রাতুল সেন

Published:
2020-05-31 11:13:44 BdST

এন আই এইচ প্রধান ফ্রান্সিস কলিন্স বলছেন ষড়যন্ত্র তত্ত্ব খুব বিব্রতকর


 

অধ্যাপক ডা. শুভাগত চৌধুরী

__________________________

National Institutes of Health, এন আই এইচ প্রধান ফ্রান্সিস কলিন্স বলছেন ষড়যন্ত্র তত্ত্ব খুব বিব্রতকর। চিকিৎসা বিশেষজ্ঞ দের করোনা সম্বন্ধে সদা পরিবর্তনশীল পথনির্দেশ ভাইরাস সম্বন্ধে আর কিভাবে এর বিস্তার ঘটে সে সম্বন্ধে আমাদের ক্রমে আর বেশি জানা আর উপলব্ধি নির্দেশ করে । মাস্ক পরা নিয়ে নির্দেশ মানুষকে বিভ্রান্ত করল আবার নির্দেশ বদলাল ।
মাস্ক হয়ে গেল রাজনৈতিক ইস্যু । ডোনালড ট্রাম্প সাহেব ঠিক করলেন তিনি মাস্ক পরবেন না বারবার বললেন আর সাংবাদিকদের এ নিয়ে বিদ্রূপ ঠাট্টা করলেন। আবার রি টুই ট করে বলেন মাস্ক ভাল এটি সামাজিক নিয়ন্ত্রণ করে আবার বললেন এ হল নীরবতা ,কৃতদাস বৃত্তি আর সামাজিক মৃত্যুর সংস্কৃতি ।
এভাবে করোনা নিয়ে বৈশ্বিক লড়াই চলছে দেখি কিহয় ।
২.
মগজের রক্ষণ ব্যবস্থা
মগজের নিজস্ব ইম্মুন ব্যবস্থা নিজের কোষের গুরুতর ক্ষতি করতে পারে। কেন্দ্রীয় স্নায়ু তন্ত্র দেহের প্রতিরোধ ব্যবস্থা থেকে ব্লাড -ব্রেন প্রতিবন্ধক এর মাধ্যমে পৃথক হয়ে আছে । কেন্দ্রীয় স্নায়ু তন্ত্রের নিজস্ব ইম্মুন ব্যবস্থা আছে নিউরো ইম্মুন সিস্টেম যা সংক্রমণ আর বিদেশী কোষ থেকে মগজকে রক্ষা করে । মগজের ইম্মুন কোষ মাইক্র গ্লায়ার আছে নানা কাজ । মৃত বা আহত মগজ কোষ থেকে মগজ মুক্ত হবার জন্য নিউরন দের সাহায্য করে । পরিস্থিতি সাপেক্ষে এরা দৈহিক অবয়ব আর আচরন বদলানোর ক্ষমতা আছে এদের । এতে এরা নানারকম ভুমিকা গ্রহন করতে পারে । সংক্রামক বস্তু বা আঘাতে এরা সাড়া দেয় আর সক্রিয় হয়ে উঠে ।সক্রিয় হলে এদের হয় পুনঃ জনন আর এরা এর পর চলে যায় অকুস্থলে । সাড়া দেওয়ার পর মাইক্রো গ্লায়া নিঃসরণ করে সাইটোকিন আর কেমো কিনস । তবে স্নায়ু অবক্ষয়ী রোগে মাইক্রোগ্লায়ার রয়েছে ক্ষতিকর ভূমিকা , যেমন আলজাইমার রোগ আর পারকিন্সন রোগ । গ্ল্যায়া নামে নন নিউরনেল কোষের অংশ হল মাইক্রো গ্লায়া । গ্লায়া কোষ গুলো মগজের নিউরন রক্ষা করে বলে জানা । এরা অনন্য এই কারনে যে অন্যান্য মগজ কোষের থেকে এদের উৎস ভিন্ন । মগজ কোষ উদ্ভূত হয় নিউরেল স্তেম কোষ । মাইক্রো গ্ল্যায়া উদ্ভূত হয় ডিম্ব থলী (yolk sac) থেকে এরপর বিকশিত হবার সময় আগে ভাগে এসে উপস্থিত হয় মগজে । প্রদাহ হলে মাইক্রো গ্লায়ার কর্ম বদলে যায় আর মগজ রক্ষার জন্য আগ্রাসী রূপে আবির্ভূত হয় । প্রুনিং বা কাট ছাঁট করার মাধ্যমে মাইক্রো গ্লায়া নিউরনের মধ্যে যে সং যোগ গুলো এদের ছিন্ন করতে থাকে , এদের গ্রাস করে ফেলে। এই কাট ছাঁটের সময় দুর্বল নিউরন কাটা পড়ে থেকে যায় শক্তিশালী গুলো । মাইক্রো গ্লায়ার পৃষ্ঠ দেশে আছে বিশেষ রিসেপ টার । অন্যান্য কোষ থেকে আসা যন্ত্রণার সঙ্কেত এরা চিহ্নিত করে। এই সঙ্কেতের আকর্ষণে মাইক্রো গ্লায়া ছুটে যায় সমস্যা স্থলে ।

____________________________

AD...

আপনার মতামত দিন:


কলাম এর জনপ্রিয়