Ameen Qudir

Published:
2020-01-09 16:30:56 BdST

যে ভূমিপুত্রের হাতে পলিমাটির সৌরভ


 


মেজর (ডা.) খোশরোজ সামাদ

____________________________

১।কে তিনি কে? তিনি একজন ভূমিপুত্র। তাঁর হাতে পলি মাটির সৌরভ। তার কর্মযজ্ঞ বাংলা নামের পলল দ্বীপের গভীরে প্রোথিত। তিনিই মোহিত কামাল।দিব্য কান্ত সৌম্য দেহ। অবয়ব প্রকৃতি প্রদত্ত হলেও তাঁর আলোকিত হ্রদয় বৃত্তির ছাপচিত্র অবয়বে যেন প্রতিবিম্বের মত পরিস্ফুট।

২।পেশায় মনো চিকিৎসক। এই বিষয়ের প্রতিষ্ঠানের সর্বোচ্চ পদে আসীন। সেই অহংবোধ গলে তাঁকে বিনয়ী,মিষ্টভাষী ও প্রাণচঞ্চল করেছে।পেশায় সময় দিলে বৈষয়িক যে প্রাপ্তি হত তার সামাণ্য সিকিভাগও লেখালেখিতে আসে না। সেটি জেনেও নির্ভরতার পথটি ছেড়ে লেখালেখিকে বলেছেন, ' আমি তোমারই দিকটি নিলাম'।

৩।মোহিত কামাল একদিনে তৈরী হন নি। সেই শিউলি শৈশবে কচি কাঁচার মেলার আসরে লেখালেখির পথে হাঁটতে শুরু করেছিলেন। তিনি ৬১ বছরে পা রেখেও সেপথে পরিব্রাজকের মত অবিরাম হেঁটে চলছেন।আমার বাবা তাঁর বিমুগ্ধ পাঠক, আমি তাঁর লেখায় বুঁদ হয়ে থাকি,আমার সন্তানও বিপুল আনন্দে তাঁর লেখা পড়ে। পরম্পরা তিন প্রজন্মকে লেখনীর প্রবল মোহাবিষ্ট শক্তিতে সম্মোহিত করতে যে অল্প কজন লেখকের পক্ষে সম্ভব তিনি তাঁদেরই অন্যতম।

৪। বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধাMazibar Rahman Khoka তাঁর প্রকাশনী বিদ্যাপ্রকাশ থেকে লেখকের জন্মস্মরণার্হ উদ্ যাপন করে তাঁকে সন্মানিত করলেন।সভাপতি প্রধাণ অতিথি ইত্যাদি অতি অলংকরণে অনুষ্ঠাণটিকে নুব্জ্য না করে ভালবাসার দুয়ার উন্মুক্ত করে দেয়া হয়েছিল।সেই আলোকিত পথে স্নেহাশীর্বাদ নিয়ে এসেছিলেন সেলিনা হোসেন,কামাল চৌধুরী প্রমুখ। লেখক প্রকাশক শুভানুধ্যায়ীদের চাঁদের হাট সহাসাই মিলন মেলায় পরিণত হল।

৫।গল্প আড্ডা স্মৃতিচারণে মোহিত কামালের জীবনের অনেক অগ্রন্থিত অধ্যায় জানা হল। খোকাপুত্র, বেগম কামালসহ প্রিয়জনেরা কেক কেটেছেন। ফুলের বন্যায় ভেসে গেছেন লেখক। মোড়ক উন্মোচনের মাধ্যমে পাঠক উপহার পেল নতুন বই। পাঠকের কাছে লেখকের যে দায়, তার পেয়ালার পুরোটা ঢেলে দিয়ে বাংলা কথা সাহিত্যকে তিনি ক্রমশঃ সমৃদ্ধ করে চলছেন।

৬।মোহিত কামাল,সুপ্রিয় অগ্রজ,অফুরান ভালবাসা। আপনার পুরস্কার শুধুই বরমাল্য।
________________________
মেজর (ডা.) খোশরোজ সামাদ,
ক্লাসিফাইড স্পেশালিষ্ট ইন ফার্মাকোলজি,
আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল কলেজ, ঢাকা।

আপনার মতামত দিন:


কলাম এর জনপ্রিয়