস স্পেন্সারের স্বপ্না ভৌমিক বুয়েটের কয়েকজন উৎসাহী তরুণদের নিয়ে ডাক্তারদের জন্য পি পি ই তৈরির কাজে নিয়োজিত তারা বিনা মুল্যে দেবেন এই পরিচ্ছদ সম্ভার।
সেদিন অরণ্য এনাম আমাকে বলল তারা তরুন রা স্বেচ্ছা সেবি কাজ করতে চায় এই মহামারিতে
ইতিমধ্যে রেড ক্রস স্কাউট এরা কাজে নেমেছে ।
আর অন্যদিকে দুষ্ট ব্যবসায়ীরা পন্যের দাম বাড়িয়ে চলেছে
হোম কোয়ারেনটাইন না করে নিজ পরিবারের লোকদের বিপদ গ্রস্ত করে এদের মধ্যে দুজন বয়স্ক লোকের মৃত্যুও ঘটেছে যারা বিদেশ প্রত্যাগতদের সংস্পর্শে এসেছিলেন
আমাদের দুই ধরনের নাগরিক চিত্র
সি মেড অনলাইন এপ তৈরি করছেন প্রান্তিক মানুষের জন্য ডা মামুন , দাউদ ।, মইন এরা মহা ব্যস্ত সহকর্মীদের নিয়ে ।
ঢাকা কাস্ট করছেন সচেতনতা সৃষ্টি মহামারী সম্পর্কে । ফাহ রিন হান্নান নেমেছেন তার সাথিদের নিয়ে
আমার হেলথ ডট কমের অপূর্ব সচেতনতা সৃষ্টিতে ব্যস্ত ।
অনেক উদ্যোগী তরুন বিশেষ করে ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয়ের ফারমাসি বিভাগ তৈরি করছেন হ্যান্ড সেনি টা ইজার । মাস্ক আর সেনি টাই জারের তীব্র সঙ্কট সৃষ্টির পর তারা নিলেন এমন উদ্যোগ / অনেক উদ্যোগী মানুষ মাস্কও তৈরি করছেন ।
অনেক সাংবাদিক বন্ধু জীবনের ঝুকি নিয়ে সংবাদ সংগ্রহ করছেন
ডাক্তার নার্স স্বাস্থ্য কর্মীরা জীবনের ঝুকি নিয়ে সেবা করছেন করোনা রোগীদের ।আমরা ঘরে আর এরা সঙ্ক্রমনের মুখো মুখি । শুধু কর্তব্য নয় মানবিক দায়িত্ব বোধ থেকেও ।


এছাড়া মেডিক্যাল ছাত্র আর ডাক্তারদের অনেক অনলাইন গ্রুপ সচেতনতা সৃষ্টিতে ব্যস্ত তারা সেচ্ছা সেবি কাজ করছে প্লাটফর্ম ,
মে ডি ভয়েস ডাক্তার প্রতিদিন সেলুলার এরকম অনেক
আরও এরকম অনেক নাগরিক উদ্যোগ স্বতঃ স্ফূর্ত গড়ে উঠছে দেশে বিদেশে ।
সবপ্না ভৌমিক কে টুপি খোলা অভিনন্দন
বলেছিলাম কারা এই দুর্যোগে পাশে দাঁড়ায় আর কারা সুবিধা আর মুনাফা লোটে আর কারা নীরব থাকে তিন দলকে মনে রাখতে
সরকার উদ্যোগী হয়েছেন । বাস্তব অবস্থা সরকারকে জানতে হবে জেনে কৌশল নির্ধারণ করতে হবে । নিজদের সক্ষমতা সামর্থ্য আর সীমা বদ্ধতা জেনে এগুতে হবে ।স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয় আর অধিদপ্তরের উপর ভার চাপালে এখন চল বেনা প্রয়োজন সব মন্ত্রনালয়ের সমন্বিত উদ্যোগ । ডাক্তাররা যাতে সুরক্ষা সরঞ্জাম নিয়ে স্বস্তিতে আর নির্ভয়ে কাজ করতে পারে দেখতে হবে কারন আমাদের এই সাম্নের সারির যোদ্ধারা দুর্বল হলে এই মহামারী থেকে পরিত্রান হবে দুষ্কর
এখন বিরূপ সমালোচনা আর দোষ ত্রুটি দেখার সময় নয় চাই সবার নিজ স্থান থেকে কাজ করা , সহায়তা দেওয়া আর সরকারের বিধি নিষেধ মেনে চলা

।সরকারের সঙ্গে বেসরকারি আর নাগরিক উদ্যোগ একত্র হলে তবে একে পরাজিত করা সম্ভব ।

টিআর খান তানিম লিখেছেন,
বির এই ভদ্রমহিলার নাম স্বপ্না ভৌমিক । আমার সাথে তার কোন পরিচয় নেই। তবে এটুকু বুঝতে পেরেছি তিনি বড় মাপের বড় মনের একজন মানুষ। বড় কোন ব্যবসায়ী বা উদ্যোক্তা হবেন বোধহয়। তিনি একটা বিশাল কাজ করেছেন। করোনা ভাইরাসের সংক্রমনজনিত রোগের চিকিৎসা কিভাবে করবেন তা নিয়ে আমাদের ডাক্তার, নার্সরা যখন চিন্তিত তখন তিনি এগিয়ে এলেন। বুয়েট এলামনাই এসোসিয়েশনের সাথে উদ্যোগ নিয়ে তিনি ৪ লক্ষ পিপিই আগামী ১০/১২ দিনের মধ্যে ডাক্তার, নার্স, স্বেচ্ছাসেবীদের দেয়ার ঘোষণা দিলেন। তাও আবার বিনামূল্যে।
পিপিই কি জানেন তো? এটার পুরো অর্থ হচ্ছে পারসোনাল প্রটেকটিভ ইকুইপমেন্ট। করোনা রোগীদের চিকিৎসার সময় যাতে ডাক্তার, নার্সরা সংক্রমনের শিকার না হন সেজন্য এই বিশেষ পোশাক ও ইকুইপমেন্ট পরিধান করতে হয়। এর একেকটি সেট এর দাম অনেক টাকা। চিন্তা করতে পারেন এতোগুলো পিপিই এর ব্যবস্থা হচ্ছে একজন মহিয়শী নারীর উদ্যোগে।
আমি আগেও বলেছি যে আমাদের ভয়ের কিছু নেই। অনেক প্রতিকূলতা, বাঁধাবিপত্তি, নেতিবাচক কর্মকান্ডের মাঝেও স্বপ্না ভৌমিকদের মতো আশা জাগানিয়া মানুষেরা আছেন আমাদের জন্য। আমি বিশ্বাস করি, করোনা আমাদের সাথে পেরে উঠবেনা ।
স্বপ্না ভৌমিক অনেক ভালো থাকুন।

আপনার মতামত দিন:


মানুষের জন্য এর জনপ্রিয়