Ameen Qudir

Published:
2019-10-19 19:33:27 BdST

সৌদীতে টাকা কামিয়ে অনেকে যায় আমেরিকা: ডা. শাহ আলম ফিরেছিলেন দেশের রোগীর সেবায়


লেখকের ছবি

অধ্যাপক ডা. একেএম রেজাউল করিম
___________________________________

একজন মানুষ দীর্ঘ দুই দশকের অধিককাল সৌদি আরবে চিকিৎসক হিসাবে কাজ করেছেন। পাশাপাশি আর্থিক সচ্চলতা ও পেয়েছেন। যতটুকু জেনেছি উনি সচ্ছল পরিবারেরই সন্তান ছিলেন।
আমার পরিচিত অনেকেই সৌদি আরব থেকে সচ্ছলতা অর্জন করে আমেরিকা কানাডা পাড়ি দিয়েছেন। তারা অন্যায় কিছু করেন নি। নিরাপদ ও উন্নত জীবনের অধিকার সবার আছে।
আমাদের পরিচিত বড় ভাই ডা: শাহ আলম, সিএমসি-২০ ব্যাচ (৬০) কেন জানি মাটির টান ছাড়তে পারলেন না। নিজের গ্রামের বাড়ী সীতাকুন্ডে একটি আধুনিক শিশু হাসপাতাল করে তুলনামূলক কম ব্যয়ে শিশু স্বাস্থ্য সেবা দিয়ে যাচ্ছিলেন। যে সেবার জন্য রোগীরা আগে চট্টগ্রাম শহরে দৌড়াত, তা তিনি উপজেলায় পৌঁছে দিয়েছিলেন।

উনার সাহস দেখে অবাক হই। যেখানে রাতে চেম্বার শেষ করে হেটে বাসায় ফেরার পথে খোদ চট্টগ্রাম শহরে চিকিৎসক আক্রান্ত হবার ঘটনা আছে, সেখানে তিনি সূদুর সীতাকুন্ড থেকে রাতে চেম্বার শেষ করে পাবলিক ট্রান্সপোর্টে চট্টগ্রাম শহরের বাসায় ফিরছিলেন। হয়ত দীর্ঘদিন সৌদি আরব থেকে দেশের ক্রমাবনতি বুঝে উঠতে পারেন নি,বা হয়ত ভেবেছেন চিকিৎসককে কে ক্ষতি করবেন।

তিনি জানতেন না এই সময় বাংলাদেশে দূর্বৃত্তদের নিরাপদ শিকার এখন নীরিহ চিকিৎসকরা।ছোটবেলায় মন্ত্রী মহোদয়দের নিরাপত্তা দেয়ার জন্য অস্ত্রধারী পুলিশ ইত্যাদি দেখেছি, কিন্তু এখন ক্ষমতাবান বেসরকারী ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে ওসি, ডিসি, জজ সাহেব সবাই গানম্যান নিয়ে নিজেদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছেন। দেশের সাম্প্রতিক হাল না জানার কারনে বা অতি আত্ববিশ্বাসের বলি হয়ে তিনি অকালেই ঘাতকের হাতে নির্মম ভাবে খুন হলেন।

অনেকে বলবেন, আমেরিকায় ও এই রকম খুন হয়। খুন যে সেখানে হয় না তা নয়, তবে তাদের সাথে আমাদের পার্থক্য হল, তারা সম্ভাব্য দ্রুততর সময়ে খুনীদের আটক করে সুবিচার নিশ্চিত করে।

আমরা কামনা করব অতি দ্রুত খুনীদের আটক করে এই মানবহৈতষী চিকিৎসকের খুনীদের উপযুক্ত শাস্তি নিশ্চিত করা হবে।
______________________________

অধ্যাপক ডা. একেএম রেজাউল করিম
Professor of Pediatric Hematology & Oncology

আপনার মতামত দিন:


কলাম এর জনপ্রিয়