Ameen Qudir

Published:
2019-12-02 13:12:30 BdST

একটানা ৮ ঘণ্টায় ৩০১ জন রোগীর চিকিৎসা করে নজির গড়লেন ডা. কৌশিক



রঞ্জন মহাপাত্র
________________________

একটানা আট ঘণ্টা রোগী দেখে রেকর্ড গড়লেন এক চিকিৎসক। ওই আট ঘণ্টায় মোট ৩০১ জন শিশুকে পরীক্ষা করেছেন ডা. কৌশিক মণ্ডল। ওই চিকিৎসকের কর্মকাণ্ডকে কুর্নিশ জানাচ্ছেন সকলে। এভাবেই রোগীদের চিকিৎসা করে যেতে চান ওই চিকিৎসক।
পূর্ব মেদিনীপুরের কাঁথি মহকুমা হাসপাতালের ঘটনা ।
২০১৫ সালের এপ্রিল মাসে অন্য হাসপাতাল থেকে বদলি হয়ে কাঁথি মহকুমা হাসপাতালে যোগ দেন শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ডা: কৌশিক মণ্ডল। হাসপাতালে যোগদানের পরই শুরু হয় তাঁর কাজ। যে কোনও সময় হাসপাতাল থেকে ফোন এলেই সব কাজ ফেলে ছুটে যান ওই চিকিৎসক। সর্বদা মুখে একগাল হাসি নিয়ে বিরামহীন ভাবে দেখে চলেন একের পর এক রোগী। গড়ে দুই’শ থেকে তিন’শ রোগী দেখতে দেখতে অধিকাংশ দিনই বেলা গড়িয়ে রাত নেমে যায়। কিন্তু সময় যতই লাগুক, রোগী দেখা শেষ না হওয়া পর্যন্ত চেয়ার ছেড়ে ওঠেন না তিনি। রোগী থেকে শুরু করে তাঁদের আত্মীয় পরিজনদের মুখে শুধু একটাই নাম “কৌশিক ডাক্তার”।

কৌশিকবাবুর পরামর্শ নেওয়ার জন্য প্রতিদিন জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে রোগী ও তাঁদের আত্মীয়রা ভিড় জমায় হাসপাতালে। হাসপাতালে চিকিৎসার পাশাপশি বেশ কয়েকটি দাতব্য চিকিৎসালয়ে গিয়েও চিকিৎসা করেন তিনি। শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ হিসেবে ডাক্তারি পাশ করার পর মানব সেবাকেই জীবনের ব্রত করে ঝাঁপিয়ে পড়েন কৌশিক । বরাবরই সহায় সম্বলহীন মানুষদের পাশে দাঁড়ান তিনি। দুঃস্থদের বিনামূল্যে চিকিৎসার পাশাপাশি ওষুধপত্র দিয়েও সাহায্য করেন তিনি। রোগীর আত্মীয়দের কথায়, “কৌশিক ডাক্তার” তাঁদের কাছে সাক্ষাৎ ধন্বন্তরি। ডাক্তার বাবুর হাতের স্পর্শেই নাকি অর্ধেক রোগ ভাল হয়ে যায়। কৌশিকবাবুর কর্মকাণ্ডে কুর্নিশ জানাচ্ছে সমাজের সর্বস্তরের মানুষ।

সংবাদ ও তথ্য সৌজন্য : কলকাতার সংবাদ প্রতিদিন

আপনার মতামত দিন:


মানুষের জন্য এর জনপ্রিয়