Ameen Qudir

Published:
2019-10-19 18:31:08 BdST

রোগী সেবা করে ফেরার পথে সীতাকুণ্ডের জঙ্গলে লাশ হলেন ডা. শাহ আলম




সংবাদদাতা
_______________________
রোগী দেখে রাত ৯টার দিকে চেম্বার থেকে গাড়ি যোগে চট্টগ্রাম শহরে নিজ বাসায় যাচ্ছিলেন ডা. মো. শাহ আলম। কিন্তু ঘাতকরা তাকে জীবিত ঘরে ফিরতে দেয় নি।
চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের কুমিরার ঘাটগড় এলাকায় রাস্তার পাশ থেকে উদ্ধার হওয়া লাশটি চিকিৎসক মো. শাহ আলমের (৫৮)। তিনি ছোট কুমিরা এলাকার মৃত আজিজুল হক মাস্টারের পুত্র।

শুক্রবার সকাল ৮টার সময় কুমিরা ঘাটঘর এলাকার বাইপাশ সড়কের পাশ থেকে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করা হয়। তাৎক্ষণিক তার পরিচয় পাওয়া সম্ভব হয়নি। পরে কুমিরার ইউপি চেয়ারম্যান তার পরিচয় নিশ্চিত করেন।
পুলিশ জানায়,
রোগী দেখে রাত ৯টার দিকে চেম্বার থেকে গাড়ি যোগে চট্টগ্রাম শহরে নিজ বাসায় যাচ্ছিলেন মো. শাহ আলম। সকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে এক ব্যক্তির লাশ পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসী সীতাকুণ্ড থানায় খবর দেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে।
সীতাকুণ্ড মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শামীম শেখ বলেন, সিআইডি লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়ে দিয়েছে। রিপোর্ট আসার পর মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত হওয়া যাবে।

লাশের সনাক্তকারী কুমিরা ইউপি চেয়ারম্যান মোরশেদ চৌধুরী জানান, ডাঃ শাহ আলম ৩০ বছর সৌদি আররে মদিনা হাসপাতালে শিশু বিভাগের প্রধান হিসেবে কর্মরত ছিলেন। এলাকার মানুষ সেবা দেওয়া জন্য ছোট কুমিরা বাজারে ক্লিনিক খুলেছিলেন। রাতে চেম্বার থেকে চট্টগ্রাম শহরের বাসায় যাওয়ার পথে তাকে খুন করে রাস্তায় ফেলে য়ায়। তিনি খুবই ভালো মানুষ ছিলেন, একজন অভিজ্ঞ ডাক্তার হয়েও চট্টগ্রাম শহরে চেম্বার না করে নিজ এলাকায় মানুষ সেবা দিতে শহর থেকে প্রতিদিন গ্রামে চলে আসতেন।

আপনার মতামত দিন:


মানুষের জন্য এর জনপ্রিয়