Ameen Qudir

Published:
2020-03-20 09:06:31 BdST

কথাটা হচ্ছে সামনের দুতিন সপ্তাহ করোনা প্রতিরোধে এতটা জরুরি কেন?


ডেস্ক
___________________
বাংলাদেশে , পশ্চিম বাংলায় তথা গোটা ভারতবর্ষে একটাই প্রশ্ন:
সামনের দুতিন সপ্তাহ করোনাভাইরাস প্রতিরোধে এতটা জরুরি কেন? সে বিষয়টি সুললিত ভাষায় ব্যাখ্যা করেছেন প্রখ্যাত লেখক চিকিৎসক সুমিত চট্টোপাধ্যায় । তিনি পশ্চিম বাংলার বিশিষ্ট জন।


ডা. সুমিত চট্টোপাধ্যায়
সুলেখক
___________________

কথাটা হচ্ছে সামনের দুতিন সপ্তাহটা করোনাভাইরাস প্রতিরোধে এতটা জরুরি কেন? এত বড় দেশ। ১৩০ কোটি মানুষ। দুশো লোকও ত আক্রান্ত ঘোষিত নয়। তাহলে?

একটা গল্প বলি। অনেকেই জানেন।
রাজামশাই সাধুবাবার প্রতি খুশি হয়ে বলেছেন- কী চাই বলুন?
যা চাইব দেবেন?
হ্যাঁ।
বেশ। এই দাবার বোর্ড। এতে রোজ আমায় কয়েকটা চাল দেবেন। তবে শর্ত হল প্রথমদিন যা দেবেন পরেরদিন তার দুগুণ দিতে হবে।
রাজামশাই বললেন - মানে, প্রথমদিন যদি দু’ দানা চাল দিই, পরেরদিন চারদানা।
সাধু বললেন - ইয়েস। তার পরের দিন আট। তারপরের দিন ষোল।

এটা কোনও ব্যাপার হল? রাজামশাই সানন্দে রাজি।
ভালই চলছিল।

আমরাও বুঝতে পারছি- হিসেবটা টু টু দি পাওয়ার টু , থ্রি, ফোর এইরকম।

সমস্যা হল কিছুদিন পর। খাদ্যমন্ত্রী রাজাকে বললেন- এত চাল কোথায় পাব?
টু টু দি পাওয়ার টুয়েন্টি কত হয় দেখুন।
১০৪৮৫৭৬!
পরের হিসেবগুলো আর নাই বা করলেন।

রোগও অনেকটা এইভাবে ছড়ায়। আজ দুজন আক্রান্ত , কাল চার , পরশু আট।
কাজেই বুঝতে পারছেন - আমাদের এই ঘনবসতিপূর্ণ দেশে আমরা যদি সতর্ক না হই ত কী ভয়ানক মহামারী হতে পারে!

এই ভাইরাস মানবশরীরের বাইরে তেমন বাঁচে না।
তাই এইসময় যদি রোগটির ট্রান্সমিশন আমরা রুখতে পারি, তবেই মহাবিপর্যয়ের হাত থেকে রক্ষা পাব।

বাইরে বেরোবেন না।
সর্দিজ্বর হলে মাস্ক পরবেন।
বারেবারে হাত ধোবেন।

Don’t be casual. Please!
@ Dr. Sumit Chattopadhyay
ENT Specialist

আপনার মতামত দিন:


মানুষের জন্য এর জনপ্রিয়