Ameen Qudir

Published:
2019-09-04 07:44:01 BdST

বিনা মূল্যে রোগী সেবা দিতে গিয়ে প্রাণ হারানো ৭৫ বছরের ডাক্তার যে শিক্ষা রেখে গেলেন


ডা. জোবায়ের আহমেদ
__________________________

দেবেন বাবু অবাক বিস্ময় নিয়ে অসহায় এর মত তাকিয়ে আছেন সেই মুখগুলোর দিকে যাদের জন্ম তাঁর হাতেই হয়েছিল।
সেই বাচ্চাগুলো আজ বড় হয়েছে।
এরা ঝাঁপিয়ে পড়েছে উনার উপর।
কেউ লাথি দিচ্ছে,কেউ ঘুষি মারবে।
কেউ একজন বড় এক টুকরো কাঁচ দিয়ে আঘাত করত হাঁটুর পিছনে।।
রক্তে ভেসে গেলো চেম্বার।
অজ্ঞান হয়ে লুটিয়ে পড়ার আগ পর্যন্ত তারা থামলো না।
একটু পানি চেয়েছিলেন, কেউ দেয়নি।
এক টুকরো ব্যান্ডেজ চেয়েছিলেন, কেউ একজন তা ছুঁড়ে ফেলে দিলো।

পুলিশ এসে দেবেন বাবুকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে উনার মৃত্যু হয়।

আজ থেকে ১৫ বছর আগে যখন দেবেন বাবুর বয়স ৬০ বছর তখন চাকুরী থেকে অবসর নিলেন।
পেশায় চিকিৎসক দেবেন বাবু আসামের বিভিন্ন চা বাগানে চিকিৎসক হিসেবে কাজ করেছেন।
টিওক চা শ্রমিকদের প্রতি উনার ভালবাসা ছিল আকাশসম।।
তাই অবসরে গিয়ে আরাম আয়েশে জীবনের শেষ দিনগুলি না কাটিয়ে টিওক চা বাগানে গত ১৫ বছর ধরে উনি বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছিলেন চা শ্রমিকদের।
অনেক পূণ্য কামাই করেছেন দেবেন বাবু।
গরীব অসহায় চা শ্রমিকদের মাঝে বিলিয়েছেন ভালবাসা ও মমতার পরশ।।
উনার সেবার হাত দিয়ে তাদের আগলে রেখেছিলেন।
গত ৩১ আগস্ট একজন নারী চা শ্রমিকের দূর্ভাগ্যজনক মৃত্যুকে কেন্দ্র করে একদল চা শ্রমিক হামলা করে উনার কর্মস্থলে।।
সেই রোগীনীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে হামলার শিকার হয়ে প্রাণ দিলেন।।
৭৫ বছর বয়সী দেবেন দত্ত নামের চিকিৎসক প্রাণ দিয়ে কি বুঝিয়ে গেলেন আমাদের??
বিনামূল্যে চিকিৎসা দেবার পরিনতি এমনই।

একজন চিকিৎসক এই ঘটনায় বুকফাঁটা নীরব আতর্নাদে আক্ষেপ করে বলেছেন " যেদিন আমাকেও এই দেশ আর দেশবাসী পিটিয়ে মেরে ফেলবে, তখন হয়তো শেষ অনুরোধ টুকুও রাখতে পারবো না।তাই এখন ই বলে যাচ্ছি, মেরে ফেলার পর আমার স্টেথো খানিও চুল্লিতে আমার মরদেহের সাথে ঢুকিয়ে দিও।
এই মরনাস্ত্র যেন আর কেউ না পায়।"

ঘটনাটি ভারতের আসামের।

আমরা বাংলাদেশের চিকিৎসকরা একটা অজানা আশংকায় দিন কাটাই।
দেশের অনেক চিকিৎসক পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে নানা জনের হাতে মার খেয়েছেন,খাচ্ছেন,খাবেন নিকট ভবিষ্যতে।

ডাক্তাররা শুধু রোগীর মৃত্যুর জন্যই দায়ী।
রোগীর রোগ মুক্তি ও সুস্থ হয়ে জীবন নিয়ে বাড়ি ফেরার জন্য ধন্যবাদ সৃষ্টিকর্তাই পান।
ডাক্তার পান কসাই উপাধি ও গালি।।

আপনি যদি মানুষের জন্য কিছু করতেই চান, নেকী কামাতে চান তবে বিনামূল্যে চিকিৎসা নয়,একজন এতিমের মাতায় হাত বুলান,গরীব মেধাবী কোন শিক্ষার্থীর দায়িত্ব নিন।
কোন বিধবা নারীর পাশে দাঁড়ান,কোন অসহায় বৃদ্ধ কে মায়ার হাতটা বাড়িয়ে দিন।
কোন অভাবী ঋণগ্রস্থ মানুষ কে সাহায্য করুন।
পথশিশুদের জন্য কিছু করুণ।
যেই মেয়েটি বেঁচে থাকার তাগিদে অন্ধকার জগতে বসবাস করছে তাকে আলোতে ফিরিয়ে আনুন।।

কিন্ত একজন চিকিৎসক হয়ে বিনামূল্যে চিকিৎসা দিবেন কিনা তা ভাবতে হবে দেবেন বাবুর জীবন থেকে।।
___________________________

ডা. জোবায়ের আহমেদ। সুলেখক।

আপনার মতামত দিন:


মানুষের জন্য এর জনপ্রিয়