|

প্রয়াত ডা. আশরাফ উল ময়েজের ১২ অমূল্য বইয়ের খোঁজ সন্ধান , ছবি ও পরিচিতি


Published: 2018-03-21 11:47:13 BdST, Updated: 2018-04-20 11:11:36 BdST

 

 

টিম ডাক্তার প্রতিদিন
___________________________

সদ্য প্রয়াত নিভৃতচারী কথাসাহিত্যিক আশরাফ উল ময়েজ সম্পর্কে প্রতিবেদন প্রকাশের পর ডাক্তার প্রতিদিনের হাজারও পাঠক টেলিফোনে জানতে চেয়েছেন এই মহান লেখক সম্পর্কে । তার ১২ বইয়ের অমূল্য গুপ্তধনের খবর ডাক্তার প্রতিদিনে প্রকাশের পর সৃষ্টি হয়েছে ব্যাপক চাঞ্চল্য। অনেকে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন। অবিশ্বাস করেছেন। বাংলাদেশে এমন কীর্তিধর লেখক আছেন, পরিহাস করেছেন কেউ কেউ। প্রমান চেয়েছেন অনেক কৌতুহলী।
তাদের সকল জিজ্ঞাসার জবাব দিতে ডাক্তার প্রতিদিন টিম আশরাফ উল ময়েজের বিভিন্ন বইয়ের ছবি সহ কয়েকটি বইয়ের সংক্ষিপ্ত পরিচয় আজ তুলে ধরল।

খোজা ইতিহাস
আশরাফ উল ময়েজ

মানুষ খোজা হয় দু’ভাবে—জন্মগত খোজা আর মানুষের তৈরি খোজা। জন্মগত ত্রুটির কারণে মানুষ খোজা অর্থাৎ পুরুষাঙ্গ ও অণ্ডকোষহীন জন্মাতে পারে। খোজাদের জৈবিক চাহিদা নাও থাকতে পারে আর স্বাভাবিকভাবেই তাদের জীবনযাত্রাও অন্যদের থেকে ভিন্ন।

বহুল তথ্যসমৃদ্ধ বই : খোজা ইতিহাস ।

প্রাচীন শাসকগোষ্ঠী নিজেদের স্বার্থে একসময় শুরু করল স্বাভাবিক মানুষকে খোজা বানানো—প্রধান উদ্দেশ্য হারেমের শত সহস্র নারীকে পাহারা দেওয়া। তখনকার অনেক সম্রাট হারেম পাহাড়া দেওয়া ছাড়াও নিজেদের বিকৃত যৌনকামনা মেটাতে খোজাদের ব্যবহার করতেন। তাদের প্রায় সকলেই মানুষের তৈরি খোজা। কেউ আবার স্বেচ্ছায়ও খোজা হয়েছেন, সংখ্যাটা নগণ্য। যুদ্ধে বিজয়ীরা বীরত্ব প্রকাশের জন্যও পরাজিতদের খোজা বানাত।
দেশের ইতিহাস ও সংস্কৃতির সাথে জড়িয়ে আছে খোজা ইতিহাস। খোজাদের অনেকেই বিখ্যাত—যেমন চীনের খোজা কাউলন কাগজ আবিষ্কার করেছেন, পারস্যের সম্রাট আগা মোহম্মদ কাজার, ভিয়েতনামের জাতীয় বীর লি থঙ্গ কিয়েত প্রমুখ। কুখ্যাত দুষ্ট খোজার সংখ্যাও কম নয়। অনেক রাজবংশের পতনের কারণও খোজাচক্র।
খোজা কাহিনীতে খোজাদের যাবতীয় তথ্যাদি বর্ণনা করা হয়েছে, যার শুরু খ্রিস্টপূর্ব ২১০০ অব্দ থেকে। প্রাচীন আমলে কেমন করে তাদের খোজা বানানো হত? কেমন ছিল তাদের জীবনযাত্রা—খোজা সম্পর্কে ধর্ম কি বলে কিংবা বর্তমান কালের খোজারা কেমন? এ সব কিছু জানতে হলে আপনাকে পড়তেই হবে আশরাফ উল ময়েজের খোজা ইতিহাস বইটি। এটি কেবল খোজাদের ইতিহাস নয়। পাশাপাশি খোজাদের সম্পর্কে প্রচলিত মিথ ও ভুল ধারণাগুলিকে তুলে ধরা হয়েছে। একই সাথে বর্ণন করা হয়েছে বিখ্যাত সব খোজাদের সংক্ষিপ্ত জীবনী। বইটি পড়ে খোজাদের সম্পর্কে সম্পূর্ণ ধারণা পাবেন।
__________________________

অ্যানিমেল ফ্যাক্টস (১ম-২য় খন্ড)

বই : অ্যানিমেল ফ্যাক্টস (১ম-২য় খন্ড)

প্রকাশ কাল : অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৬ এ প্রকাশিত
মূল্য : ১০০০

লেখক : আশরাফ-উল ময়েজ

অ্যানিমেল ফ্যাক্টস

বই সংক্ষেপ :
পৃথিবীর সব শিশুই জীবজন্তু পছন্দ করে। সব শিশুরই প্রথম দিকে খেলনা জাতীয় বস্তুর প্রতি আকর্ষণ থাকে। কিন্তু শিশুটি যখন একটু করে বড় হতে থাকে তখন প্রকৃতির গাছপালা, ঘাস, লতাপাতা, ফুল, ফল ইত্যাদির পাশাপাশি পরিচিত হতে থাকে বিড়াল কুকুরের মত অন্যান্য জীবজন্তুর সঙ্গে। আরো একটু বড় হলে চিনতে থাকে গরু, ছাগল, হাতি, বাঘ, ঘোড়া, বানর ইত্যাদি প্রাণী। আর বর্তমানে টেলিভিশনের কল্যানে জীবজন্তুর সাথে পরিচিত হওয়া আরো সহজ। কিন্তু বাস্তবে তাদের দেখতে হলে হয় যেতে হবে কোন চিড়িয়াখানায় এবং কোনো ওয়াইল্ড লাইফ পার্কে। একটা পর্যায়ে এসকল জীবজন্তুর সম্পর্কে আরো বেশি জানতে চায়। অনেক সময় শিশুরা প্রণীদের স্বভাব কিংবা আচরণ সম্পর্কে বড়দেরকেও প্রশ্ন করে এবং তাদের প্রশ্ন এত অদ্ভুত ধরনের থাকে যে বড়রাও এর উত্তর দিতে অপ্রস্তুত হয়ে যায়।
এ বইয়ে এ থেকে শুরু করে জেড পর্যন্ত ইংরেজী বর্ণমালার প্রতিটি শব্দ দিয়ে একাধিক প্রাণীর নাম উল্লেখ করা হয়েছে। তা থেকে একটি বা দুটি প্রাণীর বৈশিষ্ট সমূহ বর্ণনা করা হয়েছে। কোনো কোনো বর্ণমালার ক্ষেত্রে বিশেষ প্রাণীকে বেছে নেওয়া হয়েছে দেশ বিদেশের প্রাণীদের সাথে শিশুদের পরিচিত করার জন্য। উজ্জল রঙিন ছাপা ও চিত্রের বিস্তারিত বর্ণনা বইটিকে আকর্ষণীয় করে তুলেছে শুধু বর্ণনার মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয়, সাথে রয়েছে শতশত রঙিন চিত্র যা থেকে তারা এ সকল প্রাণীর একটি চিত্রও নিজের মানসপটে আঁকতে পারবে।

অটোমান সুলতান ও তোপাকাপি প্রাসাদ

__________________

উল্লেখ্য, নীরবে নিভৃতে চলে গেলেন নিভৃতচারী আমরাফ উল ময়েজ । জীবনে অর্থসম্পদ করতে না পারলেও মানুষের জন্য রেখে গেছেন ১২টি অমূল্য রতন। ১২ টি অতি মূল্যবান বই।

রক্ষিতা অাখ্যান : কঙ্কু বাইন

 

তিনি ছিলেন একান্ত সাধক। বিদ্যা সাধনা করতেন। লিখতেন নিয়মিত। লেখার সাধনায় জীবনের অন্তিমকাল পর্যন্ত নিয়োজিত রাখেন তিনি। চলমান বাংলাদেশে এ এক বিরল ঘটনা। কোন লোভ ছিল না তার। ছিল না বিত্তবাসনা ও বিত্তসাধনা। সবার জানার অন্তরালে হঠাৎ চলে গিয়ে তিনি তার নির্লোভ চরিত্রের সৌরভ রেখে গেলেন।

ক্রীতদাস ইতিহাস

লেখকের বই গুলো রকমারী ডট কমে পাবেন পাঠক ।

অটোমান হারেমের নারীরা

 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।