Ameen Qudir

Published:
2019-12-04 12:42:38 BdST

ইত্যাদিতে প্রচারিত কাইলাকুড়ি হাসপাতালে বাংলাদেশের ডাক্তারদের অবদান


 

 

ছবি ডা. মো. রাকিবুর ইসলাম এর সৌজন্যে
ডেস্ক
__________________________

গনস্বাস্থ্য সমাজভিক্তিক মেডিকেল কলেজের প্রাক্তন শিক্ষার্থী ডা. মো. রাকিবুর ইসলাম সম্প্রতি তার ফেসবুক ওয়ালে "ইত্যাদি " তে সম্প্রচারিত কাইলাকুড়ি হাসপাতাল প্রসঙ্গে- গুরুত্বপূর্ণ নানা তথ্য দিয়েছেন। সর্বশ্রেনীর পাঠকদের জন্য এসব তথ্য প্রকাশ করা হল।

ডা. মো. রাকিবুর ইসলাম লিখেছেন,
গত ২৯/১১/'১৯ তারিখে "ইত্যাদি " তে সম্প্রচারিত কাইলাকুড়ি হাসপাতাল প্রসঙ্গে-
কাইলাকুড়ি হেলথ কেয়ার প্রোজেক্ট (KHCP) এ বাংলাদেশের ডাক্তারদের অবদান অনস্বীকার্য ও অবিস্মরণীয়। যারা সেবা দিয়ে গেছেন নিঃস্বার্থভাবে, নিজ উদ্দ্যোগে,দেশের গ্রামীন ও অবহেলিত মানুষকে ভালোবেসে। KHCP এর সাথে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িয়ে আছে এদেশের ডা. সমাজ, বিভিন্ন সরকারি/ বেসরকারি মেডিকেল কলেজ, স্পেশালাইজড হাসপাতাল, সেবা দানকারী বিভিন্ন পর্যায়ের মেডিকেল প্রতিষ্ঠান। যারা নিয়মিতভাবে বিনামূল্যে বা স্বল্প মূল্যে চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকে। নিম্নে কিছু চিত্র তুলে ধরা হলোঃ

১) শ্রদ্ধেয় ডা. ভাই (ডা. এড্রিক বেকার) গত হবার পর থেকে বর্তমান ডা. দম্পতি আসার অর্ন্তবর্তীকালীন সময়ে বাংলাদেশের ডাক্তার (আমি নিজে)কোনো পারিশ্রমিক না নিয়ে নিজ উদ্দ্যোগে কর্মরত থেকেছে এবং কাজ চালিয়ে যাচ্ছে । এছাড়াও গণস্বাস্থ্য সমাজ ভিত্তিক মেডিকেল কলেজ থেকে ডা. গণ সবসময় উপস্থিত থাকেন।।

 

২) 'ডক্টর'স কমিউনিটি ভিজিট'এর ব্যানারে কিছু সম্ভাবনাময় ও তরুণ চিকিৎসক KHCP এ সংকট ও প্রতিকূল অবস্থার পাশাপাশি অন্য সময়েও সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। তারা সম্পূর্ণ বিনামূল্যে প্রয়োজনীয় ওষুধ, মেডিকেল ইন্সট্রুমেন্ট, অবকাঠামো গত উন্নয়ন ছাড়াও বিভিন্ন প্রয়োজনে সাহায্য করে থাকে।
৩)সাভারের গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজ বিভিন্ন রকম অপারেশন, প্যাথোলজিক্যাল টেস্ট, বিশেষজ্ঞ পরামর্শ দিয়ে থাকে।

৪)বারডেম হাসপাতালের অবদান আলাদাভাবে না বললেই নয়। বারডেমের সমাজ কল্যাণ বিভাগ স্বল্পমূল্যে বা কখনও বিনামূল্যে বিভিন্ন মেয়াদি প্রয়োজনীয় ইনসুলিন ও ওষুধ দিয়ে থাকে। এছাড়াও চোখের ছানি অপারেশন, খারাপ ডায়াবেটিক আলসার (ডায়াবেটিক ফুট), ডায়াবেটিক রেটিনোপ্যাথির চিকিৎসা, লেজার অপারেশন সহ নিয়মিতভাবে ক্যাম্প ও প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে।

৫)ঢাকা ও ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ বিভিন্ন ধরনের অপারেশন, বিশেষজ্ঞ পরামর্শ, পরীক্ষা নিরীক্ষা সহ অন্যান্য চিকিৎসা সেবা প্রদান করে থাকে।

৬) উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সিজার, DNC ছাড়াও অন্যান্য চিকিৎসা দিয়ে থাকে।

৭)ডেমিয়েন ফাইন্ডেশনের একটি উপশাখা আছে কাইলাকুড়িতে। সেখানে যক্ষা ও যক্ষা জনিত সমস্যার বিষয়ে চিকিৎসা প্রদান করা হয়।

৮)সাভারের সিআরপি নিউরোলজিক্যাল সমস্যা, হুইলচেয়ার প্রদানসহ ফিজিওথেরাপি সেবা প্রদান করে।

৯)শ্রদ্ধেয় প্রফেসর ডা.তাহমিনা বেগম ম্যাডাম, সাবেক বিভাগীয় প্রধান, Dept. of Paediatrics & Neonatology. বারডেম হাসপাতাল।। উনি শিশুর প্রাথমিক স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করণে বিভিন্ন পেডিয়েট্রিক যন্ত্রপাতি, অার্থিক অনুদান প্রদান সহ বিভিন্ন চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকেন।

১০) শ্রদ্ধেয় সহযোগী প্রফেসর ডা. পারভীন রহমান ম্যাডাম, বিভাগীয় প্রধান, গাইনি এন্ড অবস, কেয়ার মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল। উনি গাইনোকলোজিক্যাল সমস্যার চিকিৎসা ও বিভিন্ন অপারেশন স্বল্পমূল্যে করে থাকেন।

১১)শ্রদ্ধেয় প্রফেসর ডা. শরিফ স্যার বিনামূল্যে ঠোঁট কাটা, তালু কাটা ও প্লাস্টিক সার্জারি করে থাকেন।

১১) শ্রদ্ধেয় প্রফেসর ডা. সমান্ত লাল সেন স্যার,প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের প্রধান সমন্বয়ক, তিনি বার্ণ রোগীদের বিভিন্ন পরামর্শ ও চিকিৎসা প্রদান করে থাকেন।

১১) মেডিসিন ক্লাব ও সন্ধানীর মাধ্যমে অপারেশন রোগী, থ্যালাসেমিয়া রোগী সহ অন্যান্য জরুরি প্রয়োজনে ব্লাডের যোগান দিয়ে থাকে।

১২)বিএনএসবি চক্ষু হাসপাতালে বিনা খরচে চোখের পরীক্ষা, ছানি অপারেশন, চশমা ও ওষুধ দেওয়া হয়।

 

এছাড়াও ডাক্তার সমাজ , মেডিকেল স্টুডেন্ট ভিজিটের মাধ্যমে খোঁজখবর ও বিভিন্ন সময়ে তাদের সাহায্য সহযোগিতা অব্যাহত রেখেছেন।

(উপরে উল্লেখিত প্রতিষ্ঠানে কাইলাকুড়ি থেকে রেফারেল রোগী পাঠানো হয়। উল্লেখ্য যে, প্রয়াত ডা. এড্রিক বেকার বেঁচে থাকাকালীন এসব প্রতিষ্ঠানের সাথে সুসম্পর্ক গড়ে তুলেন যা আজও অব্যাহত রয়েছে।)

তাই বলতে চাই একটা প্রতিবেদনের মাধ্যমে ডাক্তার সমাজের এই সব অবদান ম্লান হয়ে যায় না। বাংলাদেশী ডাক্তারদের কথাটা যে কারণেই হোক প্রতিবেদনে উঠে আসেনি। তাই বলে আমরা যেমন এদেশের ডাক্তারদের সম্পর্কে ঢালাওভাবে অশালীন মন্তব্য করতে পারি না তেমনি আমেরিকান ডাক্তার দম্পতির ডেডিকেশন কেও ছোট করে দেখতে পারি না বা স্বর্গীয় ডাক্তার ভাই এর নামে কোন প্রকার অপপ্রচার ও করতে পারি না।
আর কাইলাকুড়ির সাথে আমার বন্ধনটা আত্মিক। আমি সেখানে দেখেছি অসাম্প্রদায়িক প্রয়াত ডা. ভাইকে ও তার মানবতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্তের নমুনা । উনার আর্দশকে লালন করে বর্তমানে অার্ত মানবতায় কাজ করে যাচ্ছেন ডা.জেশন- মেরিন্ডি দম্পতি। তাঁরা ধর্ম, বর্ণ, জাতি নির্বিশেষে নিজেদের নিয়োগ করেছেন মানব ধর্মে, অবদান রেখে চলেছেন এদেশের স্বাস্থ্যসেবা উন্নয়নে।
এদেশের ডা.সমাজ লজ্জিত নয় বরং গর্বিত। সুখী, সমৃদ্ধ, সম্ভাবনাময় ও সর্বজনীন স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করণে বাংলাদেশের ডা. সমাজ সাধ্যের অধিক সংখ্যক জনগণকে বহু প্রতিকূলতা সত্ত্বেও নিরলস ও অক্লান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে নীরবে - নিভৃতে কাজ করে যাচ্ছেন।সদা সর্বদা মানব কল্যাণে নিয়োজিত সেই ডা. কমিউনিটির একজন হতে পেরে আমি সত্যি সত্যিই গর্বিত।।

ডা. মো. রাকিবুর ইসলাম।
সেশনঃ ০৯-১০।

আপনার মতামত দিন:


মানুষের জন্য এর জনপ্রিয়