Ameen Qudir

Published:
2020-03-19 13:19:25 BdST

কোয়ারেন্টাইন অমান্যকারী ইতালিফেরত আত্মীয়ের কথা প্রশাসনকে জানিয়ে অনন্য নজির ঢাকার ডাক্তারের


ডেস্ক
_______________________

যখন বিলাতফেরত প্রবাসীরা কোয়ারেন্টাইন পিরিয়ডে অবাধে সর্বত্র ঘুরছে; বাংলাদেশ সরকার তাদের নিয়ন্ত্রণে হিমশিম; করোনা ভাইরাস সংক্রমণ নিয়ে স্বাস্থ্য দপ্তর আশঙ্কায় তখন বাংলাদেশেরই একজন সমাজ সচেতন লোকসেবী চিকিৎসক স্থাপন করলেন অনন্য নজির। তার ইতালি ফেরত আত্মীয় ঢাকারই অভিজাত এলাকার বাসিন্দা হয়েও কোয়ারেন্টাইন মেইনটেইন না করায় তিনি নিজেই স্বত:প্রনোদিত হয়ে প্রশাসনকে ফোন কল করে জানান। এবং ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করেন সামাজিক ও জনস্বাস্থ্য রক্ষায় পবিত্র দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে। এই শক্ত মনের দৃঢ় প্রতিজ্ঞ চিকিৎসক হলেন ডা. ইসরাত শর্মি। তিনি জানান, "আমার এই কাজের কারনে আত্মীয়তার সম্পর্কে হয়তো ভাঙন ধরলো,তবুও আমি আমার সিদ্ধান্তে অনড়।
আপনি নিজে এই কাজটা করার মত শক্ত মানসিকতার হতে পারবেন না? অবশ্যই পারবেন। পারতে হবে।"

এ নিয়ে তিনি এক বক্তব্যে তার নিজ অভিজ্ঞতা জানিয়েছেন। আমরা তার সম্মতি নিয়ে সেই লেখা প্রকাশ করলাম।
ডা. ইসরাত শর্মি'র লেখা
__________________

গত রাতে ঘটা আমার নিজ ঘরের একটা সত্য ঘটনা শেয়ার করছি-

আমার আপন ফুপাতো ভাই গত ৯ দিন আগে ইতালি থেকে ফিরেছে দেশে।
বাসা ঢাকা শহরের এক অভিজাত এলাকায়।

আমার বাবাকে দেয়া আমার পক্ষ থেকে উপদেশ ছিল এটা দেখভাল করা যে-ফুপা,ফুপু,ফুপাতো ভাই এবং ভাবিসহ ওই ফ্ল্যাটে যারা আছে তারা যেন ১৪ দিন বাসা থেকে বের না হয়/ কোয়ারেন্টাইন মেইনটেইন করে।
কিন্তু গতকাল অফিস শেষে গভীর রাতে বাসায় ফিরে খোঁজ নিতে গিয়ে জানতে পারলাম ভাইয়া বাজারে গিয়েছিল আজ।

আমি কথাটা শোনা মাত্র আমার বাবাকে বললাম- এখনই থানায় কল দাও,আমি নাম্বার দিচ্ছি।

বাবা বললো-থাক বাদ দাও,ভুল করে ফেলেছে।

"থাক বাদ দাও,ভুল করে ফেলেছে"- কথাটা ক্ষমা সুন্দর ভালো মানুষের মত শোনা যাচ্ছে, তাই না????
কিন্তু আমার দৃষ্টিতে নিজের বাবাকে জঘন্য অপরাধী মনে হলো তখন।

আমি ওই মুহুর্তেই প্রশাসনকে ফোন কল করে জানালাম।

আমার এই কাজের কারনে আত্মীয়তার সম্পর্কে হয়তো ভাঙন ধরলো,তবুও আমি আমার সিদ্ধান্তে অনড়।

আপনি নিজে এই কাজটা করার মত শক্ত মানসিকতার হতে পারবেন না? অবশ্যই পারবেন। পারতে হবে।

আপনার মতামত দিন:


কলাম এর জনপ্রিয়