Ameen Qudir

Published:
2020-03-19 10:49:06 BdST

যেসব উপসর্গে করোনা পরীক্ষার প্রয়োজন নেই, সাফ জানালেন ডা. দেবী শেঠী



ডেস্ক
_______________________


আমাদের উপমহাদেশের বিশ্ববন্দিত লোকসেবী চিকিৎসক ডা. দেবী শেঠী পরিস্কার জানিয়ে দিয়েছেন , কি কি উপসর্গে করোনাভাইরাস পরীক্ষার কোন প্রয়োজন নেই । এসব সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে যাওয়ার দরকার নেই।
অনেকেরই প্রশ্ন , একজন হার্ট সার্জন হয়ে দেবী শেঠি কেন করোনায় কথা বলছেন। উত্তর হল, দেবী শেঠি একজন হার্ট সার্জনের পাশাপাশি বিশ্ব বন্দিত সর্বরোগহর পরামর্শক হিসেবেও সর্বজনপ্রিয়।
তার পরামর্শে মৌলিক সমাধান পাওয়া যায়। এই মহাসঙ্কটের কালে তার কথাগুলো প্রচার মানবতার জন্য দরকার।

দেবী শেঠি বলেছেন,

করোনাভাইরাসের অন্যতম একটি উপসর্গ হচ্ছে জ্বর। কিন্তু জ্বর হলেই করোনাভাইরাসের পরীক্ষা না-করার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি । তার মতে, অতিরিক্ত পরীক্ষা ভবিষ্যতে বিপদ বাড়াবে। কেননা চাহিদার তুলনায় করোনা পরীক্ষার কিট অপ্রতুল।

ডা. দেবী শেঠীর মতে, “যদি কারও ফ্লু বা সর্দি থাকে, প্রথমে নিজেকে আইসোলেশন করে লক্ষণ ভালো করে পর্যবেক্ষণ করতে হবে। প্রথম দিন শুধু ক্লান্তি আসবে। তৃতীয় দিন হালকা জ্বর অনুভব হবে। সঙ্গে কাশি ও গলায় সমস্যা হবে। পঞ্চম দিন পর্যন্ত মাথায় যন্ত্রণা হবে। পেটের সমস্যাও হতে পারে। ষষ্ঠ বা সপ্তম দিনে শরীরে ব্যথা বাড়বে এবং মাথার যন্ত্রণা কমতে থাকবে। তবে পেটের সমস্যা থেকেই যাবে। অষ্টম ও নবম দিনে সব লক্ষণই চলে যাবে। তবে সর্দির প্রভাব বাড়তে থাকে। এর অর্থ আপনার প্রতিরোধক্ষমতা বেড়েছে এবং আপনার করোনা-আশঙ্কা নেই।”
এই চিকিৎসক বলেছেন, ‘এসব ক্ষেত্রে আপনার করোনা পরীক্ষার প্রয়োজন নেই। কারণ শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়ে গেছে। তবে যদি অষ্টম বা নবম দিনে আপনার শরীর আরও খারাপ হয়, করোনা-হেল্পলাইনে ফোন করে অবশ্যই পরীক্ষা করিয়ে নিতে হবে।” তথ্যসূত্র: দেবী শেঠি মিডিয়া ফোরাম ।

আপনার মতামত দিন:


মানুষের জন্য এর জনপ্রিয়